• রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বইমেলাতে সাড়া ফেলেছে তানভীর মেহেদীর উপন্যাস ‘উপসংসার’

  অধিকার ডেস্ক

০৭ মার্চ ২০২২, ১৮:৪৮
উপন্যাস উপসংসার
উপন্যাস উপসংসার (ছবি: সংগৃহীত)

শুক্রবার সন্ধ্যা। পাঞ্জাবি আর শাড়ি পরা মানুষদের আনাগোনা। ছয় তলা বিল্ডিংয়ের ডান পাশের মরিচবাতিগুলো জ্বলছে আর নিভছে। বাম পাশেরগুলো কন্টিনিউ জ্বলছে, একবারও নিভছে না। ছাদ থেকে সাউন্ডবক্সের শব্দ ভেসে আসছে। হিন্দি গানের ফাঁকে ফাঁকে বাংলা ফোক গানও বাজছে মাঝেমধ্যে। গেট দিয়ে যারা ঢুকছে- বের হচ্ছে, সবার হাসি হাসি মুখ।

তিন বিল্ডিং পর একটা চায়ের দোকান। কম পাওয়ারের বাল্ব লাগানো। কেতলিতে লিকার গরম হচ্ছে। আর আমার সিগারেট থেকে ক্রমাগত ধোঁয়া বের হচ্ছে। বিয়েবাড়ির দিকে তাকিয়ে সাত নম্বর সিগারেট প্রায় শেষ করে ফেলেছি। এতক্ষণ ধরে জমিয়ে রাখা অবাক দৃষ্টি আর কৌতূহল নিয়ে চায়ের দোকানদার সবুর জিজ্ঞাসা করলো, মামা কি কাউরে খুঁজতেছেন?

শেষ টান দিয়ে বাট ফেলে পাড়া দিয়ে নিভিয়ে বাড়িটার দিকে ধোঁয়া ভরা দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে আমি বললাম, না মামা। হারাইতেছি। উপরোক্ত বাক্যগুলি তরুণ ও সম্ভাবনাময় লেখক তানভীর মেহেদীর নতুন ‘উপসংসার’ উপন্যানের ফ্ল্যাপ থেকে নেওয়া।

তানভীর মেহেদী একজন জাহাজী। সমুদ্রেই তার জীবন। আমরা যাদের মেরিন অফিসার বা মেরিন ইঞ্জিনিয়ার বলে চিনি। সোশাল মিডিয়াতে লিখছেন অনেক বছর ধরে। সমুদ্রের গল্পের পাশাপাশি নাগরিক জীবনের গল্পও তিনি লিখছেন। লিখতে লিখতে একসময় বই হওয়া শুরু হলো। একটা দুটো করে হলো পাঁচ নম্বর উপন্যাস।

এবারের বইমেলাতে এসেছে তানভীর মেহেদীর উপন্যাস ‘উপসংসার’। পুরোপুরি নাগরিক জীবনের গল্প দিয়ে যে উপন্যাস সাজানো হয়েছে। প্রেমের উপন্যাস হতে হতে যেটা বিচ্ছেদের উপন্যাস হয়ে গেছে। উপসংসার এসেছে বইবাজার প্রকাশনী থেকে। প্রচ্ছদ করেছেন ইবেনে শামস। বইমেলার শুরু থেকেই এই বই পাওয়া যাচ্ছে বইবাজার প্রকাশনীর ২৮১ স্টলে এবং অনলাইন বুকশপগুলোতে।

বইবাজার প্রকাশনী সুত্রে জানা গেছে তানভীর মেহেদীর উপন্যাস ‘উপসংসার’ ইতিমধ্যে অমর একুশে গ্রন্থমেলায় আলো ছড়িয়েছে। তারই প্রতিফলন হিসেবে ফেসবুকসহ নানা মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে উপসংসার নিয়ে প্রসংশাবাক্য আর পজিটিভ রিভিউ।

এরই ধারাবাহিকতাই সামান্তা নামক একজন পাঠক তার ভ্লগে লিখেছেন, এই বইয়ের শুরুটা একদম মায়ায় ডোবানো। মনে হবে আবার সেই স্কুল লাইফে ফিরে যাই।এত সুন্দর করে প্রেমের সংজ্ঞা দেয়া যে পড়তে পড়তে সব গুলো সিন যেন চোখের সামনে ভাসছিলো।মায়া আর সামি না মনে হচ্ছিলো যেন এটা আমার গল্প,আমাদের গল্প,আশেপাশে থাকা হাজারো ভালোবাসার মানুষের গল্প।

আরও পড়ুন: গ্রন্থমেলায় তাজবীর সজীবের নতুন দুটি বই ‘গণমাধ্যমের ডিজিটাল সমীকরণ’ এবং ‘ময়ূখ’

অর্ধেক পড়ার পরেই শুরু বিষাদ। সেই বিষাদ যেন থামেই নি।তাও মাঝে মাঝে আশা জাগছিলো এই বুঝি বিষাদ শেষ। কিন্তু না শেষের টুইস্ট টা এমদম ই সব আশা শেষ করে দিলো।যার জন্য প্রস্তুত ছিলাম না। উপসংসার নামের অর্থ বই না পড়লে বুঝা সম্ভব না।

ওডি/আজীম

নবীন- প্রবীন লেখীয়োদের প্রতি আহ্বান: সাহিত্য সুহৃদ মানুষের কাছে ছড়া, কবিতা, গল্প, ছোট গল্প, রম্য রচনা সহ সাহিত্য নির্ভর আপনার যেকোন লেখা পৌঁছে দিতে আমাদেরকে ই-মেইল করুন [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড