• মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

নীলনদের তীরে ১৫৩৯ খ্রিস্টপূর্বের কফিন আবিষ্কার (ভিডিও)

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১০:২৬
প্রাচীন আমলের কফিন
সদ্য আবিষ্কৃত অতিপ্রাচীন আমলের কাঠের কফিন। (ছবিসূত্র : দ্য প্রেস ফ্রম)

আফ্রিকার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় একটি প্রাচীন রাষ্ট্র মিশরের নীলনদের পশ্চিমতীর থেকে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত অবস্থায় পাওয়া গেছে অতিপ্রাচীন ২০টি কাঠের কফিন। কর্তৃপক্ষের মতে, সম্প্রতি খুঁজে পাওয়া সকল পুরাকীর্তিগুলোর মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড় এবং গুরুত্বপূর্ণ পুরতাত্ত্বিক নিদর্শন।

দেশটির প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দাবি, মিশরের দক্ষিণাঞ্চলীয় লুক্সর এলাকার এক ‘বিশাল গুপ্তস্থান’ থেকে প্রত্নতাত্ত্বিকরা অভিযান চালিয়ে প্রাচীন মিশরীয়দের সম্পূর্ণ আটকানো ২০টির বেশি কফিন আবিষ্কার করেছেন।

বুধবার (১৬ অক্টোবর) মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো বিবৃতির বরাতে মার্কিন গণমাধ্যম ‘সিএনএন’ জানায়, প্রায় সম্পূর্ণ অক্ষত অবস্থায় উদ্ধারকৃত কফিনগুলো বর্তমানে প্রত্নতাত্ত্বিকদের অধীনে রয়েছে। সদ্য খুঁজে পাওয়া এসব কফিনগুলোর রং এবং অলংকরণের তেমন কোনো রূপ পরিবর্তন হয়নি। কেননা সেগুলোর উজ্জ্বল রং এখনো বেশ অটুট। তাছাড়া রয়েছে নজরকাড়া ডিজাইনও।

বিশ্লেষকদের মতে, নীলনদের পশ্চিমতীরে আল-আসায়েফে প্রাচীন মিশরীয়দের সমাধিস্থান থেকে এই কফিনগুলো উদ্ধার করা হয়। সমাধির প্রায় দুই স্তরের বেষ্টনী ভেদ করে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত অবস্থায় উদ্ধারকৃত কাঠের এসব কফিনগুলো প্রায় ১৫৩৯ খ্রিস্টপূর্বের। যা তৎকালীন মিশর শাসনকারী ১৮তম ফারাও রাজবংশের শাসনামলে আল-আসায়েফের সমাধিস্থানে ব্যবহৃত হতো। প্রাচীন ফারাওদের সমকালীন মিশরীয় অভিজাত শ্রেণি ও উচ্চপদস্থ রাজ-কর্মচারীদের এই স্থানটিতে সমাধিস্থ করা হতো।

যদিও কফিনগুলো ঠিক কত আগের এখনো পর্যন্ত তা নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। আগামী শনিবার (১৯ অক্টোবর) লুক্সরে প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টির বিস্তারিত তথ্যের জানানো হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ দিকে কফিনগুলো আবিষ্কারের পর গত বুধবারই মিশরীয় প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী খালেদ আল-আনানি এবং প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক সর্বোচ্চ কাউন্সিলের সেক্রেটারি জেনারেল মোস্তফা ওয়াজিরি অঞ্চলটি পরিদর্শন করেন। পরবর্তীতে তারা কফিনগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করেন।

আরও পড়ুন :- গরুর চেয়ে নারীর প্রতি যত্নবান হতে মোদীকে তরুণীর বার্তা

অপর দিকে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) মিশরীয় প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, কর্মকর্তারা রাজকীয় সমাধির বিভিন্ন আসবাব ও তৈজসপত্র তৈরির জন্য ব্যবহৃত এক শিল্পাঞ্চল আবিষ্কার করেছেন। প্রায় ৩০টি কারখানা এবং সিরামিকস পোড়ানোর জন্য বিশাল এক চুল্লি নিয়ে গঠিত এ শিল্পাঞ্চলটি লুক্সরের ভ্যালি অব মাংকিসে আবিষ্কৃত হয়।

ওডি/কেএইচআর

jachai
niet
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
niet