• শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ৮ চৈত্র ১৪২৫  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন

আনোয়ার সুফিয়ানের তিনটি কবিতা

  আনোয়ার সুফিয়ান ১৪ মার্চ ২০১৯, ১৫:০৩

কবিতা
ছবি : প্রতীকী

 প্রেম অপ্রেম এবং একটি অলস গোধূলি 
            
প্রেম
দুষ্প্রাপ্য প্রেম 
তুমি কি আর আসবে না
প্রাণে বাজাবে না উচ্ছ্বাসের ডুগডুগি 
জানি, এখানে থেমে গেছে যৌবনের প্রলয় 
জং ধরা মন বারবার সাদা লেবাস পরে থাকতে চায় 
এবং এখানে প্রেম প্রতিনিয়ত হয় অপ্রেমের মুখোমুখি।

কিন্তু প্রেম 
বিশ্বাস করো 
সাক্ষী তো গোধূলি 
রক্তিম লালিমা খেয়ে যার ক্ষুধা মিটে 
অতঃপর ঘোর আঁধারে যার মিলিয়ে যাবার স্বভাব 
নিশ্চিহ্ন হয়ে যেতে যার দ্বিধাবোধ নেই কারো বিরহ পাথারে 
তুমিও কি এমন কেউ?

না প্রেম না 
তুমি এমন হতে পারো না 
যদি অলস গোধূলির ছলনায় আঁধারে হারিয়ে যাও 
ভরা পূর্ণিমা হয়ে ফিরে এসো আমার নিঃসঙ্গ নীল পারাবারে 
এখানে নতুন গোধূলি জন্ম নিবে যে আঁধারে হার মানবে না 
এখানে লাল লালিমায় হবে প্রেম অপ্রেমের জোড় সন্ধি
বিচ্ছেদের সুরেরা এখানে থাকবে চিরদিনের জন্য মৃত 

প্রেম ও প্রেম 
তুমি কি এখনও আসবে না 
জনম জনম এ গোধূলি লগ্নে তোমার পথ চেয়ে আছে 
আমার এ লাবণ্য যৌবন। 


দোহাই পৃথিবী প্রেম করিস না 
                 
পৃথিবী 
দোহাই লাগি তোরে 
তোরে মহাশূন্যের বিশালতার দোহাই 
যেই অক্ষের কলিজা ছিঁড়ে তোর ঘূর্ণন আবর্তন বিচরণ 
সেই অক্ষের প্রতিটি কণা প্রতিটি বিন্দুর শুদ্ধতম দোহাই 
তুই প্রেম করিস না। 

পৃথিবী 
তোরে সমস্ত সৌরজগতের দোহাই 
যার কেন্দ্রের ছাপ্পান্ন হাজার ডিগ্রি সেলসিয়াস উত্তাপ
হার মেনে যায় প্রেমের এক সেকেন্ডের তাপমাত্রার কাছে 
তাইতো শতবার ধিক ঐ বিধ্বংসী প্রেমকে 
যার খপ্পরে নিশ্চিহ্ন হয় একটা জীবন একটা সময়। 

হায়রে প্রেমানল! 
এতো উত্তাপ তোর 
হৃদয় দহনে করিস আনন্দের অবগাহন 
তোর দহনে দহনে বহন করে মহাজগৎ এক টুকরো ভালোবাসা 
সেই ভালোবাসার সান্নিধ্যেই তো ভেসে আছে জীবন তরী 
তোর অনল কি করে পড়াবে বল মহাশূন্যের দেহ নল ।

পৃথিবী 
আবারো দোহাই লাগি তোরে 
প্রেমে হারিয়ে দিস না এ দেহ মন 
দংশনে দংশনে বিধ্বস্ত হবে তোর যাপিত জীবন 
ক্ষত বিক্ষত প্রাণ নিয়ে যদি সম্মুখে এসে দাঁড়াস 
দেখিস,মশকরা করে পাশ কেটে যাবে মহাকাল।
 

আহত বিকেলের আর্তনাদ 
        
বিকেল 
সোনালী আভার বিকেল 
আমাকে গর্ব করে বলে তার নাকি একদিন সব ছিল 
অঙ্গে ঢেউ খেলতো ঘন সবুজের যৌবন 
তবে আজ নাকি সব অসাড় অন্তঃসারশূন্য। 

আরে, সে বিকেল তো সেদিনই হয়েছে আহত 
যে দিন তুমি বলে দিলে,'' তোমার মুখ দেখতে চাই না কখনো''
আজও সে ক্ষণে ক্ষণে ডুকরে কেঁদে উঠে 
ওকে সান্ত্বনা দিতে আমার চলে নিরন্তর প্রচেষ্টা 
কিন্তু কতটুকুই বা পূরণ করতে পারি তোমার অভাব। 

নিঃসঙ্গ বিকেল 
হাত ইশারায় আমাকে ডাকে 
বলে দেখ দেখ এই খানে ঠিক এখানটায় বসতো 
এখনও তার চুলের জীবন্ত সুবাস পাই 
উড়নার বিমোহিত ঘ্রাণ ভেসে বেড়ায় আকাশে বাতাসে

আজ তার বড় অভিমান 
আর এখানে আসে না 
বসে না সে এই সবুজ ঘাসে আমার মুখোমুখি 
পাখি ঠিকই গান গায়। আবার ফিরে যায় আপন নীড়ে 
কোকিল ঠিকই মিষ্টি সুরে প্রেম নিবেদন করে তার কোকিলারে

কিন্তু আমি বিকেল 
আজ বড় নিঃসঙ্গ বড় অসহায় 
তবুও আলোর আভা বিকিরণ করে যাই 
যদি কোনো একদিন শীতের বেলা শেষে সে সুখ পায় 
গায়ে মেখে আমার এই উষ্ণ আভা। 

নবীন- প্রবীন লেখীয়োদের প্রতি আহ্বান: সাহিত্য সুহৃদ মানুষের কাছে ছড়া, কবিতা, গল্প, ছোট গল্প, রম্য রচনা সহ সাহিত্য নির্ভর আপনার যেকোন লেখা পৌঁছে দিতে আমাদেরকে ই-মেইল করুন [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড