• বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

হাসপাতালে ফুচকা খাচ্ছেন হত্যার আসামি লাবনী

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২২:০৮
আসামি লাবনী
হাসপাতালের বিছানায় বসে ফুসকা ও চিকেন বল খাচ্ছেন আসামি লাবনী (ছবি : সংগৃহীত)

হত্যা মামলার আসামি লাবনী আক্তার ইমু ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাকে কানের সমস্যাজনিত কারণে তিন-চার দিন আগে কাশিমপুর মহিলা কারাগার থেকে ঢামেকে আনা হয়। নিয়ম অনুযায়ী হাসপাতালে আসামিকে বাইরের খাবার দেওয়া নিষেধ। এমনকি হাসপাতালের খাবারও পরীক্ষা করে খেতে দেওয়ার নির্দেশ রয়েছে। অথচ কারারক্ষী ও পুলিশের সামনে বসেই ফুচকা ও চিকেন বল খেতে দেখা গেল লাবনীকে।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে দেখা গেছে, আসামি লাবনী একটি থালায় ফুচকা ও চিকেন বল খাচ্ছেন। তিনি পাশে বসে থাকা ডিএমপির নারী পুলিশ ও কারারক্ষীকেও সেগুলো খাওয়ার অনুরোধ করেন। ছবি তুলতে গেলে আসামি হাত দিয়ে নিষেধ করেন।

এ বিষয়ে সেখানে দায়িত্বরত দুই নারী কনস্টেবল ও কারারক্ষী সুশান্তের কাছে জানতে চাওয়া হয়। তারা বলেন, আসামির মা ফুসকা ও চিকেন বল এনেছেন, উনি কি ফুচকা খাবেন না?

লাবনী ঢামেকের জরুরি বিভাগের তৃতীয় তলায় নাক-কান-গলা বিভাগের ৩০৪ নম্বর ওয়ার্ডের ৩ নম্বর বেডে ভর্তি রয়েছেন। ঢামেকে দায়িত্বরত সহকারী প্রধান কারারক্ষী শেখ মো. কামাল হোসেন জানান, আসামি কানের সমস্যা নিয়ে কাশিমপুর মহিলা কারাগার থেকে তিন-চার দিন আগে এখানে ভর্তি হয়েছেন। চিকিৎসকরা বলেছেন তার অস্ত্রোপচার করা লাগবে।

হাসপাতালে ফুচকা ও চিকেন বল খাওয়ার কথা শুনে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, আমি দ্রুতই ওয়ার্ডের দিকে যাচ্ছি। এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কারারক্ষী শেখ মো. কামাল হোসেন জানান, এখানে আসামিকে হাসপাতালের খাবারও পরীক্ষা ছাড়া খাওয়ানোর নিয়ম নেই, আর বাইরের খাবার তো কোনোভাবেই খাওয়ানো যাবে না।

এ বিষয়ে কাশিমপুর নারী কারাগারের জেলার মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, আমাদের এখান থেকে লাবনী আক্তার ইমু নামে এক নারী আসামি ঢামেকে ভর্তি রয়েছেন। তিনি হত্যা মামলার আসামি।

ওডি/এমআর

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড