• শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২১ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

দীর্ঘ বিরতির পর কাশ্মীরে চালু হচ্ছে রেল যোগাযোগ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৭ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৪৬
কাশ্মীরের রেল যোগাযোগ
কাশ্মীরের শ্রীনগর রেল স্টেশনে ফিরছে যাত্রীবাহী ট্রেন (ছবিসূত্র : ইন্ডিয়ান রেল ইনফো)

চূড়ান্ত উত্তেজনার মধ্যেই এবার বিভক্ত করা হয়েছে ভূস্বর্গ খ্যাত ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখকে। গত ৩১ অক্টোবর আনুষ্ঠানিকভাবে অঞ্চলটিকে পৃথক করা হয়েছে। যেখানে জম্মু ও কাশ্মীরকে একসঙ্গে এবং চীন সীমান্ত সংলগ্ন লাদাখ উপত্যকাকে অন্য অংশে বিভক্ত করা হয়।

মূলত এসবের প্রেক্ষিতে টানা তিন মাসেরও অধিক সময় যাবত বন্ধ থাকার পর অবশেষে চালু হতে যাচ্ছে কাশ্মীরের রেল যোগাযোগ। বুধবার (৬ নভেম্বর) স্থানীয় প্রশাসনের এক মুখপাত্র গণমাধ্যম ‘এনডিটিভিকে’ বলেন, ‘আগামী সপ্তাহের সোমবার (১১ নভেম্বর) পুনরায় এই অঞ্চলের সঙ্গে গোটা দেশের রেল যোগাযোগ শুরু হবে।’

এ দিকে কাশ্মীরের বিভাগীয় কমিশনার বশির আহমেদ খান স্থানীয় রেল কর্তৃপক্ষকে পরবর্তী তিনদিন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে বলেছেন। সেক্ষেত্রে সবকিছু স্বাভাবিক থাকলে আগামী ১০ নভেম্বর থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ট্রেন চালানো হবে। এরপর ১১ নভেম্বর চূড়ান্তভাবে চালু হবে রাজ্যটির সঙ্গে গোটা ভারতের রেল যোগাযোগ।  

বুধবার রেল কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে বশির আহমেদ নির্দেশনাটি দেন। যেখানে বন্ধ থাকা রেল যোগাযোগ ছাড়াও কাশ্মীরের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়েও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যা খুব শিগগিরই বাস্তবায়িত হবে বলে জানালেও সেসব বিষয়ে ওই মুখপাত্র বিস্তারিত কিছুই জানাননি।

অপর দিকে গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছিল ক্ষমতাসীন মোদী সরকার। যার প্রেক্ষিতে পরবর্তীকালে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে বিতর্কিত লাদাখ ও জম্মু-কাশ্মীর সৃষ্টির প্রস্তাবেও সমর্থন জানানো হয়।

জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিলের পর থেকেই অঞ্চলটিতে প্রায় ১০ লাখ সেনা মোতায়েন করে ভারত। বন্ধ করে দেওয়া হয় মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট সেবা। এর মধ্যে সেখানে মোবাইল ফোন সেবা চালু হলেও ইন্টারনেট সেবা এখনো স্বাভাবিক হয়নি।

আরও পড়ুন :- বিভক্তির পরও কাশ্মীরে কবরের নিস্তব্ধতা

এসবের মধ্যেই চলমান কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত মধ্যকার সম্পর্কে নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে একে একে ভারত সরকারের সঙ্গে বাণিজ্য, যোগাযোগসহ সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। যদিও এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে ভারত পাশে পেয়েছে রাশিয়াকে এবং পাক সরকারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশ ইরান ও এশিয়ার পরাশক্তি চীন।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড