• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

স্বাস্থ্যকর যে খাবারগুলো আপনাকে ঠেলে দিতে পারে মৃত্যুর দিকে

  সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি

১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৩:৪০
খাদ্য
ছবি : সম্পাদিত

স্বাস্থ্যের জন্য মধু বেশ উপকারী একটি খাবার। আবার একই কথা মাশরুমের বেলায়ও খাটে। স্বাস্থ্যকর খাবার হিসেবেই এই খাবারগুলোকে খেয়ে থাকেন সবাই। কিন্তু আপনার ছোট্ট কিছু ভুলেই এই খাবারগুলো জীবনের জন্য হয়ে উঠতে পারে ঝুঁকিপূর্ণ। চলুন, স্বাস্থ্যকর অথচ সঠিকভাবে না খেলে ভয়াবহ প্রভাব ফেলতে পারে এমন কিছু খাবারের কথা জেনে নেওয়া যাক- 

মাংস ও সামুদ্রিক মাছ- 

সাধারণত আমরা প্রায়ই গরু বা মুরগীর মাংস খেয়ে থাকি। ইদানিং সামুদ্রিক মাছগুলোও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তবে এই খাবারগুলোই খুব বেশি আঁচে রান্না করলে আপনার শরীরের জন্য অসম্ভব ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে। চেষ্টা করুন মাংস ও সামুদ্রিক মাছ রান্না করার সসময় আঁচ কমিয়ে রাখতে।

মধু-

মধু খেতে মিষ্টি এবং স্বাস্থ্যকর হলেও প্রাথমিক অবস্থায় মধুতে অনেক বেশি পরিমাণে বিষাক্ত উপাদান থাকে। তাই মধুকে খাওয়ার আগে পাস্তুরিত করা হয়। অপাস্তুরিত মধু এক টেবিল চামচ খেলে আপনার মধ্যে মাথাব্যথা, বমিভাব, মাথা ঘোরা ইত্যাদি সমস্যাগুলো দেখা দিতে পারে। 

ব্ল্যাক বেরি-

ব্ল্যাক বেরি নিশ্চয় পছন্দের? এটি মোটেই ক্ষতিকারক নয়। তবে এই জামের বীজ এবং আঁটি অসম্ভব ক্ষতিকর। এতে থাকে গ্লাইকোসাইড নামক এক রকমের উপাদান, যেটি দিয়ে সহজেই সায়ানাইড তৈরি করা যায়।  ব্ল্যাক বেরি খাওয়ার আগে তাই ভালো করে পরিষ্কার করে নিন এবং সতর্কতার সাথে খান।

আলু- 

কখনো অনেকদিনের জন্য আলুকে ঘরের একটা কোণায় রেখে দিয়েছেন? একটা সময় কিন্তু এই আলুর অঙ্কুরোদগম হয়। এবং ঠিক তখনই এটি আমাদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর হয়ে পড়ে। চারা উঠতে শুরু করেছে এমন আলু একটি খেলেই আপনার পেটের সমস্যা, হজমে সমস্যা এবং ডায়রিয়ার মতো ব্যাপারগুলো হতে পারে। তাই বিষাক্ত এই খাবারটি খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। 

কাজু বাদাম-

সরাসরি কাজু বাদাম খেলে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়তে পারেন আপনি। কাজু বাদামে থাকে পয়জন আইভি। আপনি যদি অ্যালার্জিক হন তাহলে তো কোন কথাই নেই। অসম্ভব সমস্যায় ফেলতে পারে আপনাকে এই একটি খাবার। তবে সেটা অবশ্যই কাজু বাদাম সরাসরি খেলে। দোকানে যে কাজু বাদাম আপনি কিনে থাকেন সেটি কিন্তু অনেকটা লম্বা প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে পার হয়ে তারপর তৈরি হয়। ফলে এই প্রক্রিয়াতেই বাদামের বিষাক্ততাকে সরিয়ে দেওয়া হয়। 

আমন্ড-

আমন্ড বাদাম খেতে ভালোবাসি আমরা সবাই। কিন্তু এই আমন্ড আবার দুই রকমের হয়ে থাকে। একটি মিষ্টি, আরেকটি একটু তিতকুটে স্বাদের। একটু তিতে স্বাদের আমন্ডে অনেক বেশি হাইড্রোজেন সায়ানাইড থাকে। তাই এটি যদি আপনি ৫-১০ টি খেয়ে থাকেন তাহলে শারীরিক নানা সমস্যা শুরু হয়ে যায়। বড়দের ক্ষেত্রে শারীরিক সমস্যা থামিয়ে দেওয়া সম্ভব হলেও শিশুদের জন্য এটি ভয়াবহ রকমের ক্ষতিকর ফলাফল নিয়ে আসতে পারে।

রুটি-

সকালের নাশতায় আমরা অনেকেই পাউরুটি খেয়ে থাকি। কিন্তু দোকান থেকে কিনে আনা এই সাদা পাউরুটি কিন্তু মোটেও স্বাস্থ্যকর নয়। এতে এমন অনেক উপাদান মেশানো হয় যেগুলো স্থুলতাসহ অন্যান্য সমস্যা তৈরি করতে পারে। ফলে হৃদপিণ্ডের সমস্যা বেড়ে যায় অনেকগুণ বেশি।

দুধ-

দুধে প্রোটিন আছে, ভিটামিন আছে, নানারকম খনিজ উপাদানও আছে। তবে এতকিছুর পরেও দুধ আমাদের জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠতে পারে। দুধে আছে আঠেরোস্কেলেরোসিস এবং কার্ডিওভাসকুলার রোগ তৈরি করতে পারে এমন উপাদান। তাই, দুধ পান করলেও সেটা সীমিত রাখার চেষ্টা করুন।

খাবার খেতে চান এবং সুস্থ থাকতে চান? ওপরের সবগুলো খাবারই কিন্তু স্বাস্থ্যকর। পরিবর্তনটা তৈরি হয় খাবার খাওয়ার ধরণের উপরে ভিত্তি করে। আপনি যদি খানিকটা সতর্ক থেকে, স্বাস্থ্যকর উপায়ে খাবার খান, তাহলে এমন কোন সমস্যা তৈরিই হবে না। তাই স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার সময়েও সতর্ক থাকুন সবসময়!

সূত্র- ব্রাইটসাইড

ওডি/এনএম

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড