• শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯, ৯ চৈত্র ১৪২৫  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

নিয়মিত চুল আঁচড়াবেন যে কারণে

  অধিকার ডেস্ক    ১৪ মার্চ ২০১৯, ০৯:১১

চুল আঁচড়ানো
ছবি : সংগৃহীত

অনেকে মনে করেন চুল আঁচড়ালে ভেঙে যায় কিংবা চুলের ক্ষতি হয়। আসলেই কি তাই? নিয়মিত চুল না আঁচড়ালেই বরং চুলের ক্ষতি হয়। চুল পড়ার হার বৃদ্ধি পায়। এমনকি দেখা দিতে পারে টাক সমস্যা। চুল আঁচড়ালে মাথার ত্বকের রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। 

কেন নিয়মিত চুল আঁচড়ানো উচিত? চলুন জেনে নেওয়া যাক- 

চুল পরিষ্কার করতে- 

ধুলোবালি আর নোংরা পরিবেশ থেকে বাঁচতে অনেকেই খুব দামি শ্যাম্পু ব্যবহার করে থাকেন। তবে ভুলে যান যে চুল পরিষ্কার রাখার জন্য চুল আঁচড়ানো বেশ গুরুত্বপূর্ণ। পরিবেশে থাকা বিভিন্ন ক্ষতিকর উপাদানের হাত থেকে চুলকে রক্ষা করতে নিয়মিত চুল আঁচড়ানোর অভ্যাস করতে হবে। 

মাথার ত্বকে জমা এসিডের স্তর দূর করতে- 

আমাদের মাথার ত্বকে নিয়মিত ইউরিক এসিডসহ বিভিন্ন এসিড জমে। এই এসিডের স্তরকে পরিষ্কার না করলে মাথার ত্বকে নানা ধরনের রোগ দেখা যায়। এক্ষেত্রে চুল আঁচড়ানো দারুণ কাজ করে। মূলত নিয়মিত চুল আঁচড়ালে স্ক্যাল্পের ওপর জমা এসিডের স্তর সরে যায়। ফলে চুল ও স্ক্যাল্প উভয়েরই উন্নতি ঘটে। 

মাথার ত্বকে অক্সিজেনসমৃদ্ধ রক্তের প্রবাহ বাড়াতে- 

নিয়মিত চুল আঁচড়ালে মাথার ত্বকে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়। এর ফলে অক্সিজেনসমৃদ্ধ রক্ত ও একাধিক পুষ্টিকর উপাদান চুলের গোড়ায় পৌঁছে এবং চুলের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়। সেসঙ্গে চুল পড়ার হারও কমিয়ে দেয়। 

চুলের জেল্লা বাড়াতে- 

নিয়মিত আঁচড়ানোর ফলে চুল হয়ে ওঠে শক্তপোক্ত ও প্রানোচ্ছল। এতে চুল প্রাণ ফিরে পায়। তাই আপনি যদি চুলকে প্রাণবন্ত রাখতে চান তবে চুল আঁচড়ানোর বিকল্প কিছু নেই। 

মনে রাখবেন- 

চুল আঁচড়ানোর উপকারিতা থাকলেও সঠিক নিয়মে চুল না আঁচড়ালে তা ক্ষতির কারণও হতে পারে। ভুল নিয়মে চুল আঁচড়ালে চুলের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। চুল আঁচড়ানোর ক্ষেত্রে যে নিয়মগুলো মানবেন- 

গোসলের পর কখনই ভেজা চুল আঁচড়াবেন না। এসময় চুলের গোঁড়া খুব দুর্বল অবস্থায় থাকে। ভেজা চুল আঁচড়ালে চুল পড়ার হার বেড়ে যায়। 

নিয়মিত চুল আঁচড়ানো ভালো, তবে তা অতিরিক্ত যেন না হয়। বারবার চুল আঁচড়ালে চুলের উপকার তো হয়ই না বরং ক্ষতি হয়। এমনটা করলে চুলে চুলে ঘর্ষণ বেড়ে যায় এবং চুল খুব দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। 
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড