• শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২২ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ঘূর্ণিঝড়ে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার প্রস্তুতি

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

০৯ নভেম্বর ২০১৯, ১৭:৪৬
ঘূর্ণিঝড়
ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’ আশ্রায়কেন্দ্রে যাওয়ার প্রস্তুতি (ছবি : দৈনিক অধিকার)

বাংলাদেশের উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল। উপকূলের অনেকটা কাছাকাছি চলে এসেছে ঘূর্ণিঝড়টি। শনিবার সন্ধ্যা বা রাত নাগাদ ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে। ইতোমধ্যে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলকে মোকাবিলা করতে আশ্রয়কেন্দ্র তৈরি রাখাসহ বিভিন্ন প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানিয়েছে সরকার। এরই মধ্যে সরকারি দপ্তরগুলো সম্ভাব্য দুর্যোগ মোকাবিলায় জরুরি তথ্য আদান-প্রদান এবং সহায়তার জন্য কন্ট্রোলরুম খুলেছে।

ঘূর্ণিঝড়ের আগে, ঘূর্ণিঝড়ের সময় ও ঘূর্ণিঝড়ের পরে দুর্যোগ মোকাবিলায় এই তিন পর্যায়ে প্রস্তুতি নিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর। খাদ্য, মেডিকেল টিম, যানবাহন সব প্রস্তুত আছে। এই দুর্যোগ মোকাবিলা কাজের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জেলা প্রশাসকরা।

এ দিকে, যারা দুর্যোগের আশঙ্কার মধ্যে থাকেন এদের মধ্যে একটি অংশ বিভিন্ন কারণে সাইক্লোন সেন্টারে যেতে চান না। এক্ষেত্রে তাদের পরিবারের অন্য সদস্যদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়া উচিত।

বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকাগুলোতে সাড়ে ৩ হাজারেরও বেশি আশ্রয়কেন্দ্র আছে৷ এছাড়াও উপকূলীয় এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের সময় আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার প্রস্তুতি :

• উপকূলীয় এলাকার বাসিন্দাদের আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে বয়স্ক, প্রতিবন্ধী, শিশু ও গর্ভবতী নারীদের আগে পাঠাতে হবে।

•  ঘূর্ণিঝড়ের আগে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার সময় দেয়াশলাই, মোমবাতি, টর্চ লাইট এবং বিশুদ্ধ পানি ও শুকনো খাবার সঙ্গে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

•  ঘূর্ণিঝড় উপকূলীয় এলাকা দিয়ে অতিক্রম করার সময় কিছুটা শান্ত হয়ে আসে। সেই সময় ঝড় শেষ হয়ে গেছে ভেবে আশ্রয়কেন্দ্র ছেড়ে যাওয়া উচিত হবে না।

•  ঘূর্ণিঝড় থেমে যাওয়ার আগ পর্যন্ত আশ্রয়কেন্দ্র ত্যাগ করা উচিত নয়।

•  ঘূর্ণিঝড়ের সময় প্রচুর বৃষ্টি হয়। অতি বৃষ্টির কারণে পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধস, পাহাড়ি ঢলের সৃষ্টি হতে পারে। তাই পাহাড়ি এলাকায় বেশ কয়েকটি সতর্কতা বজায় রাখতে হবে।

•  মুড়ি, খই, চিড়া ও শুকনো জাতীয় খাবার সঙ্গে রাখতে হবে।

ওডি/টিএএফ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড