• বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ৯ মাঘ ১৪২৬  |   ১৬ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সিরিয়ায় হামলা

তুর্কি অর্থনীতিকে ধ্বংসের হুঁশিয়ারি দিলেন ট্রাম্প

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

০৮ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:১৩
প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। (ছবিসূত্র : দ্য পলিটিকো)

পশ্চিম এশিয়ার যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে যে কোনো সময় তুরস্ক সামরিক অভিযান পরিচালনা করতে পারে বলে দাবি যুক্তরাষ্ট্রের। যদিও অঞ্চলটিতে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর সেখানে আগ্রাসন চালানোর বিষয়ে তুরস্ককে এরই মধ্যে সতর্ক করে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

সোমবার (৭ অক্টোবর) একাধিক টুইট বার্তায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট তুর্কি কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করে বলেন, ‘আমরা কখনোই এমনটা হতে দিব না। সেই অঞ্চলের সীমা অতিক্রম করলে তুরস্কের অর্থনীতিকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেওয়া হবে।’

এর আগে একই দিন সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে সশস্ত্র জঙ্গি সংগঠন আইএসবিরোধী অভিযান পরিচালনার ঘোষণা দেয় তুরস্ক। দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপে এরদোগানের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন বলেছেন, ‘সন্ত্রাসীদের আস্তানা গুঁড়িয়ে দিতেই তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে বিধ্বংসী সামরিক অভিযান চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আঙ্কারা।’ 

এ দিকে তুরস্কের এই অভিযান চালানোর ঘোষণার পর অঞ্চল থেকে একে একে নিজেদের সৈন্য সরিয়ে নিতে শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এমনকি সিদ্ধান্তটির তীব্র সমালোচনা করেছেন ট্রাম্পের রিপাবলিকান মিত্ররাও।

যদিও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার সিদ্ধান্তে অনড় থেকে তুরস্ককে সতর্ক করে দিয়েছেন। টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘তুরস্কের অর্থনীতিকে আমরা ধ্বংস ও বিলুপ্ত করে দিতে পারি। যা অবশ্যই আমরা করতে পারি। কেননা সিরিয়ায় তুর্কি হামলা আমরা কখনোই বরদাস্ত করব না।’

যদিও এরই মধ্যে তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগান এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আঙ্কারার প্রধান লক্ষ্য হলো সীমান্ত এলাকায় অবস্থানরত কুর্দি যোদ্ধাদের সঙ্গে লড়াই করা। যার মাধ্যমে তুরস্কে বসবাসরত প্রায় ৩৬ লাখ সিরীয় শরণার্থীর মধ্যে অন্তত ২৬ লাখের জন্য একটি নিরাপদ নগরী গড়ে তোলা।’

অপর দিকে হোয়াইট হাউস থেকে পাঠানো বিবৃতিতে বলা হয়, তুরস্কের এই অভিযানে মার্কিনবাহিনীর কোনো সমর্থন কিংবা সম্পৃক্ততা থাকবে না। তাছাড়া এলাকাটিতে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাসদস্যরাও তখন অবস্থান করবে না। 

বিবৃতিতে মার্কিন প্রেস সেক্রেটারি স্টিফেন গ্রিশাম বলেছেন, ‘আইএস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনীর চলমান অভিযানে বন্দি বিদেশি যোদ্ধাদের নিজেদের হেফাজতে নিতেই তুরস্কের এই কার্যক্রম।’

আরও পড়ুন :- সিরিয়ায় সামরিক অভিযান চালাবে তুরস্ক, দাবি যুক্তরাষ্ট্রের

বিশ্লেষকদের মতে, যুদ্ধবিধ্বস্ত এই দেশটিতে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় এক হাজারের অধিক সেনা মোতায়েন রয়েছে। তারা মূলত অঞ্চলটিতে আইএসবিরোধী লড়াইয়ে আসাদবিরোধী বিদ্রোহীদের সঙ্গে কাজ করছে। প্রায় ১০ বছর যাবত চলা গৃহযুদ্ধ অবসানের অংশ হিসেবে সিরিয়া থেকে অনেক আগেই মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড