• শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান হলেন অ্যাডমিরাল এ কে আজাদ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৪ মার্চ ২০২০, ০১:৩১
অ্যাডমিরাল
রিয়ার অ্যাডমিরাল শেখ আবুল কালাম আজাদ (ফাইল ছবি)

চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান নিযুক্ত হয়েছেন সাবেক নৌ-গোয়েন্দা প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল শেখ আবুল কালাম আজাদ। সম্প্রতি তিনি খুলনা বন্দরের চেয়ারম্যান নিযুক্ত হয়েছিলেন। এক মাসের মাথায় এ কে আজাদের নতুন পদায়ন ঘটল।

এর আগে চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান ছিলেন রিয়ার অ্যাডমিরাল জুলফিকার আজিজ। এই নিয়োগের ফলে তিনি বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীতে ফিরে এসেছেন।

সোমবার (২৩ মার্চ) দায়িত্ব গ্রহণের পর এ কে আজাদ বলেন, ‘নানা কারণেই বিশ্বের কাছে চট্টগ্রাম বন্দর প্রণিধানযোগ্য। বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্য সচল রাখতে এই বন্দরের ভূমিকা অগ্রগণ্য। তাই সবদিক বিবেচনা করে মর্যাদার সঙ্গে কাজ করে যাব।’

বন্দরকে নতুন রূপে সাজানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করে আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আমি আগেও চট্টগ্রামে চাকরি করেছি। ইশা খাঁর দায়িত্বে ছিলাম। যে কারণে এখানকার অনেক কিছুই আমার চেনা-জানার মধ্যে।’

নৌ-বাহিনীর চৌকস এই কর্মকর্তা নৌ-গোয়েন্দা প্রধানের দায়িত্ব পালনের আগে ইশা খাঁর দায়িত্বে ছিলেন। তারও আগে তিনি র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) আইন ও গণমাধ্যম শাখার প্রধান ছিলেন। মিডিয়াবন্ধু হিসেবে সুপরিচিত আবুল কালাম আজাদের গুরুত্বপূর্ণ কর্মকাণ্ড সে সময় ব্যাপক প্রশংসিত ছিল। দেশজুড়ে র‌্যাবের সাফল্যমণ্ডিত কর্মকাণ্ড তখন মিডিয়ার মাধ্যমে জনগণের কাছে পৌঁছে গিয়েছিল। এমনকি সাধারণ মানুষকে সচেতন করতেও এ কে আজাদ ও তার মিডিয়া টিম সাংবাদিকদের মাধ্যমে যৌথভাবে কাজ করেছে শহর থেকে প্রত্যন্ত এলাকায়। বিশেষ করে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে সর্বহারার নামে বিভিন্ন সন্ত্রাসী বাহিনীর দাপট দমনে তার ভূমিকা র‌্যাব সদস্যদের কাছেও প্রশংসা পেয়েছিল।

১৯৬৭ সালের ৩০ এপ্রিল কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী উপজেলার মহেন্দ্রপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন শেখ আবুল কালাম আজাদ। সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান আজাদের পরিবার ও নিকটাত্মীয়দের মধ্যে অন্তত শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন। যাদের অবদান শুধু কুমারখালী থানাতেই নয়, পুরো কুষ্টিয়া জেলাতেও সর্বজন স্বীকৃত।

বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীর কর্মকর্তা হিসেবে রিয়ার অ্যাডমিরাল শেখ আবুল কালাম আজাদ দেশে এবং বিদেশে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ব্রিটানিয়া রয়্যাল নেভাল কলেজ থেকে আন্তর্জাতিক সাব লেফটেনেন্ট কোর্স সম্পন্ন করেছেন। একই সঙ্গে তিনি লন্ডনের রয়্যাল নেভাল কলেজ থেকে প্রাইমারি স্টাফ কোর্স, তুরস্ক থেকে তুর্কি ভাষার স্পেশাল কোর্স এবং গানারি স্পেশালাইজেশন কোর্স, ভারত থেকে ইন্টারন্যাশনাল হিউমেনিটেরিয়ান ল, আমেরিকা থেকে এক্সিকিউটিভ ডিসিশন ম্যাকিং কোর্স ছাড়াও প্রসিদ্ধ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান থেকে উল্লেখযোগ্য কোর্স সম্পন্ন করে সার্টিফিকেট লাভ করেন। ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ থেকে এনডিসি কোর্স সম্পন্ন করা আবুল কালাম আজাদ চেয়ারম্যান হিসেবে যোগদান করে মোংলা বন্দরের প্রতি ইঞ্চি মাটি ব্যবহারযোগী করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

আরও পড়ুন : রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযোদ্ধা গেদা মিয়ার দাফন সম্পন্ন

পাবনা ক্যাডেট কলেজ থেকে পাশ করে ১৯৮৫ সালের জানুয়ারি মাসে নৌ-বাহিনীতে যোগ দিয়ে এক্সিকিউটিভ শাখায় কমিশন লাভ করেছিলেন এ কে আজাদ। রাজনৈতিক পরিবারে বেড়ে ওঠা আজাদের বাবা শেখ ওসমান গনি এলাকার বিশিষ্ট সমাজকর্মী। আজাদ ও তার অন্য ভাইদের কৃতিত্বপূর্ণ কর্মকাণ্ডের কারণে তার মাতা খোদেজা বেগম এলাকায় রত্নগর্ভা হিসেবে পরিচিত।

ওডি/আইএইচএন

jachai
nite
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
jachai

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড