• বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কাশ্মীর ইস্যুতে পদক্ষেপ নিতে সৌদি সফরে ইমরান খান

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৬:২৩
পাক প্রধানমন্ত্রী ও সৌদি যুবরাজ
বিমানবন্দরে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। (ছবিসূত্র : দ্য ডন)

ভারতীয় সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে ভূস্বর্গ খ্যাত জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করায় অঞ্চলটিতে ইতোমধ্যে এক থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যা নিয়ে পরবর্তীতে সৃষ্ট উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে এবার দেশটির বিরুদ্ধে জনমত গঠনের অংশ হিসেবে সৌদি আরব গেলেন পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

পাক প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের বরাতে গণমাধ্যম 'দ্য ডন' জানায়, বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় সকালে দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটির উদ্দেশে ইসলামাবাদ ছেড়েছেন তিনি। 

জাতিসংঘের আসন্ন ৭৪তম সাধারণ অধিবেশনকে সামনে রেখে তার এই সফর। এবার অধিকৃত কাশ্মীরের অস্থিতিশীলতা নিয়ে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে তিনি বিশেষ আলোচনা করবেন। যেখানে পাক প্রধানমন্ত্রী কাশ্মীর ইস্যুতে মুসলিম অধ্যুষিত এই দেশটির সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করবেন।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে পাঠানো বিবৃতিতে বলা হয়, 'ইস্যুটি নিয়ে সৌদি যুবরাজের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন পাক প্রধানমন্ত্রী। যার ধারাবাহিকতায় কাশ্মীর নিয়ে আন্তর্জাতিক মনোযোগ আকর্ষণের চেষ্টার অংশ হিসেবে তার এবারের মধ্যপ্রাচ্য সফর।

আগামী সপ্তাহে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ইমরান খানের বক্তৃতা দেওয়ার কথা রয়েছে। যেখানে তিনি কাশ্মীর প্রসঙ্গটি তুলে ধরবেন।

বিশ্লেষকদের মতে, সম্প্রতি সৌদি ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুই যুবরাজের সঙ্গে বেশ কয়েক দফায় ফোনালাপের পর চলতি সপ্তাহে দেশ দুটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা পাকিস্তান সফরে যান। এ সময় তার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও পাক সেনাপ্রধানের সঙ্গে কাশ্মীরে বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তর আলোচনা করেন।

এর আগে গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছিল ক্ষমতাসীন মোদী সরকার। যার প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে বিতর্কিত লাদাখ ও জম্মু ও কাশ্মীর সৃষ্টির প্রস্তাবেও সমর্থন জানানো হয়।

এসবের মধ্যেই চলমান কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত মধ্যকার সম্পর্কে নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে একে একে ভারত সরকারের সঙ্গে বাণিজ্য, যোগাযোগসহ সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। যদিও এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে ভারত পাশে পেয়েছে রাশিয়াকে এবং পাক সরকারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশ ইরান।

আরও পড়ুন :- জঙ্গিরা কি চাঁদ থেকে এসেছে, পাকিস্তানকে ইইউর প্রশ্ন

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারসহ রাজ্যের স্থানীয় প্রশাসন সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক বলে জানানো হলেও; কাশ্মীর জুড়ে এখনো সংঘর্ষ ও গ্রেফতারের ঘটনা ঘটছে বলে দাবি পাকিস্তানের।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড