• সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩১ °সে
  • বেটা ভার্সন

সুস্থ থাকুন, বজায় রাখুন কুরবানির পরিচ্ছন্নতা

  লাইফস্টাইল ডেস্ক

১০ আগস্ট ২০১৯, ১৫:১৬
পরিচ্ছন্ন
কুরবানির সময় নজর রাখতে হবে পরিচ্ছন্নতায়

বছর ঘুরে আবার এলো ঈদ উল আযহা। মুসলিমপ্রাণ মানুষ আল্লাহর নামে এ দিন পশু কুরবানি দেবেন। পশু কুরবানির পর মাংস কাটা থেকে শুরু করে আনুষঙ্গিক আরও নানা কাজে সারাদিন ব্যস্ত থাকবেন সবাই। আর এ সময়েই অসাবধানতায় পরিচ্ছন্নতার বিষয়ে হয়ে যেতে পারেন বেখেয়ালি। সারাদেশে বর্তমানে প্রকোপ চলছে ডেঙ্গুর। তাই নিজের পরিচ্ছন্নতার পাশাপাশি এ সময় পরিষ্কার রাখতে হবে আশেপাশের এলাকাও। পশু কোরবানির কারণে এলাকায় যেন আবর্জনা না জমে সেদিকেও লক্ষ্য রাখা জরুরি।

ঈদের একদিন বাকি রাখতেই জেনে নিন এ বিষয়ে কিছু পরামর্শ: 

বজায় থাকুক পরিচ্ছন্নতা 

মাংস ভাগ করার সময় শরীর, কাপড় বা মেঝেতে লেগে যেতে পারে রক্তের দাগ। বেশিক্ষণ পর্যন্ত যেন এ দাগ না লেগে থাকে সে বিষয়ে নিশ্চিত হোন। কারণ দীর্ঘ সময় শরীরে রক্ত লেগে থাকলে ত্বকে চুলকানি বা এলার্জির সমস্যা হতে পারে। সম্ভব হলে গ্লাভস ব্যবহার করতে পারেন। কাজ শেষে অবশ্যই সাবান দিয়ে ভালোভাবে হাত ধুয়ে নিতে হবে। হাতে যদি মাংসের গন্ধ লেগে থাকে তবে লেবুর রস দিয়ে হাত মুছে নিয়ে ধুয়ে ফেলুন। গন্ধ দূর হবে। মেঝে থেকে রক্তের দাগ দূর করতে গরম পানি, ব্লিচিং পাউডার বা জীবাণুনাশক ব্যবহার করতে হবে। 

আশেপাশের এলাকা পরিষ্কার 

মাংস কাটার কাজ শেষ হলে আশেপাশে যেন রক্ত মেশা পানি জমে না থাকে সে বিষয়ে সতর্ক হতে হবে। কাজ শেষে পশুর চামড়া, নাড়িভুড়ি যত দ্রুত সম্ভব সরিয়ে ফেলতে হবে। অবশ্যই নিজ নিজ এলাকা পরিষ্কারসহ প্রতিবেশি সবাইকে এ বিষয়ে সচেতন করতে হবে। 

আরও পড়ুন: ফ্রিজ ছাড়াই সংরক্ষণ করুন মাংস

পানি সরাতে শলার ঝাড়ু

পশু কুরবানি, মাংস কাটা-ধোয়ার পর পানি জমবেই। পানি জমিয়ে না রেখে শলার ঝাড়ু দিয়ে পানি সরিয়ে নিকটস্থ ড্রেনে ফেলতে হবে। এজন্য আগে থেকেই ঝাড়ুর ব্যবস্থা করে রাখুন। 

ব্লিচিং পাউডারের ব্যবহার 

আশপাশের স্থান পরিষ্কার শেষে অবশ্যই ব্লিচিং পাউডার ব্যবহার করতে হবে। এর ব্যবহারে মশা ও অন্যান্য পোকামাকড় দূরে থাকবে। দূর হবে দুর্গন্ধও।

বিকেলের আগেই মাংস গুছানো 

বিকেলের আগেই যেন মাংস গুছানো হয়ে যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। এরপর পুরো বাড়ি, মাংস কাটার স্থান, সিঁড়ি সকল জায়গা স্যাভলন পানি দিয়ে ভালোভাবে মুছে নিতে হবে। খেয়াল রাখবেন ঘর বা বারান্দার কোথাও কাজের সময় পানি জমে রইলো কিনা। পানি জমলে সেটি দ্রুত মুছে ফেলতে হবে।

আরও পড়ুন: কুরবানি ঈদের শেষ প্রস্তুতি নিয়েছেন তো?

মাংস কাটার যন্ত্রাংশ পরিষ্কার 

মাংস কাটা হয়ে গেলে সেগুলো প্যাকেট করে ফ্রিজে রাখলেই কিন্তু দায়িত্বের শেষ নয়। কাজ শেষে ব্যবহার করা যন্ত্রাংশগুলো পুনরায় ধুয়ে রাখতে হবে। জীবাণু রোধের জন্য গরম পানিতে সবকিছু ধুয়ে শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে সংরক্ষণ করতে হবে। 

ডাস্টবিনের ব্যবহার

এলাকা পরিষ্কারের সাথে সাথে কোনো আবর্জনাই যেন জমে না থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখা জরুরি। ময়লা-আবর্জনা সব একটি বড় ব্যাগে ভরে নিকটস্থ ডাস্টবিনে ফেলতে হবে। কখনোই যত্রতত্র ফেলা যাবে না। 

সকল কাজ পরিচ্ছন্নভাবে করার মূল কারণ হচ্ছে নিজের এবং পরিবারের সুস্থতা। ফেলে দেওয়া আবর্জনার কারণে যত্রতত্র বৃষ্টির পানি জমে ডেঙ্গু তার ভয়াবহতা বাড়াতে পারে। তাই সকল কিছুর আগে পরিবেশের সুস্থতার সাথে সাথে নিজেকেও সুস্থ রাখতে হবে। 

ওডি/এএন 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড