• বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬  |   ২৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

কেন গ্রেটাকে পেছনে ফেলে নোবেল পেলেন আবি আহমেদ?

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:০৯
গ্রেটা থুনবার্গ ও আবি আহমেদ
জলবায়ু পরিবর্তনের আন্দোলনকর্মী গ্রেটা থুনবার্গ ও শান্তিতে নোবেলজয়ী ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ। (ছবি : সম্পাদিত)

চলতি বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার কার থলিতে যাচ্ছে? বিষয়টি নিয়ে যারা একটু–আধটু খোঁজ-খবর রাখেন, তাদের প্রায় সবার উত্তরই—গ্রেটা থুনবার্গ। কেননা গত শুক্রবারের আগ পর্যন্ত সেই দৌড়ে জলবায়ু পরিবর্তনকর্মী স্কুলছাত্রী থুনবার্গ ছিলেন সবার চেয়ে এগিয়ে। যদিও সংশ্লিষ্ট সবাইকে তাক লাগিয়ে এবার শান্তিতে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হন বিশ্ব শান্তির জন্য ব্যাপক সংস্কার করা ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ।

শুক্রবার (১১ অক্টোবর) নোবেল কর্তৃপক্ষ এক টুইটার বার্তায় জানায়, শান্তি অর্জনে উদ্যোগ এবং আন্তর্জাতিক সহযোগিতার জন্য আবি আহমেদ এই পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। ইথিওপিয়ার পার্শ্ববর্তী দেশ ইরিত্রিয়ার সঙ্গে সীমান্ত সংঘর্ষ বন্ধের উদ্যোগ নেওয়ার বিষয়টি এ ক্ষেত্রে বিশেষভাবে বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে।

কেননা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইথিওপিয়ার ক্ষমতায় আসার পর থেকে নারীর ক্ষমতায়নের ওপর বিশেষভাবে গুরুত্বারোপ করেন আবি। যার অংশ হিসেবে নিজ দেশের মন্ত্রী পর্যায়ের ২০টি পোস্টে অর্ধেক নারী নিয়োগ দেন তিনি। তাছাড়া ইথিওপিয়ার ইতিহাসে প্রথম নারী প্রতিরক্ষামন্ত্রীও নিয়োগ দেন এই আবি আহমেদ।

এ দিকে জলবায়ু পরিবর্তনের ভয়ংকর থাবা থেকে পৃথিবীকে রক্ষার জন্য মাত্র ১৬ বছর বয়সী গ্রেটা থুনবার্গ গড়ে তোলেন এক জলবায়ু পরিবর্তনের আন্দোলন। পরবর্তীকালে যার নাম দেওয়া হয় ‘ফ্রাইডেস ফর ফিউচার’। এর অংশ হিসেবে গত মাসে তার উদ্যোগেই বিশ্বের প্রায় দেড় শতাধিক দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন স্কুলশিক্ষার্থীরা। 

মূলত এর পরপরই বিশ্বের প্রায় বিভিন্ন দেশ থেকে গ্রেটাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার প্রদানের জন্য সুপারিশও করা হয়। এবার যদি তাকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হতো, তাহলে পাকিস্তানের শিক্ষা আন্দোলনকর্মী মালালা ইউসুফজাইকে হটিয়ে সে-ই হতো সবচেয়ে কম বয়সী নোবেল বিজয়ী কিশোরী। যদিও শেষ পর্যন্ত তা আর হলো না। নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটি তার পরিবর্তে পুরস্কারের জন্য আবিকেই বেছে নেয়।

চলতি বছরের এই নোবেল পুরস্কারের জন্য ৩০১ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে মনোনীত করা হয়েছিল। যদিও গ্রেটা থুনবার্গ কেন নোবেল পেলেন না, যে কারণে এবার তা নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। পুরস্কারটি নিয়ে কাজ করা বিশ্লেষকেরা বলেছেন, এবার বেশ কিছু বিষয় গ্রেটার বিরুদ্ধে গিয়েছে। যে কারণে তাকে আর এই পুরস্কারটি দেওয়া হলো না।

অপরদিকে নরওয়ের অসলোর পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের প্রধান হেনরিক উরডাল বলেছেন, ‘এবারের শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের সংক্ষিপ্ত তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন থুনবার্গ। কেননা জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে সশস্ত্র সংঘাতের কোনো বিষয়ের তার যোগসূত্র থাকার বৈজ্ঞানিক গবেষণা এখনো পাওয়া যায়নি।’ 

আরও পড়ুন :- হামলায় অনড় এরদোগান, এবার হুমকি দিলেন ইউরোপকেও

তিনি আরও বলেন, ‘মূলত এসব কারণেই হয়তো এবার গ্রেটা থুনবার্গকে বাদ পড়তে হয়েছে। যদিও কমিটির সব সদস্যরাই বিষয়টি বেশ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছিলেন। তবে শান্তির সঙ্গে তার সংঘাতের বিষয়টিও জড়িত। তাই জলবায়ুর সঙ্গে সংঘাতের বিষয়টি জড়িত থাকা নিয়ে এখনো অনেক বিতর্ক রয়েছে।’

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড