• মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯, ৪ আষাঢ় ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

পাঠ প্রতিক্রিয়া

মেধা ও মননের নতুন সত্তা ‘ষোলপৃষ্ঠা’

  শব্দনীল ০৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:২০

কবিতা
ছবি : প্রচ্ছদ ‘ষোলপৃষ্ঠা’

ছোট কাগজ - ষোলপৃষ্ঠা (প্রথম সংখ্যা)
সম্পাদক - মাসুম মুনাওয়ার
মূল্য- ১৬+১৬= ৩২ টাকা

মাসুম মুনাওয়ারের সম্পাদনায় ‘ষোলপৃষ্ঠা’ এর প্রথম সংখ্যা যখন আমার হাতে আসে তখন প্রচ্ছদ দেখেই কৈশোরের একটা স্মৃতি উঁকি দিলো মনে।

তখন আমি শহীদ সামাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ি। স্কুলে আমরা দল বেঁধে সাইকেল চালিয়ে যাওয়া-আসা করতাম। আমাদের ভেতর প্রতিযোগিতা চলত কার আগে কে যেতে পারে! ভারতের বিখ্যাত শিল্পী তেজু বেহানের চিত্রকর্ম ‘ওম্যান অন বাইসাইকেল’ কিছুটা স্মৃতি কাতর করে তুলল। প্রচ্ছদে তার এই অবিস্মরণীয় কীর্তি বলে দেয় সম্পাদকের মনন।

‘আমাকে কামড়ে খায় কবিতা’ লাইনটি দিয়ে শুরু ‘সম্পাদকের জবানবন্দি’। যাদের ভেতর কবিতা বসবাস করে, তারাই অনুভব করতে পারবেন সম্পাদক এই কথাটি দিয়ে কী বলতে চেয়েছেন বা কেন বলেছেন।

‘মানুষ মানেই শুধু দেহ হয় যদি
তবে কেন ভোগ পায় মনহীন মাটি?’

‘মর্জিনামঙ্গল’ কবিতাটি তরুণ কবি রনজিৎ দাস চৌহানের। কবির এটাই প্রথম প্রকাশ এবং ‘ষোলপৃষ্ঠা’ এর শুভসূচনা। প্রথম পাতায় প্রথম প্রকাশ। মনের ভেতর একটি প্রশ্ন উকি দিয়ে উঠলো সম্পাদকের ঔদার্য নয়তো। কিন্তু কবিতাটি পড়ার পরেই ভুল ভাঙ্গলো। কারণ, ‘দুধের আশা ছেড়ে দিয়েছি’।

‘একটা যুদ্ধের অর্ধেক সম্পূর্ণ হয় মুখে মুখে
সহস্র সৈনিক মরে হাতি - ঘোড়া-
ঢাল- তলোয়ারহীন কুরুক্ষেত্রে।’

জানতাম, আপনিও বুঝতে পারবেন। কারণ, এটা তো আমাদের কথা। আমাদের ভেতরের কথা। মুখে-মুখে যুদ্ধ ঘোষণা করি আমরা। প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করি আবার বাব-দাদার নামও ভুলায়দি তবে সবই তা মনে মনে। গভীর কথাটা খুব সহজে উপস্থাপন করেছেন কবি হিমু মোহাম্মদ।

কবিরা কাব্যভাষায় সত্য কথা উপস্থাপন করতে পরেন খুব সহজে। সাবলীল এই কাব্য ভাষা মনোজগতে এতটা আলোড়ন তুলে আঘাত করে। যে আঘাত নিজেকে চিনতে সাহায্য করে। এমনকি সমাজের ক্ষয়-অবক্ষয় আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়। বুঝিয়ে দেয় পরিবর্তন ও পরিবর্ধনের প্রয়োজনীয়তা। কবি নাইমুল আলম মিশুর ‘নিষিদ্ধ কোরাস’ তেমনি একটি কবিতা। যার শেষ স্তাবক বলে-

‘নষ্ট হয়ে গেছে যন্ত্র
খুলে পড়ছে সব কলকব্জা;
মেরামত হবে না আর-
সময় এখন বদলের।’

অন্যদিকে মারুফ কামরুলের ভিন্নমুখী গল্প। যা সমাজে চোখে  ঘৃণিত, তাই আবার  ইমামুল মোত্তাকিনের গদ্যে এসে গ্রহণ যোগ্য। রাজা ইডিপাসের মাকে বিয়ে করার ইতিহাস সে কথাই বলে। সৎ মা হোক, আর পালক মা হোক, আর মা ই হোক, মারুফ কামরুল ও সফোক্লিসের নাটক মনে করিয়ে দেয়, আমরা পুরাতনের ভেতর থেকেই রিপিটেশন আবার রিপিটেশনের ভিতর দিয়ে নতুন কিছু ভাবার বা করার চেষ্টা করছি।

‘ষোলপৃষ্ঠা’ অলংকৃত করারা জন্য সম্পাদক কয়েকটি স্থিরচিত্র ব্যবহার করেছেন। তানজিমুল হক অয়নের একটি স্থিরচিত্রের দিকে তাকালে আপনার মনে হতে পরে কবি তানজিলা হক তানির ‘অন্ধকার’ কবিতার চরিত্র নয় তো এটা। মিলন তো এখানেই। ‘এক ঘটি বিষাদ নিয়ে পাহাড়ি মেয়েটি এখনও বসে আছে সীমান্তের দুয়ার আগলে।’

অথবা মনে প্রশ্ন জাগতে পারে আপনার ‘কুড়ানো পাতার ভেতর জেগে থাকে মর্মর হাহাকার’ কথাটি কবি আনজুম সানি কি শাহনাজ মৌ এর চিত্রকর্ম দেখে লেখেনি তো! কারণ মৌ এর চিত্রে হাহাকার যে বিদ্যমান। 

এছাড়াও ইমেল নাইম, কায়েস সৈয়দ, ও আবু জাফর সৈকত এর লেখায় সমৃদ্ধ হয়েছে ‘ষোলপৃষ্ঠা।’

নবীন- প্রবীন লেখীয়োদের প্রতি আহ্বান: সাহিত্য সুহৃদ মানুষের কাছে ছড়া, কবিতা, গল্প, ছোট গল্প, রম্য রচনা সহ সাহিত্য নির্ভর আপনার যেকোন লেখা পৌঁছে দিতে আমাদেরকে ই-মেইল করুন [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড