• মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

তুরস্ককে ঠেকাতে এবার সিরীয় সেনাদের সঙ্গে সমঝোতায় কুর্দিরা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৪ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৫৭
সিরিয়ায় তুর্কি অভিযান
সিরিয়ায় অভিযান পরিচালনা করছেন তুর্কি সেনাবাহিনী। (ছবিসূত্র : বিবিসি নিউজ)

মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে তুরস্কের চলমান অভিযানে নিহতের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলছে। শনিবার (১২ অক্টোবর) পর্যন্ত অন্তত ৪১৫ জন কুর্দি সেনাকে ‘নিউট্রালাইজ’ করেছে তুরস্ক। কোনো সন্ত্রাসীকে হত্যা, আটক বা কোনো সন্ত্রাসী আত্মসমর্পণ করলে তুরস্ক নিউট্রালাইজ শব্দটি ব্যবহার করে। তুর্কি জাতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পাঠানো বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। 

সোমবার (১৪ অক্টোবর) সূত্রের বরাতে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ‘বিবিসি নিউজ’ জানায়, অঞ্চলটির বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণাধীন সীমান্তবর্তী শহরগুলোতে তুরস্কের চলমান অভিযান ঠেকাতে সিরীয় সেনাবাহিনীর সঙ্গে একটি সমঝোতা করেছে মার্কিন সমর্থিত সশস্ত্র কুর্দিবাহিনী।

সিরীয় কুর্দিদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তুরস্কের সামরিক অভিযান মোকাবিলায় সিরিয়া সরকারের সঙ্গে এরই মধ্যে তাদের একটি সমঝোতা হয়েছে। যেখানে দেশটির উত্তরাঞ্চলে তুর্কি অভিযান ঠেকাতে সরকারের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত সেনা পাঠানো হবে। 

এর আগে সিরিয়ার সরকারি মিডিয়ার খবরে বলা হয়েছিল, উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তে সরকারিবাহিনীর পক্ষ থেকে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। তাছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অঞ্চলটিতে অবস্থানরত তাদের অবশিষ্ট সেনাদেরও এরই মধ্যে প্রত্যাহার করে নিয়েছে। মূলত এর পরপরই কুর্দিদের সঙ্গে সিরীয় সেনাবাহিনীর এই সমঝোতার খবরটি প্রকাশ্যে আসলো।

এ দিকে অবিলম্বে এই সেনা অভিযান বন্ধ করার জন্য তুর্কি প্রশাসনকে এরই মধ্যে অনুরোধ জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের তেল সমৃদ্ধ দেশ ইরান। তাছাড়া তুরস্কের এই আগ্রাসন ভালোভাবে নিচ্ছে না ভারত, ইতালির মতো বহু দেশ। এমনকি সংযত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রও। তবে এশিয়ার মুসলিম অধ্যুষিত রাষ্ট্র পাকিস্তানের সমর্থন কিন্তু তুর্কি প্রশাসনের প্রতিই আছে।

এত কিছুর পরও এরদোগান কিন্তু একরোখা। নিজের টুইট পোস্টে ‘পিস স্প্রিং’ (শান্তির বসন্ত) আনার কথা উল্লেখ করে সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে অবস্থানরত কুর্দিবাহিনীর বিরুদ্ধে সেনা অভিযান শুরু করেছেন তিনি।

কোনো দেশের পরোয়া না করে গত শুক্রবার (১১ অক্টোবর) উল্টো ইউরোপীয় ইউনিয়নকে (ইইউ) হুমকি দিয়ে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ‘তুরস্কের এই অভিযানকে আগ্রাসনের তকমা দেওয়া হলে আঙ্কারা থেকে অবিলম্বে ৩৫ লক্ষাধিক শরণার্থীকে সরাসরি ইউরোপেই ফেরত পাঠানো হবে।’

অপরদিকে সিরিয়ার কুর্দি নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে তুর্কি হামলা অব্যাহত থাকায় দেশটির ওপর অচিরেই এক বড় ধরনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে বলে জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। এমনকি ন্যাটো বাহিনীতে তুরস্কের সদস্য পদ থাকা নিয়েও এবার আলোচনা শুরু হয়েছে বলে এরই মধ্যে দাবি করেছে ইউরোপের দেশ ফ্রান্স। খবর ব্লুমবার্গের

আরও পড়ুন :- সিরিয়ায় কুর্দি রাজনীতিবিদসহ ৯ জনকে নির্মমভাবে হত্যা

এর আগে গত বুধবার (৯ অক্টোবর) সিরিয়ায় অবস্থানরত মার্কিন সমর্থিত কুর্দিবাহিনীর ওপর সশস্ত্র অভিযান শুরু করে তুরস্ক। যা এখনো অব্যাহত আছে।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড