• বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

স্বামী সন্তানের ভালোবাসায় মোড়ানো জুহির ‘আয়াত কালেকশন হাউজ’

১৫ জুলাই ২০১৯, ১০:৫০
সাবিনা ইয়াসমিন জুহি
আয়াত কালেকশন হাউজের কর্ণধার 'সাবিনা ইয়াসমিন জুহি'

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলেও প্রত্যেকটি মানুষই নিজের একটি পরিচয় দাঁড় করাতে চায়। হোক না ছোট কিছু, তবুও একান্তই নিজের কিছু থাকুক। এমন ভাবনা থেকেই সাধারণত মানুষ ফ্রেমের বাইরে বেরিয়ে আসেন। হয়ে ওঠেন চাকরিজীবী, ব্যবসায়ী কিংবা উদ্যোক্তা। 

একজন সাধারণ গৃহিণী সাবিনা ইয়াসমিন জুহি। নিজের গৃহিণী পরিচয়েই নিজের গণ্ডিকে সীমাবদ্ধ রাখতে চাননি তিনি। বিয়ের পর নিজের শিক্ষা গ্রহণের পথ চলাও থামিয়ে দেননি। এইতো এই বছর শেষ করলেন এমবিএ। ঘর-সংসারের পাশাপাশি সামলে যাচ্ছেন নিজের অনলাইন বুটিক শপ ‘আয়াত কালেকশন হাউজ’। গৃহিণী পরিচয়ের বাইরে নিজের উদ্যোক্তা পরিচয় সৃষ্টি করা এই নারীর পথচলা নিয়ে গল্প হয় তার সাথে। 

ব্যবসায় আসা ২০১৬ সালের কথা। কন্যা সন্তানের জননী জুহির সময় কাটাত পরিবার আর মেয়েকে নিয়ে। একসময় নিজের একটা পরিচয়ের অভাববোধ করেন তিনি। ভাবেন এমন কিছু করা যায় কিনা যাতে সময়ও কাটবে আবার নিজের একটা পরিচয়ও হবে। পুরোনো শখ বুটিক নিয়ে কাজ করাকেই এ ক্ষেত্রে বেছে নিলেন তিনি। জুলাইয়ের শেষে এসে নেমে পড়লেন ব্যবসা জগতে। 

জুহি

আয়াত কালেকশন হাউজের কিছু পণ্য 

জুহি বলেন, ‘সে সময় কারচুপির কাজ সবাই খুব পছন্দ করত। নিজেরও ভালোলাগা কাজ করত এদিকটাতে। পরিচিত কিছু মানুষের কাছ থেকে পাওয়া অর্ডার নিয়ে আল্লাহ্‌র নামে পেজ খুলি। প্রথম দিনেই একজন অপরিচিত আপু ড্রেস অর্ডার করেন। সেই পোশাক হাতে পেয়ে নিজের পছন্দ হওয়ার অনুভূতি জানান। সেই অনুভূতি ছুঁয়ে যায় আমাকেও। এগিয়ে যাওয়ার পথে প্রেরণা দিয়েছিল সেই ভালো লাগাটুকু।’

দশম শ্রেণিতে পড়াকালীন বিয়ে হয়ে যায় জুহির। বিয়ের পরে মাধ্যমিক পরীক্ষা দেন তিনি। শেষ করেন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠও। আর এই পুরো যাত্রায় তার সঙ্গী হয়ে ছিলেন স্বামী। 

জুহি বলেন, ‘সত্যি বলতে কি, সংসার সামলানোর পাশাপাশি পড়াশোনা করার ক্ষেত্রে আমার স্বামী সবসময় সাপোর্ট দিয়েছে। তার জন্যই আমি পড়াশোনা শেষ করতে পেরেছি। আমার ছেলে এবার ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে। আমার কাজে সেও অনেক সাহায্য করে। স্বামী আর ছেলের সাহায্য ছাড়া হয়তো ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারতাম না। 

আরেকজন হলো আমার ছোট বোন। এই তিনজন মানুষের সাহায্যেই আমার পথ চলা। এরাই আমার শক্তি।’

জুহি

আয়াত কালেকশন হাউজের কিছু পণ্য 

মা হওয়ার পর ব্যবসায়ী হয়েছেন জুহি। আর তাই নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িয়ে রাখতে চেয়েছেন মেয়ে আয়াতকে। তাইতো তার অনলাইন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম দিয়েছেন, ‘আয়াত কালেকশন হাউজ’। ব্লক, বাটিক, স্ক্রিন প্রিন্ট, থ্রিপিস, শাড়ি, তাঁতের পোশাক এসব দিয়ে সাজানো জুহির ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। রয়েছে ইন্ডিয়ান ক্যাটালগ ড্রেস ও পাকিস্তানি পোশাকও। 

নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে জুহি বলেন, ‘ক্রেতা যখন পণ্য হাতে পেয়ে অনেক খুশি হয় তখন খুব ভালো লাগে। কিছু আপু আছেন যারা ক্রেতা ছিলেন কিন্তু এখন আমার খুব কাছের মানুষ হয়ে গিয়েছেন। এমনকি তারা অনেকেই কিছু কেনার আগে আমার সাজেশন চায়। আবার দেশে বাইরে থাকা আপুরা যখন আস্থা নিয়ে কিছু অর্ডার করেন এবং পণ্য পেয়ে খুশি হন তখনো খুব ভালো লাগে।’

মেয়ের জন্মের পর শুরু করা ব্যবসাকেও নিজের সন্তান ভাবেন জুহি। এই সন্তান একদিন অনেক বড় হবে এমনটাই কামনা তার। উদ্যোক্তা এই নারীর জন্য ‘দৈনিক অধিকার’-এর পক্ষ থেকে রইল শুভেচ্ছা। 

‘আয়াত কালেকশন হাউজ’ এর ফেসবুক পেজের লিঙ্ক- AyaaT collection House

ওডি/এনএম

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড