• বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

প্রতিবন্ধী আসিফের রক্তদানের কিছু কথা ও অনুভূতি

  ফারজানা ইসলাম নিশি

১৬ আগস্ট ২০১৯, ১০:২৮
আসিফ
রক্তযোদ্ধা আসিফ

আজ এমন একজনের গল্প আপনাদের জানাবো, যে ছেলেটি সত্যিকারের একজন মানবতার সেবক। একজন শারিরীক প্রতিবন্ধী। যার শরীরের বেশিরভাগ অংশ প্রতিবন্ধীকতার স্বীকার। আর দশজন মানুষের মতো সে স্বাভাবিক না হলেও প্রতিনিয়ত কঠোর পরিশ্রম আর সৎ সাহসিকতা নিয়ে সে অস্বাভাবিক কাজ মানুষের সামনে প্রতিনিয়ত উপহার দিয়ে যাচ্ছে। রক্ত মানব সেই প্রতিবন্ধী ছেলে আসিফ।

আসিফ একজন সত্যিকারের মানবতার সেবক। রক্তের প্রয়োজনে সে প্রতিদিন অসংখ্যবার হাসপাতালে ছুটে যায়। রক্তদাতাদের নিয়ে যায় হাসপাতালে অসহায় রুগিদের রক্ত দিয়ে জীবন বাঁচানোর জন্য। সবসময় সে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ায়। নিজের একান্ত দৃঢ় মনোবল ও পরিশ্রমের মাধ্যমে সাহসিকতা আর সততা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে দিনের পর দিন। প্রতিনিয়ত সাহসিকতার সাথে ব্লাড সংগ্রহ সহ রক্তদানে উৎসাহিত করে যাচ্ছে মানুষকে।

তাছাড়া অসহায় পথশিশু, মরনোত্তর চক্ষুদান, প্রতিনিয়ত অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে যাচ্ছে আসিফ। বয়সটাও তেমন বেশি নয়। কিন্তু কম সময়েই সবার কাছে মানবতার প্রিয় একজন মানব হয়ে উঠেছে আসিফ। এসবের মাঝে তার মনে একটা দুঃখ সবসময় কাজ করতো সেটা হচ্ছে, সবাই রক্ত দেয় সে কেনো রক্ত দিতে পারে না? সৃষ্টিকর্তা কেনো তাকে এমন প্রতিবন্ধী করে দিলো?

আসিফের রক্তদান করাটাও ডাক্তারের নিষেধ ছিল, কারণ সে একজন শারিরীক প্রতিবন্ধী। আমাকে সবসময় আসিফ বলতো, ‘আপু আমি রক্তদান করতে চাই। আমি রক্ত দিতে পারবো আপু, আমার কোনো সমস্যা হবে না ইনশাআল্লাহ। আমার খুব ইচ্ছা আমি কারো জীবন বাঁচাই। কারো উপকার করতে পারলে আমার ভেতরে শান্তি অনুভব হয়। মানবতাই জীবন। মানবতার মাধ্যমেই গড়ে উঠবে সুন্দর পৃথিবী।’ 

যদিও আসিফ শারীরিক প্রতিবন্ধকতা ও ডাক্তারের নিষেধাজ্ঞা থাকায় রক্তদান করতে পারে না কিন্তু হঠাৎ আজ হঠাৎ জানালো সে রক্ত দিয়েছে। জরুরি এক শিশুর জটিল অবস্থা ছিল। সত্যিকার অর্থে আজ আমি আসিফের মাধ্যমে বুঝতে পারলাম ইচ্ছা আর মানবতা থাকলে সব সম্ভব। আমি আসিফকে ভালোবাসার সম্মানটা জানাতে আজ একটুও অপেক্ষা করিনি। আমি সবসময় আসিফকে স্যালুট জানাই। মানবসেবার কোনো কাজে সে পিছিয়ে নেই।

নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়েও সে রক্তদানে পিছিয়ে যায়নি। যদিও টাকা নেই কিন্তু মন এমন একটা জিনিস যেটা সবার থাকে না। আসিফ অনেক বড় মনের মানুষ। সে ভবিষ্যতে চায় অসহায় শিশুদের দায়িত্ব নিতে। সবাই দোয়া করবেন আল্লাহ যেনো তার মনোবাসনা পূরণ করেন। 

এভাবে সৎ সাহসিকতা মন নিয়েই এগিয়ে চলছে আসিফ। আজ সে প্রথম বি পজেটিভ রক্তদান করলো চার মাসের এক বাচ্চাকে। আসিফ তোমাকে স্যালুট। সবার ঘরে যেন এমন আসিফের জন্ম হয়। সবাই আসিফের মতো রক্তদানে উৎসাহিত হোন।

মানবতার জয় হোক প্রতিনিয়ত। বেঁচে থাকুক মানবতা। জাগ্রত হোক আসিফের মত জনতা।

ওডি/এনএম 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড