• শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

স্কুলশিক্ষিকাকে ধর্ষণ, মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি!

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৭ জুলাই ২০২০, ১৭:৫৩
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর দক্ষিণ কাফরুলের একটি স্কুলর শিক্ষিকা তার প্রতিষ্ঠানের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও জোরপূর্বক ভ্রুণ হত্যার অভিযোগ এনেছেন। সেই ঘটনায় ওই শিক্ষিকা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আর মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে জানান ভূক্তভোগী।

ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ, ওই নেতার স্বজন ও বন্ধুরা মামলাটি তুলে নেওয়ার জন্য তাকে চাপ দিচ্ছেন।

গত ১৬ জুন ঢাকা উত্তরের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের আইন বিষয়ক সম্পাদক এসএম এনামুল হক পলকের (৪৫) বিরুদ্ধে কাফরুল থানায় একটি মামলা করেন ওই শিক্ষিকা।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাফরুল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সোহেল রানা জানান, মামলা হওয়ার পর পলক গা ঢাকা দিয়েছেন। আমরা খুঁজছি তাকে। ইতোমধ্যে তার ফোন নাম্বার ট্র্যাকিং করে তার অবস্থান জানার চেষ্টা করছি। তবে বাদীর কোনো তথ্য জানা থাকলে তারা যেন আমাকে জানায়।

বাদীকে হুমকির বিষয়ে তিনি বলেন, কারা হুমকি দিচ্ছে তা আমাদের জানালে আমরা তার বিরুদ্ধেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।

ওই শিক্ষিকা বলেন, দক্ষিণ কাফরুল এলাকার বিদ্যালয়টির গভর্নর বডির চেয়ারম্যান পলকের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক থাকাকালে তিনি বিয়ের প্রস্তাব দেন। কিন্তু তিনি বিবাহিত ও সন্তানের জনক হওয়ায় আমি তার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করি। কিন্তু তিনি আমাকে বিয়ের জন্য জোর করতে থাকেন। তিনি বলেন, দুই স্ত্রীকে ভরণ-পোষণের মতো যথেষ্ট অর্থ রয়েছে তার।

আরও পড়ুন- সেরা আইডিয়া কম্পিটিশনের বিজয়ী যারা

ওই নারীর ভাষ্য, অবশেষে ২০১৯ সালের ১৬ জুন তিনি পলকের প্রস্তাবে রাজি হন। কিন্তু তারপর পলক তাকে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে বাধ্য করান।

এক পর্যায়ে গর্ভবতী হয়ে পড়লে গর্ভধারণের তিন মাসের মাথায় ওষুধ খেয়ে ভ্রুণ হত্যার জন্য চাপ দেন ওই আওয়ামী লীগ নেতা।

ভুক্তভোগী শিক্ষিকা জানান, গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতা হিসেবে তার চাকরি পলকের সম্মান ক্ষুণ্ণ করছে, এই অযুহাতে চাকরি ছেড়ে দেওয়ার জন্যও বলেন তিনি। তাই আমি গত ডিসেম্বরে চাকরি ছেড়ে দেই। চলতি বছরের ১২ জুন তিনি আবারও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারীরিক সম্পর্কের জন্য বলেন। কিন্তু আমি আবার গর্ভবতী হয়ে পড়লে তিনি আমার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন।

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড