• শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ৩ বৈশাখ ১৪২৮  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিমানবন্দরে শিশুসন্তানকে ফেলে গেলেন মা!

  নিজস্ব প্রতিবেদক

০২ এপ্রিল ২০২১, ১৩:২১
শিশু
এপিবিএন সদস্যরা শিশুটিকে উদ্ধার করে। ছবি : সংগৃহীত

আট মাসের কন্যা শিশুকে রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফেলে রেখে গেছেন তার মা। এ ঘটনায় শিশুটিকে উদ্ধার করেছে বিমানবন্দরে দায়িত্বরত আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) এক সদস্য।

শুক্রবার (২ এপ্রিল) সকালে বিমানবন্দরের অ্যারাইভাল (আগমনী) টার্মিনাল থেকে ফেলে রাখা অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

জানা গেছে, শিশুটির মা রাতে একটি ফ্লাইটে সৌদি থেকে দেশে আসেন।

এপিবিএনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ওই নারী বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) দিবাগত রাত ২টার দিকে সৌদি আরব থেকে একটি ফ্লাইটে ঢাকায় আসেন। ফ্লাইট অবতরণের পর তিনি ৫ নম্বর লাগেজ বেল্টের সামনে শিশুটিকে নিয়ে অবস্থান করেন। বাড়ি ফেরার জন্য রাতে গাড়ি পাবেন না, তাই সকাল পর্যন্ত সেখানেই অপেক্ষা করেন। এরপর সকাল ৮টার দিকে হঠাৎ শিশুটিকে কান্না করা অবস্থায় রেখে তিনি লাগেজ নিয়ে পালিয়ে যান।

একই ফ্লাইটে ওই নারীর সাথে আসা অপর এক নারী জানান, শিশুটির মা সৌদি আরবে কাজের জন্য গিয়েছিল। সেখানে এক ব্যক্তির সাথে তার বিয়ে হয়। তাদের ঘরেই এই সন্তানের জন্ম। তবে দেশে ফেরার আগেই তাদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। সন্তানকে নিয়ে তিনি কোথায় যাবেন তা নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ছিলেন। ফ্লাইটে কান্নাকাটি করছিলেন ওই নারী।

আরও পড়ুন : বাবার সাথে অভিমান করে স্কুলছাত্রীর আত্মাহুতি

এ দিকে, শিশুটিকে মা ফেলে যাওয়ার পর কান্নাকাটি করছিল। পরে এপিবিএনের কয়েকজন নারী সদস্য তার কান্না থামানোর চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে মেস থেকে তার জন্য দুধ আনা হলে শিশুটির কান্না থামে।

সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ওই নারীকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন। তাকে না পাওয়া গেলে প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক ও ব্র্যাককে বিষয়টি জানানো হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

ওডি/আইএইচএন

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড