• বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

জনবিক্ষোভে অবশেষে জ্বালানি ভর্তুকি বহাল রাখল ইকুয়েডর

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৩৬
ইকুয়েডরে বিক্ষোভ
বিক্ষোভ শেষে বাড়ি ফিরছেন বিক্ষুব্ধ জনতা। (ছবিসূত্র : বিবিসি নিউজ)

দক্ষিণ আমেরিকার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় দেশ ইকুয়েডরে বেশ কিছুদিন যাবত চলা সরকারবিরোধী বিক্ষোভের পর অবশেষে রাজধানীর অচলাবস্থা কাটাতে আদিবাসী নেতাদের সঙ্গে সমঝোতায় এসেছে সরকার। যে অনুসারে, এখন থেকে দেশটির জ্বালানি খাতে ভর্তুকি বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট লেনিন মোরেনো।

জাতিসংঘের বরাতে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ‘বিবিসি নিউজ’ জানায়। রবিবার (১৩ অক্টোবর) জাতিসংঘ ও রোমান ক্যাথলিক চার্চের বিশেষ মধ্যস্থতায় আদিবাসী নেতাদের সঙ্গে সরকারকে আলোচনায় বসানো হয়। মূলত এর পরপরই জ্বালানি ভর্তুকি ইস্যুতে সিদ্ধান্তটি নেওয়া হলো।

বিশ্লেষকদের মতে, টানা দুই সপ্তাহের বেশি সময় যাবত চলা এই বিক্ষোভের পর সমঝোতা বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হলো। দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে এই সমঝোতা বৈঠকটি সরাসরি সম্প্রচারিত হয়। এর আগে যদিও চলতি বিক্ষোভ দমনে প্রেসিডেন্ট লেনিন মোরেনো সেনাবাহিনী দ্বারা কারফিউ জারির ঘোষণা করেন। তবে রবিবারের সেই বৈঠকের পর এমন ঘোষণা আসার পরপরই রাজধানীজুড়ে বিক্ষোভকারীরা উল্লাস প্রকাশ শুরু করেন।

পরবর্তীকালে এক যৌথ সংবাদ বিবৃতিতে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দেশের জ্বালানি খাতে ভর্তুকি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত পুরোপুরি বাতিল করা হয়েছে। জনস্বার্থ বিবেচনা করে সরকার এখন থেকে খাতটিতে পূর্বের মতোই ভর্তুকি প্রদান করবে।

এর আগে প্রেসিডেন্ট মোরেনো বলেছিলেন, ‘প্রতি বছর জ্বালানি ভর্তুকিতে সরকারের ব্যয় হয় মোট ১৩০ কোটি ডলার। ১৯৭০ দশকে জারি করা ভর্তুকি এখন আর বহন করা সম্ভব নয়। মূলত এরপরই দেশব্যাপী বৃদ্ধি পায় জ্বালানির মূল্য। যার প্রেক্ষিতে রাজপথে নেমে আসেন হাজারো বিক্ষোভকারী।

আরও পড়ুন :- বিক্ষোভে উত্তাল ইকুয়েডর, রাজধানীতে কারফিউ (ভিডিও)

পরবর্তীকালে গত শনিবার (১২ অক্টোবর) এক টুইট বার্তায় রাজধানীতে সেনা মোতায়েনও ঘোষণা দেন প্রেসিডেন্ট লেনিন। তবে এখন থেকে এসব সংকট ধীরে ধীরে কমে আসবে বলে দাবি সংশ্লিষ্টদের।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড