• বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

কাশ্মীরে গণহত্যার আশঙ্কা ইমরান খানের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ আগস্ট ২০১৯, ১৪:১৭
ইমরান খান
পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। (ছবিসূত্র : বিবিসি নিউজ)

চলমান কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের আগ্রাসী মনোভাবের কারণে দেশটির সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা এরই মধ্যে দিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। যার অংশ হিসেবে ইতোমধ্যে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছেন পাকিস্তান। এবার ইমরানের আক্রমণের শিকার হলো ভারতের হিন্দু জাতীয়তাবাদী ও রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস)!

রবিবার (১১ আগস্ট) কাশ্মীর সম্পর্কে এক টুইট বার্তায় ইমরান খান বলেন, 'নাৎসি বাহিনীর আদর্শেই আরএসএস অনুপ্রাণিত। এবার সেই আদর্শকে মেনেই ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে চলছে কারফিউ ও ব্যাপক বর্বরতা। এরপর অঞ্চলটিতে গণহত্যা হতে পারে বলেও আমার আশঙ্কা।'

তার মতে, 'দেশটির ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) মূল সংগঠন হিসেবে পরিচিত আরএসএসের আদর্শকে হিন্দু শ্রেষ্ঠত্ববাদ বলে মনে করা হয়।'

বিশ্লেষকদের মতে, কাশ্মীর ইস্যুতে গোটা বিশ্ব যখনই সরব হয়ে উঠেছে, ঠিক তখনই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান এসব প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি বলেন, 'গোটা বিশ্ব কি আগের মতো এবারো সব কিছু চুপ করে সহ্য করবে, নাকি ভারতের বিরুদ্ধে শক্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলবে? ঠিক যেভাবে জার্মানি হিটলারের কার্যক্রমকে চুপ করে সহ্য করেছিল।'

তিনি আরও বলেন, 'কাশ্মীরিদের জাতিগতভাবে নির্মূল করার মাধ্যমে অঞ্চলটিতে জনসংখ্যা পরিবর্তনের চেষ্টা চলছে। এখন প্রশ্ন হলো, বিশ্ব কি হিটলারের কর্মকাণ্ডের মতো এটি দেখে কেবল আনন্দ উপভোগ করবে?'

আরও পড়ুন :- যেভাবে কাটছে কাশ্মীরিদের ঈদ

এর আগে গত সপ্তাহের ৫ আগস্ট (সোমবার) কেন্দ্রীয় সরকার ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা হরণ করেছিল। যার প্রেক্ষিতে রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মূলত এর পর থেকে অঞ্চলটিতে বসবাসরতদের নিরাপত্তার স্বার্থে গত সপ্তাহ থেকেই রাজ্যটির বেশিরভাগ অংশে কারফিউ জারি করা হয়; যা এখনো অব্যাহত আছে।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড