• বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ১৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

পায়ে দুর্গন্ধ? আপনার করণীয়

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:০৮
দুর্গন্ধ
ছবি : প্রতীকী

একটি বেশ বিব্রতকর সমস্যা হলো পায়ে দুর্গন্ধ হওয়া। অনেকসময় জুতা খোলার পর এ গন্ধ এতটাই ভয়ানক হয় যে আশেপাশের মানুষও বিরক্তি প্রকাশ করেন। পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার পেছনে দায়ী অতিরিক্ত ঘাম আর পা অপরিষ্কার থাকা। 

কেন হয় দুর্গন্ধ? 

ঘামে ভেজা স্যাঁতস্যাঁতে অবস্থায় ব্যাকটেরিয়া খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। আর তাই সময়ের সঙ্গে দুর্গন্ধও বাড়তে থাকে। অনেকে মোজা ছাড়াই কনভার্স বা স্নিকার পরেন। এতে জুতা ঘামে ভিজে নোংরা হয়ে যায় আর তা থেকে গন্ধ ছড়ায়। 

অনেকে সিনথেটিক মোজা ব্যবহার করেন। এই মোজার ভেতর দিয়ে বাতাস সহজে চলাচল করতে পারে না। আবার ঘাম শোষণেও এটি অকার্যকর। আর তাই দ্রুত দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। কৃত্রিম চামড়ার জুতা পরলেও দুর্গন্ধের প্রবণতা বাড়ে। এসবের পাশাপাশি পায়ের অযত্ন আর আলস্যের কারণেও পায়ে নানা রোগ হয় ও দুর্গন্ধ ছড়ায়। 

দুর্গন্ধ এড়াতে যা করবেন- 

● একই জুতা প্রতিদিন পরেন? এই অভ্যাস বদলান। প্রতিদিন জুতা বদলে পরুন। ঘরে ফিরে বদ্ধ জায়গায় জুতা রাখবেন না। আলো বাতাস চলাচল করে এমন জায়গায় জুতা রাখুন। 

● পা দুর্গন্ধমুক্ত রাখতে চাইলে অবশ্যই তা পরিষ্কার রাখতে হবে। নিয়মিত অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান দিয়ে পা পরিষ্কার করুন। 

● দীর্ঘ সময় জুতা পরে থাকলে বেশি দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। তাই মাঝেমধ্যে জুতা খুলে পায়ে বাতাস লাগাতে চেষ্টা করুন। এতে দুর্গন্ধ কমবে। 

● হালকা গরম পানিতে পুদিনা পাতা আর বেকিং সোডা মিশিয়ে পা ভিজিয়ে রাখুন। এতে দুর্গন্ধ কমে যাবে অনেকটা। 

● প্রতিদিন পরিষ্কার সুতির মোজা ব্যবহার করুন। মাঝেমধ্যে রোদে জুতা রাখুন। তাতেও দুর্গন্ধ দূর হবে। 

● পায়ে মৃত কোষ জন্মানোর কারণে দুর্গন্ধের জন্ম হয়। সপ্তাহে অন্তত দুই দিন হালকা গরম পানিতে পা ভিজিয়ে স্ক্রাব করুন। এতে পা থেকে মৃত কোষ দূর হবে, সেসঙ্গে কমবে দুর্গন্ধ। 

● কখনো ভেজা পায়ে জুতা পরতে যাবেন না, এতে দুর্গন্ধ বেড়ে যায়। 

নিজে একটু সচেতন থাকলে আর কিছু ছোটখাটো দিক খেয়াল রাখলেই এড়ানো যায় পায়ের দুর্গন্ধ। 

ওডি/এনএম 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড