• বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

আয়ুর্বেদিক পাস করে অ্যালোপ্যাথি চিকিৎসা দেন তিনি 

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৮ জুন ২০২০, ১৮:৪১
মিজানুর রহমান
চিকিৎসক মিজানুর রহমান (ছবি : সংগৃহীত)

ইউনানি বা আয়ুর্বেদিক নিয়ে পড়াশোনা করেছেন, কিন্তু চিকিৎসা করছেন হৃদরোগ, লিভার, জন্ডিস, বাতজ্বরের মতো জটিল রোগের। তাও আবার অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা। এমনকি হার্ট সার্জারিও করেন তিনি।

মিজানুর রহমান নামের এই চিকিৎসক রাজধানীর মতিঝিলে ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে দীর্ঘ ১২ বছর ধরে এভাবে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছিলেন। তবে শেষ রক্ষা হয়নি তার। র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালতে ধরা পড়েছে তার প্রতারণা। অপরাধে তাকে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রবিবার (২৮ জুন) বেলা ১২টা থেকে মতিঝিলে ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে ভুয়া চিকিৎসক ও অনিয়মের খোঁজে ভ্রাম্যমাণ আদালত শুরু করেন র‌্যাব-৩ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ বসু। এ সময় অনিয়মের কারণে হাসপাতালের সহকারী সুপার হাসিনুর রহমানকে চার লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

র‌্যাব-৩ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ বসু জানান, মিজানুর রহমান ইউনানী প্র‌্যাকটিশনার। কিন্তু তার কাছে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ, পিএইচডিসহ বিভিন্ন সার্টিফিকেট আছে। তার পিএইচডি ডিগ্রি নিয়ে সন্দেহ আছে। তিনি ইউনানির ওপর পড়াশোনা করে অ্যালোপ্যাথিক মেডিসিনে প্রেসক্রাইব করতেন। কিন্তু তিনি অ্যালোপ্যাথিকে চিকিৎসা এবং ডাক্তার পরিচয় দিতে পারেন না। এজন্য তাকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আর হাসপাতালের বিভিন্ন অনিয়মের কারণে সহকারী সুপার হাসিনুর রহমানকে চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: +8801721978664

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড