• বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিয়ে করছেন? এসব ছবি ভুলেও ফেসবুকে শেয়ার করবেন না!

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৪:১৩
বিয়ে
ছবি : প্রতীকী

কদিন বাদেই দিয়ার বিয়ে। এরই মধ্যে অবশ্য তা পুরো ফেসবুকবাসীই জেনে গিয়েছে। হবে নাই বা কেন? হবু স্বামীর সঙ্গে দেখা, গয়না কিনতে যাওয়া, ডালা সাজানো, বিয়ের কার্ড— সব কিছুর ছবিই দিচ্ছে ফেসবুক প্রোফাইলে। বর্তমানে ফেসবুক ছাড়া আমরা যেন অচল। নিজের সব সময়কার ছবি ফেসবুকে না দিলে যেন আর চলেই না। 

আর সেটা যদি হয় জীবনের বিশেষ দিন তো কথাই নেই। বিয়ে, জন্মদিনসহ জীবনের বিশেষ দিনগুলোর ছবি ফেসবুকে শেয়ার করেন অনেকেই। তবে কিছু ছবি রয়েছে  যা শেয়ার করা মোটেও উচিত নয়। এতে ব্যক্তিগত জীবনে বিপদে পড়তে পারেন আপনি। চলুন আরেকটু বিস্তারিত আলোচনা করা যাক- 

বিশেষ মুহূর্তের ছবি- 

বিয়ের আগে হবু স্বামী বা স্ত্রীর সঙ্গে কফি শপে যেতে পারেন। একসাথে দুজন ডিনারও করতে পারেন। কিংবা দুজনে ঘুরতে পারেন শপিং মলে। কিন্তু এই সময়গুলোর ছবি ভার্চুয়াল জগতে টেনে আনবেন না। এসব ব্যক্তিগত মুহূর্তের ছবির কারণেই সম্পর্কে ঝামেলার সৃষ্টি হতে পারে। 

বিয়ের কার্ড- 

একটা সময় বিয়ের কার্ডের বেশ কদর থাকলে এখন আর আগের আকর্ষণ নেই। বন্ধু বান্ধব বা কলিগদের দাওয়াত দেওয়ার কাজ অনেকে হোয়াটসঅ্যাপ কিংবা ম্যাসেঞ্জারেই সেরে নেন। আবার অনেকে ফেসবুকের পাতায় নিজের বিয়ের কার্ড শেয়ার করেন। এই কাজটি একদমই ঠিক নয়। নিশ্চয়ই বন্ধু তালিকায় থাকা সবাইকে আপনি বিয়ের দাওয়াত দেবেন না। সুতরাং সবার সামনে কার্ডের ছবি দেওয়া একদম উচিত হবে না। 

বিয়ের শপিং- 

বিয়ে উপলক্ষে কেনাকাটা হবে এটিই স্বাভাবিক, এতে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু কোন শাড়ি কত টাকা দিয়ে কিনলেন, কোন গয়নার দাম কত নিলো এসব ফেসবুকে শেয়ার না করাই ভালো। এতে মানুষ আপনার সম্পর্কে ভুল ধারণা পোষণ করবে। 

বিয়ের খুঁটিনাটি- 

কোথায় বিয়ে হচ্ছে, বিয়ের দিনের মেন্যুতে কী কী খাবার থাকছে— এসব তথ্য কখনো মিডিয়ায় শেয়ার করবেন না। এতে করে বিয়ে নিয়ে পরিচিতরা আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। 

অপেক্ষার দিনগুলো- 

বিয়ের দিন যত ঘনিয়ে আসে ততই বাড়তে থাকে উত্তেজনা।  আর এই অপেক্ষার দিনগুলো গুণে তা ফেসবুকে শেয়ার করেন অনেকেই। এই কাজটি করবেন না। কারণ, আপনার বিয়ের দিন তারিখ নিয়ে আপনি উত্তেজিত হলেও, ফেসবুক বন্ধুরা এই বিষয়ে আগ্রহী নন। 

বিয়ের ছবি- 

বিয়ের প্রতিটি মুহূর্ত ফ্রেমবন্দি করার জন্য ক্যামেরা তো রয়েছেই, সেসঙ্গে থাকে স্মার্টফোনও। কিন্তু বিয়ের সব ছবিই ফেসবুকে শেয়ার করা থেকে বিরত থাকুন। কিছু মুহূর্ত থাকুক না একান্তই ব্যক্তিগত। 

হানিমুনের ছবি- 

বিয়ের পর মধুচন্দ্রিমায় যান সবাই। সেখানকার ব্যক্তিগত ছবিগুলো ফেসবুকে পোস্ট করবেন না। কিছু সময় নিজেদের জন্যই থাকুক। 

বিয়ে একজন মানুষের জীবনে একটি বিশেষ ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই সম্পর্কিত ছবি ফেসবুকে শেয়ারে সতর্ক থাকুন। 

ওডি/এনএম 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড