• মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

ইমরানকে উৎখাতে এবার পাক ধর্মীয় নেতার বিক্ষোভের ডাক 

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৩ অক্টোবর ২০১৯, ১৬:১৮
ইমরান খান
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (ছবিসূত্র : দ্য ডন)

পাকিস্তানের সাবেক তারকা ক্রিকেটার ও দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নেতৃত্বাধীন সরকারকে উৎখাত করতে এবার সেখানকার অন্যান্য বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে জোট করেছে অতি রক্ষণশীল ধর্মীয় সংগঠন জমিয়ত উলেমা-ই-ইসলাম। যার অংশ হিসেবে দলটির নেতা ফজল-উর-রহমান এরই মধ্যে ইমরান ও তার দলের বিরুদ্ধে দেশব্যাপী ব্যাপক বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন।  

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) রাজধানী ইসলামাবাদে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের বিরুদ্ধে কর্মসূচিটির ডাক দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিবিদ বনে যাওয়া ইমরান খানের সরকার সম্পূর্ণ অদক্ষ এবং অবৈধ। কেননা নির্বাচনে কারচুপির মাধ্যমে সেনাবাহিনী তাকে ক্ষমতায় বসিয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে ইসলামাবাদ অভিমুখে পদযাত্রা আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যা খুব শিগগিরই করা হবে। যাদের দেশ শাসন করার কোনো অধিকার নেই, অবিলম্বে তাদের পদত্যাগই আমাদের একমাত্র দাবি।’ 

সূত্রের বরাতে গণমাধ্যম ‘দ্য হিন্দুস্তান টাইমস’ জানায়, ফজল-উর-রহমান এর আগেই সরকারের বিরুদ্ধে ইসলামাবাদ অভিমুখে দীর্ঘ পদযাত্রা (লং মার্চ) আয়োজনের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন। চলতি বছরের জুন মাসে এক সমাবেশে দেওয়া ভাষণে তিনি বলেছিলেন, ‘আগামী অক্টোবর থেকে ইসলামাবাদ অভিমুখে দীর্ঘ পদযাত্রার (লং মার্চ) আয়োজন করা হবে।’

এবার সেই কথার পুনরাবৃত্তি করে পাক ধর্মীয় নেতা জানান, ইমরান খান নেতৃত্বাধীন সরকারের পতনের উদ্দেশে আগামী ২৭ অক্টোবর থেকে সারা দেশ থেকে ‘আজাদি মার্চ’ শুরু করা হবে। যা পরবর্তী ৩১ অক্টোবর রাজধানী ইসলামাবাদে পৌঁছাবে।

এ দিকে বিশ্লেষকদের মতে, একদিকে পাকিস্তান যেখানে কাশ্মীর ইস্যুতে প্রতিবেশী ভারতের সঙ্গে এক বিশাল অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ এবং ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার মুখোমুখি হয়েছে। সেখানে এসব বিক্ষোভ প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও তার সরকারকে নতুন এক সমস্যায় ফেলা হবে। একই সঙ্গে রাজনৈতিক পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হতে পারে বলেও আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সাবেক পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ও বেনজির ভুট্টোর রাজনৈতিক দলসহ দেশটির অন্যতম বিরোধী দলগুলোর দাবি, তারা খুব শিগগিরই ফজল-উর-রহমানের সরকারবিরোধী প্রচারণায় সমর্থন করতে যাচ্ছে। যদিও সে ক্ষেত্রে তারা সংবিধানবিরোধী কোনো কর্মকাণ্ড সমর্থন জানাবে না বলে দাবি দলগুলোর।

অপর দিকে মাওলানা ফজল-উর-রহমানের তীব্র সমালোচনা করে সম্প্রতি পাক রেলপথ বিষয়ক মন্ত্রী শায়খ রাশেদ আহমেদ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, ‘কাশ্মীর ইস্যুতে দেশ যখন একটা কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে; তখন বিরোধী দলগুলোর এসব কর্মকাণ্ড মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়।’ 

পাক ধর্মীয় দলটিকে সতর্ক করে রেলমন্ত্রী আরও বলেছিলেন, ‘ফজল-উর-রহমান এখনো যদি তার সিদ্ধান্ত থেকে সরে না আসেন; তাহলে অবিলম্বে তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন :- সিরিয়ায় তুর্কি অভিযানকে আগ্রাসনের তকমা দিল চীন

উল্লেখ্য, উলেমা-ই-ইসলাম পাকিস্তানের এমন একটি ধর্মীয় রাজনৈতিক দল; যাদের গোটা দেশের বিশেষ করে খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশে অনেক ধর্মীয় কট্টরপন্থি অনুসারী রয়েছে। তারা দলের প্রয়োজনে যে কোনো সময় নিজেদের নিবেদিত রাখতে প্রস্তুত।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড