• বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই ২০২০, ১ শ্রাবণ ১৪২৭  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বিজেপির সাবেক মন্ত্রীর বিরুদ্ধে এবার ধর্ষণের অভিযোগ!

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:৪৭
ভারতের সাবেক মন্ত্রী
ভারতের সাবেক মন্ত্রী ও বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা স্বামী চিন্ময়ানন্দ। (ছবিসূত্র : এনডিটিভি)

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের সাবেক মন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা স্বামী চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে টানা ধর্ষণ ও তা ক্যামেরাবন্দি করে ব্ল্যাকমেল করার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) উত্তরপ্রদেশের আইন বিভাগে অধ্যয়নরত সেই ছাত্রীর করা অভিযোগের প্রমাণ স্বরূপ একটি ভিডিও চিত্র ইতোমধ্যে পুলিশের কাছে জমা দিয়েছেন তারই এক বন্ধু।

সূত্রের বরাতে গণমাধ্যম 'এনডিটিভি' জানায়, সুপ্রিম কোর্ট নিয়োজিত বিশেষ তদন্ত কর্মকর্তাদের হাতে এরই মধ্যে সেই পেনড্রাইভটি তুলে দিয়েছেন নির্যাতিতার বন্ধু। তাছাড়া নির্যাতনের শিকার তরুণীকে টানা ১৫ ঘণ্টা যাবত জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

অনুসন্ধানী দলের দাবি, চশমায় লাগানো একটি ক্যামেরার সাহায্যে সেই তরুণী ঘটনার একটি ভিডিও ধারণ করে রেখেছিলেন। ২৩ বছর বয়সী সেই শিক্ষার্থীর অভিযোগ, সাবেক মন্ত্রী চিন্ময়ানন্দ তাকে এক বছর যাবত ধর্ষণ করেছেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন এই অভিযুক্ত। তরুণীর দাবি, প্রথমে ভিডিও দেখিয়ে তাকে বারংবার ব্ল্যাকমেল করেছিলেন মন্ত্রী চিন্ময়ানন্দ।

গণমাধ্যমের দাবি, ১২ পৃষ্ঠার সেই অভিযোগ পত্রে নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থী বলেন- '৭৩ বছর বয়সী সাবেক মন্ত্রী চিন্ময়ানন্দের সঙ্গে আমার প্রথম সাক্ষাৎ গত বছরের জুনে। তখন আমি যে কল‌েজে আইন বিভাগে পড়ার জন্য ভর্তি হই; চিন্ময়ানন্দ সেই কলেজের পরিচালক ছিলেন।

ছাত্রীর অভিযোগ, প্রথমে চিন্ময়ানন্দ তার ফোন নম্বর নেন এবং সেখানে তার ভর্তির ব্যবস্থা করে দেন। পরে তাকে ফোন করে কলেজের লাইব্রেরিতে পাঁচ হাজার টাকা বেতনের একটি চাকরিরও প্রস্তাব দেন। তরুণীর দাবি, পরিবার অত্যন্ত দরিদ্র থাকায় তিনি তখন সেই চাকরিটি করতে শুরু করেন।

আরও পড়ুন :- কাশ্মীরি রেডিওতে বাজছে পাক সেনাদের পাঠানো সংকেত

গত বছরের অক্টোবরে সেই তরুণীকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হোস্টেলে চলে আসার জন্য নির্দেশ দেন চিন্ময়ানন্দ। এমনকি পরবর্তীতে তাকে নিজের আশ্রমে আসার জন্য আহ্বান জানানো হয়। এরপরই হোস্টেলের বাথরুমে লাগানো ক্যামেরায় ধারণকৃত তরুণীর স্নানের ভিডিও দেখিয়ে চিন্ময়ানন্দ তাকে সেটি ভাইরাল করে দেওয়ারও হুমকি দেন। মূলত এর পরই তাকে বারংবার ধর্ষণ করা হয়।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: 02-9110584, +8801907484800

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড