• বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬  |   ৩৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

ইরানের ওপরে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আহ্বান চীনের

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১৫:৩৫
রুহানি ও চীনের প্রেসিডেন্ট
ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। (ছবিসূত্র : দ্য চায়না পোস্ট)

মধ্যপ্রাচ্যের তেল সমৃদ্ধ দেশ ইরানের পরমাণু কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে তেহরানের ওপর পূর্বে আরোপিত মার্কিন নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে এশিয়ার পরাশক্তি চীন। সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনইং নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন প্রশাসনের প্রতি এ আহ্বান জানান। 

তিনি বলেছেন, 'আমরা বিশ্বাস করি যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগের কারণেই তেহরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে চলমান উত্তেজনাটির সৃষ্টি হয়েছে। ট্রাম্প প্রশাসনের উচিত যে কোনো ভুল পদ্ধতি বাদ দিয়ে এমন একতরফা নিষেধাজ্ঞা প্রয়োগের নীতি পরিহার করা।'

সংবাদ ব্রিফিংয়ে হুয়া চুনইং আরও বলেন, 'যেসব দেশ ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা চুক্তি অনুসরণ করছে তাদের উচিত এবার সমঝোতা কার্যকর ও পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করা।' 

আশা প্রকাশ করে তিনি এও বলেছিলেন, 'পরমাণু সমঝোতার অংশ হিসেবে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষই খুব শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে একটি আনুষ্ঠানিক বৈঠকে বসবে। যেখানে ইরানের পরমাণু পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করা হবে।' 

তার মতে, 'চলমান উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা ও উত্তেজনা নিরসনে আমরা এর যৌথ প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখব।'

এ দিকে, তেহরানের কাছ থেকে বেইজিংয়ের অব্যাহতভাবে তেল ক্রয়ের কারণে মার্কিন জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ড্যান ব্রুলেট বিষয়টিতে ভীষণ দুঃখ এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, 'চীনের এ পদক্ষেপ অত্যন্ত উদ্বেগজনক। যা যুক্তরাষ্ট্র কখনোই মেনে নিবে না।'

ড্যান ব্রুলেটের মতে, 'ওয়াশিংটন চেষ্টা করছে তেহরানের ওপর আরও বেশি নিষেধাজ্ঞা আরোপের মাধ্যমে তাদের তেল রপ্তানি শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনতে। যদিও চীনা প্রশাসন ও সেখানকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ইরানের কাছ থেকে তেল কেনা অব্যাহত রেখে প্রচেষ্টাটি বানচাল করছে।' 

এর আগে ২০১৫ সালে ইরানের পরমাণু কর্মসূচি কমানোর জন্য তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নেতৃত্বে বিশ্বের ক্ষমতাধর ছয় দেশের সঙ্গে একটি চুক্তি হয়েছিল। যেখানে শর্ত ছিল ইরান তার পরমাণু কর্মসূচি কমিয়ে আনবে, যার বিনিময়ে তাদের ওপর আরোপিত সকল অবরোধ ক্রমশ তুলে নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন :- ইরানি তেল কিনলেই নিষেধাজ্ঞা : যুক্তরাষ্ট্রের হুঁশিয়ারি

যদিও পরবর্তীতে গত বছরের ৮ মে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে নিয়ে একে একটি অকার্যকর চুক্তি বলে মন্তব্য করেন। একই সঙ্গে তিনি তেহরানের তেল বিক্রিতে অতিরিক্ত নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করেন; যা এখনো অব্যাহত আছে। মূলত এরপর থেকে গত এক বছরে ইরানের অপরিশোধিত তেল রপ্তানি ৮০ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মো: তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড