• সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

‘শার্লক হোম্‌স’ স্রষ্টার প্রয়াণ দিবস আজ

  সাহিত্য ডেস্ক

০৭ জুলাই ২০১৯, ০৯:৪১
ছবি
ছবি : ‘শার্লক হোম্‌স’ স্রষ্টা স্যার আর্থার কোনান ডয়েল

ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষভাগ থেকে একটি কাল্পনিক গোয়েন্দা চরিত্র এখনো স্বমহিমায় রহস্যপ্রিয় পাঠকদের মনের খোরাক মিটিয়ে আসছে। রহস্যঘেরা বিখ্যাত এই চরিত্রটির নাম ‘শার্লক হোম্‌স’। ১৮৮৭ সালে আবির্ভূত হয় এই চরিত্রটি। যার স্রষ্টা স্কটিশ লেখক ও চিকিৎসক স্যার আর্থার কোনান ডয়েল। বহুমুখী প্রতিভাধর এই লেখক রচনা করেছেন কল্পবিজ্ঞান গল্প, নাটক, প্রেমের উপন্যাস, কবিতা, ননফিকশন, ঐতিহাসিক উপন্যাস এবং রম্যরচনা। আজ এই মানুষটির প্রয়াণ দিবস।

তিনি ১৮৫৯ সালের ২২ মে যুক্তরাজ্যের এডিনবরাতে জন্মগ্রহণ করেন। আর্থার কোনান ডয়েলের জীবন ছিল বহুমাত্রিক ও রোমাঞ্চপূর্ণ। তিনি একাধারে ছিলেন- ইতিহাসবিদ, তিমি শিকারি, ক্রীড়াবিদ, যুদ্ধ-সাংবাদিক এবং আত্মিকবাদী।

কোনান ডয়েল এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভেষজবিদ্যা বিষয়ে পড়াশোনা করেন এবং লন্ডনেই স্থায়ীভাবে বসবাস করতে শুরু করেন। একটা সময় তিনি ভেষজ ব্যবসা শুরু করে হাতে পেয়ে যান অনেক অবসর সময়। সেই সময়কে কাজে লাগিয়ে তিনি লিখতে শুরু করেন তার সুবিখ্যাত শার্লক হোমস সিরিজের গল্পগুলো। তাকে প্রথম যে গল্পটি সাফল্য এনে দিয়েছিল সেটি ছিল ‘রক্তসমীক্ষা’ (A Study in Scarlet)।

১৮৯০ সালে এই সিরিজের দ্বিতীয় পর্ব ‘চিহ্নচতুষ্টয়’ (The Sign of Four) প্রকাশিত হওয়ার পর কোনান ডয়েল ভেষজ ব্যবসা ছেড়ে দেন এবং লেখা-লেখিতে পুরোমাত্রায় আত্মনিয়োগ করেন। তিনি অনেক গল্প, কল্পকাহিনী এবং ইতিহাসকেন্দ্রিক রোমাঞ্চ কাহিনী লিখলেও ‘শার্লক হোম্‌স’ তাকে বিশ্বজোড়া খ্যাতি এনে দেয়। বাস্তবিক জীবনেও তিনি দু-দুবার গোয়েন্দাগিরি করে দোষী-সাব্যস্ত ব্যক্তিদের নির্দোষ প্রমাণ করতে সফলও হন। 

বোয়ের যুদ্ধের সময় দক্ষিণ আফ্রিকার এক মাঠ-চিকিৎসাকেন্দ্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্য কোনান ডয়েলকে ১৯০২ সালে নাইট উপাধিতে ভূষিত করা হয়।

এই জগৎবিখ্যাত লেখক ১৯৩০ সালের ৭ জুলাই যুক্তরাজ্যে মৃত্যুবরণ করেন। 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড