• সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

ইচ্ছায় ও বাধ্য হয়ে দ্বিতীয় দিনে চলছে কুরবানি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ আগস্ট ২০১৯, ১০:৩৭
কুরবানি
রাজধানীতে রাস্তার একপাশে পশু কুরবানি (ছবি : সংগৃহীত)

সারা দেশে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়েছে সোমবার (১২ আগস্ট)। সাধারণত ঈদের দিনই অধিকাংশ মানুষ পশু কুরবানি করে থাকেন। তবে ইসলামের বিধান অনুযায়ী, ঈদের দিন ছাড়াও দ্বিতীয় ও তৃতীয় দিনেও পশু জবাই করা যায়। প্রতি বছরই তিন দিন জুড়েই কুরবানি হয়ে থাকে। তবে এবার কসাই সংকট ও কসাইয়ের অতিরিক্ত মজুরির কারণে অনেকে পশু কুরবানির জন্য ঈদের পরের দিনকে বেছে নিয়েছেন।

মঙ্গলবার (১৩ আগস্ট) ঈদের দ্বিতীয় দিন চলছে। আজ রাজধানীর বকশিবাজার, চকবাজার, মালিবাগ, মগবাজার, ফার্মগেট এলাকার অলি-গলিতে কুরবানির চিত্র চোখে পড়েছে। যদিও সংখ্যাটা কম।

ঈদের দ্বিতীয় দিন কুরবানি করা মালিবাগের বাসিন্দা মো. নাজিম বলেন, ঈদের দিন আমার গরু কুরবানি করার ইচ্ছা ছিল। কিন্তু কসাই পাওয়া যায়নি। কোনো কোনো মৌসুমী কসাই পেলেও মজুরি অনেক বেশি চেয়েছে। আমার গরুর ওজন প্রায় তিন মণ। অথচ কসাই এটা কেটে দিতে ৮ হাজার টাকা চেয়েছে। বাধ্য হয়ে খরচ কমাতে আজ কুরবানি দিচ্ছি।

বংশালের বাসিন্দা মো. জামাল বলেন, ইচ্ছা করেই ঈদের দ্বিতীয় দিন কুরবানি দিচ্ছি। আমরা পুরান ঢাকার মানুষ ঈদের দির ঈদগাহে নামাজ পড়ে বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে আনন্দ করি। পরে দিন কুরবানি করে আনন্দ ধরে রাখি।

আরেকজন বলেন, ঈদের দিন কসাই পাওয়া যায়নি। এক কসাই কথা দিয়েও আসেনি। বাধ্য হয়েই আজ পশু কুরবানি দিচ্ছি।

আবদুস সামাদ গুলশানের নিকেতনের বাসিন্দা। তিনি সাত বছর যাবত দক্ষিণ কোরিয়ায় থাকেন। তিনি কোম্পানি থেকে ছুটি পেয়ে ঈদের রাতে ঢাকায় এসেছেন। স্বামীর উপার্জনের টাকায় দেওয়া কুরবানি চোখের সামনে করতে তার স্ত্রী ঈদের দিনের পরিবর্তে দ্বিতীয় দিনকে বেছে নিয়েছেন।

যারা ঈদের দ্বিতীয় দিন কুরবানি করছেন তাদের বর্জ্য অপসারণে সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা সকাল থেকেই কাজ শুরু করেছে। তবে অনেক বাসিন্দা নিজ দায়িত্বে বর্জ্য অপসারণ করছেন। কোথাও বর্জ্য থাকলে সেটি সিটি করপোরেশন থেকে অপসারণ করা হচ্ছে।

ওডি/এমআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]om

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড