• রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

চার হাজার কাশ্মীরিকে আটক করেছে মোদী সরকার

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৮ আগস্ট ২০১৯, ১৯:৫৮
জম্মু-কাশ্মীর
ছবি : সংগৃহীত

দুই সপ্তাহ আগে ভারত-অধিকৃত কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেয় ভারত। অশান্তি ও বিক্ষোভ-প্রতিক্রিয়ায় আশঙ্কায় রাজনৈতিক নেতা-কর্মীসহ হাজার হাজার মানুষকে আটক করা হয়েছে বলে ভারতের সরকারি সূত্রের বরাতে জানায় বার্তা সংস্থা এএফপি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন ম্যাজিস্ট্রেটকে উদ্ধৃত করে এএফপি বলে, জননিরাপত্তা আইন (পিএসএ) এর আওতায় কমপক্ষে ৪,০০০ লোককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই বিতর্কিত আইনের আওতায় কর্তৃপক্ষ যে কাউকে বিনা অভিযোগে বা বিচার ছাড়াই দুই বছরের কারাগারে বন্দি করতে পারে।

ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, 'ধারণ ক্ষমতার স্বল্পতায় বেশিরভাগ বন্দি কাশ্মীরিকে বাইরের কারাগারে পাঠানো হয়েছে। হিমালয়ের অঞ্চলটি জুড়ে যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করে রাখে ভারতের কর্তৃপক্ষ। সহকর্মীদের কাছ থেকে পরিসংখ্যান সংগ্রহের জন্য তার কাছে থাকা বরাদ্দকৃত একটি স্যাটেলাইট ফোন ব্যবহার করেছিলেন তিনি।'

প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে অবরুদ্ধ থাকা কাশ্মীরের অচলাবস্থায় রবিবার কিছুটা শৈথিল্য আনে ভারত সরকার। ধীরে ধীরে ফোন লাইন পুনরুদ্ধার এবং নিরাপত্তা নিষেধাজ্ঞা সহজ করে দেয়ার দাবি জানান তারা, তবুও অধিকৃত কাশ্মীরের বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বিধিনিষেধ অব্যাহত রয়েছে। চালু করার পর সংঘর্ষ বাধলে আবারও যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে বিজেপি সরকার।  

ভারতের একমাত্র মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ অঞ্চলের স্বায়ত্তশাসনকে গত ৫ আগস্ট কেড়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে সুরক্ষা ক্র্যাকডাউন আরোপ করা হয় কাশ্মীরে। সেখানকার গণমাধ্যম ও যোগাযোগের যাবতীয় ব্যবস্থা স্থগিত করে ভারত সরকার। তাই প্রকৃত তথ্য জানা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তবে শনিবার সীমিতাকারে নিষেধাজ্ঞা শিথিল করলে যে সহিংস সংঘর্ষ বাধে তা আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম নিশ্চিত করে জানায়, রবিবার ফের নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা ভারতীয় গণমাধ্যমেই জানানো হয়। 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড