• বুধবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৫ মাঘ ১৪২৬  |   ১৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বুলেট জার্নাল : দৈনিক ১০ মিনিট ব্যয়ে গুছিয়ে ফেলুন জীবন

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

০৮ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৪৫
বুলেট জার্নালিং
ছবি : সংগৃহীত

বুলেট জার্নালিং আমাদের দেশে একদমই পরিচিত না। একেবারেই নতুন একটি ধারণা বলা চলে। বিশ্বজুড়ে কিন্তু এটি বেশ জনপ্রিয় একটি ব্যাপার। ইন্সটাগ্রাম, ইউটিউবেও বেশ জনপ্রিয় এটি। অনেকে আবার এই বুলেট জার্নালিং ব্যাপারটিতে আসক্ত বলা চলে। 

এটি একই সাথে ক্রিয়েটিভ মাইন্ড, ডায়েরি লেখা ও থেরাপি হিসেবে কাজ করে। বিদেশে যারা অনেক একাকিত্বের মাঝে থাকেন কিংবা কোনো আসক্তিতে ভোগেন তাদেরকে নোটবুক থেরাপি ফলো করতে বলা হয়। ৮০ শতাংশ আর্টিস্ট বুলেট জার্নাল করে। সাধারণ মানুষও প্রচুর করে।

বুলেট জার্নাল কী?

নামেই বুঝা যাচ্ছে এটা জার্নাল ও বুলেট মানে খুব দ্রুত যেন করা যায়। শুরুতেই আপনার মাসের নাম বড় করে লিখে একটা পেজ রাখুন। এখন এই এক মাসে আপনি কী কী করবেন, করতে চাচ্ছেন তার টার্গেট নিয়ে বাকি কয়েক পেজ সাজিয়ে ফেলবেন। এগুলোকে ট্র্যাকার বলে।

যেমন- 

১. স্লিপ ট্র্যাকার- কতক্ষণ ঘুমাচ্ছেন (চাইলে সাথে কেউ স্বপ্নও লিখে রাখতে পারেন)
২. হ্যাবিট ট্র্যাকার- এক মাসে আপনি চিন্তা করলেন প্রতিদিন ওষুধ খাবেন, এক ঘণ্টা হাঁটবেন। এগুলো লিখে পাশে তারিখ লিখে রাখলেন টিক ও ক্রস দেয়ার জন্য।
৩. মুড ট্র্যাকার- একটা ছবি, নিদেন পক্ষে এখানেও একটা চার্ট করলেন। প্রতিদিনের মুডের জন্য। 
৪. ব্রেন ডাম্প- প্রতিদিন কত কিছু মনে হয়। বলা যায় না কাউকেই। এখানে লিখুন। অন্তত একটি শব্দ। 

৫. বুক ট্র্যাকার- কী কী বই পড়ছেন
৬. প্রতিদিনের একটা ঘর- সেখানে প্রতিদিনের উল্লেখ্যযোগ্য কাজ
৭. এক্সপেন্স ট্র্যাকার- প্রতিদিনের খরচের তালিকা

এরবাইরেও আপনি ইচ্ছেমতো সাজাতে পারেন আপনার কাজ বুঝে। যেমন কারো বিজনেস ট্র্যাকার থাকে, কারও হেলথ ট্র্যাকার আছে, কারও অ্যাংগার ম্যানেজ ট্র্যাকার আছে। নিজের ইচ্ছেমতো কোটেশন লিখতে পারেন। পেজ সাজাতে পারেন ছবি, খবর কিংবা আপনার লেখা ইত্যাদি দিয়ে। 

বুলেট জার্নাল করলে লাভ কী? 

মাস শেষে সারামাসের রিভিউ দেখলে এক নজরে বুঝা যাবে আপনার সারামাসের উন্নতি। পরের মাসে আরও ভালো করার চেষ্টা কাজ করবে নিজের মধ্যে। এভাবে আপনি কমিয়ে ফেলতে পারেন অতিরিক্ত কেনাকাটার অভ্যাস, ধূমপানের অভ্যাস কিংবা অন্য কোনো কাজের পরিমাণ। 

বুলেট জার্নাল কি সময় নষ্ট না?

না। সবসময়ই দেখবেন কিছু সময় আমাদের হাতে থাকেই নিজের জন্য। ১০-২০ মিনিট কিছু না তেমন। আপনি অনেক বিস্তারিত না লিখে একদম সাধারণ এক লাইন লিখতে পারেন। 

বুলেট জার্নালিং করতেই হবে এমন কোনো কথা নেই। তবে দিনে ১০ মিনিট এমন একটি কাজে ব্যয় করে আপনার ক্ষতি তো হবেই না বরং লাভ হবে অনেক বেশি। 

নিজের জীবনকে সুন্দরভাবে গুছিয়ে নিতে কে না চান? আপনিও যদি তাদের দলে হয়ে থাকেন তবে আজ থেকেই নেমে পড়ুন নোটবুক, পেন্সিল আর রঙিন কলম নিয়ে। প্রতিমাসে নিজের করা কাজগুলো বিচার করতে পারবেন নিজেই। 

লেখক : তানজিলা অমি 

ওডি/এনএম 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড