• রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্য : ইউনিসেফ থেকে প্রিয়াংকাকে অপসারণের দাবি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৫ আগস্ট ২০১৯, ১৬:৩৪
প্রিয়াংকা চোপড়া
কাশ্মীর নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে প্রিয়াংকা চোপড়া। (ছবি : সংগৃহীত)

কাশ্মীর নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বিপাকে পড়েছেন সাবেক বিশ্ব সুন্দরী ও বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া। ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত থেকে তার অপসারণের দাবিও উঠেছে।

ইউনিসেফ থেকে প্রিয়াংকাকে অপসারণের দাবি জানিয়ে পাকিস্তানের মানবাধিকার বিষয়ক মন্ত্রী শিরিন মাজারির বলেন, প্রিয়াংকা চোপড়ার শুভেচ্ছাদূতের পদ যেন প্রত্যাহার করে নেয়। ইউনিসেফ যেন ভবিষ্যতে এ ধরনের সম্মানজনক পদে কাউকে নিয়োগের ক্ষেত্রে অধিক সতর্কতা অবলম্বন করে।

এই আহ্বানের পক্ষে যুক্তিও তুলে ধরেছেন পাকিস্তানের এ মন্ত্রী। তিনি টুইটারে লেখেন- ভারতীয় সেনাবাহিনী ও দুর্বৃত্ত মোদি সরকারকে সমর্থন করায় ইউনিসেফের উচিত প্রিয়াংকা চোপড়াকে প্রত্যাহার করা নেয়া। অন্যথায় এটি এ পদকে উপহাসের বিষয় করে তুলবে।

ভারতের এক গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, প্রিয়াংকা চোপড়া চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে বালাকোট বিমান ধর্মঘটকে সমর্থন করে টুইট করেন। সেখানে তিনি ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য শুভকামনাও জানান। তখনও প্রিয়াংকার বরখাস্তের দাবি করেছিলেন পাকিস্তানের এ নারী মন্ত্রী।

সম্প্রতি ভারতের অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া বালাকোটে হামলা নিয়ে পাকিস্তানের এক নারীর আক্রমণাত্মক প্রশ্নের সম্মুখীন হন। পাকিস্তানি ওই নারী প্রিয়াংকার কাছে জানতে চান, জাতিসংঘের শান্তিদূত হয়েও তিনি কেন তার দেশে পরমাণু বোমা আক্রমণের মতো চিন্তাকে সমর্থন করছেন। পাকিস্তানে প্রিয়াংকার লাখ লাখ সমর্থক রয়েছেন, এ কথাও মনে করিয়ে দিতে ভোলেননি সেই নারী।

পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় ৪৪ ভারতীয় সেনা নিহতের ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানিয়ে সমালোচিত হন প্রিয়াংকা। তিনি টুইটে লেখেন, পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার ঘটনায় আমি মর্মাহত। ঘৃণা কখনো জবাব হতে পারে না। আমি নিহত সেনাদের পরিবারের পাশে রয়েছি। আহতদের দ্রুত সেরে ওঠার কামনা করছি।

আর তার এ টুইটের পরেই ট্রোল টুইটে আক্রান্ত হতে থাকেন প্রিয়াংকা।

ওডি/এসএইচএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড