• শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ট্রেনের পর এবার দিল্লি-লাহোর রুটে বাস সেবাও বন্ধ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ আগস্ট ২০১৯, ১৩:৩৮
দিল্লি-লাহোর রুটের বাস
পাকিস্তান সীমান্তে অবস্থানরত দিল্লি-লাহোর রুটে চলাচলকারী বাস সেবা। (ছবিসূত্র : জম্মু লিঙ্ক নিউজ)

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে চলাচলকারী 'সমঝোতা' ও 'থর এক্সপ্রেস' ট্রেনের পর এবার লাহোর-দিল্লি মধ্যকার বাস পরিষেবাও বন্ধ করা হলো। এর আগে গত বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) প্রথমে 'সমঝোতা এক্সপ্রেস' বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিল পাকিস্তান। এরপর শুক্রবার বন্ধ করা হয় দুই দেশের মধ্যে চলাচলকারী সর্বশেষ 'থর এক্সপ্রেস' ট্রেনটিও। যার অংশ হিসেবে এবার বাতিল করা হল ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনকারী একমাত্র বাস সেবাটিও।

ভারতীয় গণমাধ্যম 'দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া' এক প্রতিবেদনে জানায়, সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের পরই ভারতের সঙ্গে একে একে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করছে পাকিস্তান। এবার তারই ধারাবাহিকতায় দেশ দুটির মধ্যে চলাচলকারী ট্রেন সেবার পর এবার বন্ধ করা হলো বাস সেবাও।

শনিবার (১০ আগস্ট) পাকিস্তানের যোগাযোগ ও ডাকমন্ত্রী মুরাদ শহিদ এক টুইট বার্তায় বলেন, 'ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনকারী বাস সেবা বন্ধ করা হয়েছে। দেশের ন্যাশনাল সিকিউরিটি কমিটির নির্দেশ অনুযায়ী আমরা এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি।'

এর আগে ১৯৯৯ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে 'সদা-ই-সরহদ' নামে বাস সেবাটি চালু করা হয়। ভারতীয় তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী নিজে প্রথম এই বাসে চড়ে পাক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকে যোগ দিতে লাহোর যান। পরে পাকিস্তানের ওয়াঘায় তাকে স্বাগত জানান তৎকালীন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ।

আরও পড়ুন :- 'বিবিসি বাংলা'র চোখে কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা লোপের ক্রোধ

যদিও ২০০১ সালে নিজেদের পার্লামেন্টে হামলার পর এই বাস সেবাটি প্রথম দফায় বন্ধ ঘোষণা করেছিল ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। তবে দুবছর পর ২০০৩ সাল থেকে জন দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে সেবাটিকে ফের চালু করা হয়।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন সজীব 

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড