• শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০, ২৭ চৈত্র ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মেলায় পি কে রায়ের প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘কবি নই’

  সাহিত্য ডেস্ক

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬:০৭
পি কে রায়ের কাব্যগ্রন্থ ‘কবি নই’
ছবি : সম্পাদিত

‘কবি নই’ পি কে রায়ের প্রথম কাব্যগ্রন্থ। গ্রন্থের নামকরণের মধ্যেই রয়েছে এক চমৎকারিত্য। তিনি নিজেকে কবি বলে দাবি করেন না, তা তিনি তার গ্রন্থের প্রথমেই লিখেছেন, ‘কিছু লিখলেই কবি হওয়া যায় বলে আমার মনে হয় না। তাই বইটির নাম দেওয়া হয়েছে কবি নই। যখন যা মনে হয়েছে, লিখেছি।’

কবি নিজেকে প্রথাবদ্ধ কবি হিসেবে জাহির করেননি। তার কবিতায় রয়েছে স্বদেশ প্রেম, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতি অকৃতিম আবেগ, আর রয়েছে প্রকৃতি ও প্রেমের এক সরল উপস্থাপনা। অন্তরের গভীর থেকে উৎসারিত পঙতিমালা দিয়ে রচিত এই কাব্যগ্রন্থটি। ভালোবাসার সরল উপস্থাপন ও তার সাথে প্রকৃতির সমন্বয় গ্রন্থটিকে দিয়েছে আলাদা মাত্রা।

‘কবি নই’ গ্রন্থটিকে যদি বিষয়ভিত্তিক পর্যায়ে ভাগ করতে যাই তবে আমরা পাবো- 
১। স্বদেশ প্রেম।
২। বঙ্গবন্ধু প্রেম।
৩। মানব-মানবী প্রেম।
৪। প্রকৃতি প্রেম।
৫। অসাম্প্রদায়িক চেতনা । 

প্রেমের বহু বিচিত্রতায় পরিপূর্ণ এই গ্রন্থটি। কখনো স্বদেশ প্রেম ও বঙ্গবন্ধু প্রেম একাকার হয়েছে, আবার কখনো প্রকৃতির সাথে মানব-মানবীর প্রেম একাকার হয়ে মিলে গেছে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর প্রতি কবির যে অকৃত্রিম প্রেম ও আবেগ তা কাব্যগ্রন্থটির বিভিন্ন কবিতায় ফুটে উঠেছে। কাব্যগ্রন্থটির শুরুই হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু, স্বাধীনতা ও বাংলাদেশ’ শিরোনামের কবিতা দিয়ে। বঙ্গবন্ধুকে তিনি বাঙালি জাতির স্বাধীনতার ‘বটবৃক্ষ’ বলে অভিহিত করেছেন। কবিতায় তিনি বঙ্গবন্ধু, বাঙালি মুক্তিযোদ্ধা ও ভারতীয় মিত্রবাহিনীর আত্মত্যাগের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছেন। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাঙালির নয় মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে বিশ্বমানচিত্রে স্থান করে নিয়েছিল ‘বাংলাদেশ’ নামে এক অসাম্প্রদায়িক দেশ।

ধর্মীয় সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে গ্রন্থটি সমসাময়িক কালের জন্য খুবই প্রাসঙ্গিক। বাংলাদেশের অসাম্প্রদায়িক মনোভাব বিনষ্টকারীদের প্রতি রয়েছে কবির তীব্র প্রতিবাদ। ‘সহজ কথা’, ‘অনুভূতি’, ‘পার্থক্য!’, ‘দৌরাত্ম্য’, ‘অমানুষ’ কবিতাগুলোতে ফুটে উঠেছে অসাম্প্রদায়িক সমাজের স্বপ্ন। তিনি গ্রন্থের একেবারে শেষ কবিতায় নিজে দেখেছেন সেই অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন  আর সেই স্বপ্নে উদ্বুদ্ধ করতে চেয়েছেন বাংলাদেশের মানুষকে। বাংলাদেশে আজও স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকাররা মাথা তুলে দাঁড়াতে চায়, সেই সব কীটদের বিরুদ্ধে তিনি লিখেছেন ‘জয় বাংলা’র মতো উদ্দীপনাময় কবিতা। ‘জয় বাংলা’ কবিতা দিয়ে তিনি বুঝিয়েছেন এখনো ‘জয় বাংলা’ ধ্বনিতে বাঙালি ধর্ম ভেদ, জাতি ভেদ ভুলে এক সুরে গেয়ে উঠে বাঙালি জাতিসত্তার জয়গান।

‘শেষের পত্র’, ‘অনুরাগ’, ‘মরিচিকা’, ‘মন ফকিরা’, ‘ভালোবাসার কষ্ট’, ‘প্রেম আর পাখি’, ‘প্রথম প্রেম’ কবিতাগুলোতে মানব-মানবীর প্রেমের বিভিন্ন অনুভূতির প্রতিফলন দেখা যায়। কবির লেখা প্রেমের কবিতাগুলোতে মিলন-বিরহের রূপ ফুটে উঠেছে প্রকৃতির বিভিন্ন রূপকতায়। প্রেম ও প্রকৃতির এই সম্মিলনে মানব-মানবী প্রেমের অনুভূতি একাকার হয়ে ধরা দিয়েছে কবির কবিতায়। কখনো তিনি কষ্টগুলোর মধ্যে পেয়েছেন কাল বৈশাখী মেঘের ছায়া আর শ্রাবণের ধারার মধ্যে খুঁজে পেয়েছেন প্রেমিকার হাসি।

কবির লেখা এই গ্রন্থটি সমসাময়িককালের সামাজিক নানান অসঙ্গতিকে তীব্রভাবে কষাঘাত করেছে। ‘অসহায় সমাজ’, ‘কাহারো স্বাধীনতা’, ‘এম.পি!’, ‘অমানুষ’ কবিতাগুলোতে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের বিচিত্র অনৈতিকতাকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়েছেন।

ইংরেজি সাহিত্যে পড়াশুনার সুবাদে কাব্য সাহিত্যে তার বিচরণ খুবই সহজাত মনে হয়েছে।  কবিতায় অলংকারের ব্যবহার প্রশংসার দাবি রাখে। প্রকৃতির রূপ বর্ণনায় তার মুন্সিয়ানা গ্রন্থটিকে আলাদা মাত্রা দান করেছে।

আলোচনার শেষে এসে বলা যায় পি. কে. রায় রচিত ‘কবি নই’ বর্তমান সময়ের প্রতিবিম্ব হিসেবে পাঠক হৃদয়ে ছুঁয়ে যেতে সক্ষম হবে। গদ্য ও পদ্য রীতির সংমিশ্রণে কবিতাগুলো সহজ, সরল সাবলীল ভাষার উপস্থাপিত হওয়ায় কবিতার রস পাঠক সহজে আস্বাদন করতে পারবে। আধুনিক সময়ের কবিতার দুর্বোধ্যতার শিকল ছিন্ন করে পাঠক মনের সরলতার কথা চিন্তা করে নিজের অকৃতিম আবেগে রচিত কবিতাগুলোর সমষ্টি কাব্যগ্রন্থটিকে সার্থকতা দান করেছে।

‘কবি নই’ প্রকাশ করেছে বর্ণ প্রকাশ। প্রচ্ছদ করেছেন সাকিল আনসারি। মূল্য ২০০ টাকা। 

ওডি/এএস

নবীন- প্রবীন লেখীয়োদের প্রতি আহ্বান: সাহিত্য সুহৃদ মানুষের কাছে ছড়া, কবিতা, গল্প, ছোট গল্প, রম্য রচনা সহ সাহিত্য নির্ভর আপনার যেকোন লেখা পৌঁছে দিতে আমাদেরকে ই-মেইল করুন [email protected]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড