• সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

যে কারণে হয় আমবাত, প্রতিকার কী?

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

১৬ মে ২০২২, ১৫:৫৫
ক্রনিক ইডিওপ্যাথিক আর্টিকেরিয়া
ক্রনিক ইডিওপ্যাথিক আর্টিকেরিয়া। (ছবি : সংগৃহীত)

ক্রনিক ইডিওপ্যাথিক আর্টিকেরিয়া বা আমবাত সাধারণত ছোট-বড় সবারই হয়ে থাকে। ত্বকে লালচে ঘামাচির মতো ফুলে ওঠা স্থানে চুলকানি ও জ্বালাপোড়া হওয়া এই রোগে বিশ্বের প্রায় ২০ শতাংশ মানুষই ভুগে থাকেন। তবে এটি ছোঁয়াচে বা বিপজ্জনক নয়। নিজেদের অজান্তেই কোনো না কোনো কারণে সমস্যাটিতে বার বার আক্রান্ত হন অনেকে।

যাদের বয়স ২০ থেকে ৪০ তাদের ক্ষেত্রে এটি অতিসাধারণ। সাধারণত ক্রনিক ইডিওপ্যাথিক আর্টিকেরিয়া ২৪ ঘণ্টার বেশি স্থায়ী হয় না। তবে পরে আবারও ত্বকে প্রদাহ সৃষ্টি করে, যা বেশ যন্ত্রণাদায়ক।

চলুন তাহলে জেনে নেই আমবাত কেন হয় ও মুক্ত থাকার উপায়...

যদিও এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা সঠিক কোনো কারণ জানেন না। তবে ইমিউন সিস্টেমের সমস্যার কারণে এটি ঘটে বলে জানা যায়। এছাড়া থাইরয়েড, হরমোনের সমস্যা বা ক্যানসার আছে যাদের তারা দীর্ঘদিন এ সমস্যায় ভুগতে পারেন। এমনকি জীবনধারায় অনিয়ম কিংবা কিছু কারণেও এ সমস্যা বাড়তে পারে। যেমন- মদ্যপান, টাইট পোশাক পরা, অ্যাসপিরিন ও আইবুপ্রোফেনের মতো নন-স্টেরয়েডাল অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ড্রাগ গ্রহণ, অতিরিক্ত ব্যায়াম, ঠান্ডা বা অতিরিক্ত তাপ ইত্যাদি কারণে আমবাত বাড়তে পারে।

দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে এই রোগের কোনো প্রতিকার নেই, তবে ওষুধ ও জীবনধারা পরিবর্তনের মাধ্যমে আপনি আমবাত থেকে মুক্ত থাকতে পারবেন। এর পাশাপাশি ঘরোয়া কয়েকটি টোটকা মেনে চলতে পারেন।

১. আমবাত দেখা দিলে আক্রান্ত স্থানে ঠান্ডা সেঁক নিতে পারেন। এটি চুলকানি থেকে পরিত্রাণ পেতে সাহায্য করবে ও প্রদাহ কমাবে। আপনি দিনে একাধিকবারও ঠান্ডা সেঁক নিতে পারবেন।

২. ওটমিল ও বেকিং সোডা মেশানো পানি দিয়ে গোসল করলে স্বস্তি পাবেন। এতে আমবাতের চুলকানি ও জ্বালাভাব কমতে পারে।

৩. অ্যালোভেরার রস আমবাত দূর করতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে। এজন্য আক্রান্ত স্থানে অ্যালোভেরা লাগাতে হবে। তবে তার আগে পরীক্ষা করে নিন অ্যালোভেরা আপনার ত্বকের জন্য প্রযোজ্য কি না।

৪. পারফিউম, সুগন্ধযুক্ত সাবান বা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের আগে দুবার ভাবুন। এছাড়া সূর্যের আলোয় থাকার সময় সতর্ক থাকুন।

৫. আমবাত এড়াতে অত্যধিক ঠান্ডা ও গরম পরিবেশ এড়িয়ে চলুন। এর পাশাপাশি ঢিলেঢালা ও আরামদায়ক পোশাক পরা উচিত।

ওডি/জেআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড