• শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

হায়দরাবাদের হার বাঁচাতে পারলেন না সাকিব

  ক্রীড়া ডেস্ক

২৪ মার্চ ২০১৯, ২১:০৯
আন্দ্রে রাসেল-সাকিব আল হাসান
আন্দ্রে রাসেল-সাকিব আল হাসান (ছবি : আইপিএল ওয়েবসাইট)

ম্যাচের শেষ ওভারে সাকিব আল হাসান যখন বোলিং করতে আসেন, তখন তার দিকে তাকিয়ে গোটা সানরাইজার্স হায়দরাবাদ শিবির। ৬ বলে রক্ষা করতে হবে ১৩ রান। কিন্তু ৩২তম জন্মদিনে কিছুটা হলেও আক্ষেপ থেকে গেছে বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডারের। বাঁচাতে পারেননি হায়দরাবাদের হার। সাকিবের ওই ওভারের চার বলের মধ্যে শুভমান গিল দুবার ছক্কা হাঁকিয়ে নাটকীয় এক জয় এনে দেন কলকাতা নাইট রাইডার্সকে।

আইপিএলের দ্বাদশ আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই হেরেছে সাকিবের দল হায়দরাবাদ। তার পুরনো দল কলকাতা ১৮২ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য তাড়া করে ম্যাচটা জিতে নিয়েছে ৬ উইকেটের বড় ব্যবধানে। রবিবার ইডেন গার্ডেন্সে প্রায় পুরোটা সময় ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ ধরে রেখেছিল অতিথি হায়দরাবাদ। কিন্তু কলকাতার ইনিংসের শেষভাগে হঠাৎই দাবার চাল উল্টে দেন আন্দ্রে রাসেল। মাত্র ১৯ বলে ৪৯ রানে অপরাজিত থাকেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলরাউন্ডার। বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে হাঁকান সমান ৪টি করে চার ও ছক্কা। গিল খেলেন ১০ বলে ১৮ রানের ক্যামিও ইনিংস। তাদের কল্যাণে দুই বল হাতে রেখে জিতেছে কলকাতা।

লক্ষ্য তাড়ায় শুরুতেই ক্রিস লিনের উইকেট হারায় কলকাতা। তাকে ফেরান সাকিব। এরপর নিতিশ রানার ৪৭ বলে ৬৮ ও রবিন উথাপ্পার ২৭ বলে ৩৫ রানের সুবাদে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় শক্ত ভিত গড়ে দলটি। কিন্তু ৮৭ থেকে ১১৮- এই ৩১ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে তারা। হায়দরাবাদের রশিদ খান-ভুবনেশ্বর কুমারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শেষ তিন ওভারে জয়ের জন্য কলকাতার দরকার দাঁড়ায় ৫৩ রান।

রাসেল তাণ্ডবের শুরুটা সেখান থেকেই। ১৮তম ওভারে সিদ্ধার্থ কাউলকে দুই ছয় ও এক চার মেরে তুলে নেন ১৯ রান। পরের ওভারে কচুকাটা করেন ভুবনেশ্বরকে। আগের তিন ওভারে ১৬ রান দেওয়া এই ভারতীয় পেসার ১৯তম ওভারে খরচ করেন ২১ রান! রাসেল ওই ওভারে হাঁকান দুটি চার ও দুটি ছয়। তাতেই ম্যাচ হায়দরাবাদের হাত ফসকে বেরিয়ে যায়।

এর আগে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৮১ রান তোলে হায়দরাবাদ। এক মৌসুম পর আইপিএলে ফেরা ডেভিড ওয়ার্নার নিজের প্রত্যাবর্তনের জানান দিয়ে করেন ৫৩ বলে ৮৫ রান। ৯ চার ও ৩ ছয়ে সাজানো ছিল তার ইনিংসটি।

উদ্বোধনী জুটিতে জনি বেয়ারস্টোকে নিয়ে ১২.৫ ওভারে ১১৮ রানের জুটি গড়েন ওয়ার্নার। এতেই বড় সংগ্রহের ভিত পেয়ে যায় হায়দরাবাদ। ইংলিশ ব্যাটার বেয়ারস্টো ৩৫ বলে ৩৯ রান করে ওয়ার্নারকে সঙ্গ দেওয়ার দায়িত্বটা পালন করেন ভালোভাবে। ১৬তম ওভারে ওয়ার্নারের বিদায়ের পর হায়দরাবাদের ইনিংস টেনে নেওয়ার কাজ করেন বিজয় শঙ্কর। ২৪ বলে সমান ২ চার ও ২ ছয়ে ৪০ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। কলকাতার হয়ে রাসেল ২ উইকেট নেন ৩২ রানে।

ওডি/এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড