• বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

দেড় বছর ধরে কিশোরীকে পিতা-পুত্রসহ ৬ জনের গণধর্ষণ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৩ জুলাই ২০১৯, ১৭:০৭
ভারতে গণধর্ষণ
ছবি : সংগৃহীত

পৃথিবীতে যে কয়েকটি অপরাধকে অমার্জনীয় হিসেবে রাখা উচিত, ধর্ষণ তাদের ভেতর শীর্ষে। দেড় বছর ধরে ধর্ষণের ব্যাধিতে মুমূর্ষু ভারতের এক দরিদ্র কিশোরীকে পিতাপুত্রসহ ৬ জন গণধর্ষণ করতে থাকে। মা হারা ১৬ বছরের ওই কিশোরীকে গণধর্ষণ করায় অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছে এক নাবালক 'পুরুষ'ও, যুবক হওয়ার আগেই যে পুরুষতান্ত্রিক এই মরণব্যাধিতে আক্রান্ত হয়েছে।

ভারতের ভোপালের ইনদওরে ১৬ বছরের এই কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্তদের মধ্যে রয়েছে বছর পঞ্চাশের এক ঠিকাদার, তার ছেলে, ভাইয়ের ছেলে ও আরও তিন জন। কিশোরীর বাবা এক বহুতল ভবনের নিরাপত্তারক্ষী হিসেবে কর্মরত, মা মারা গেলে ছোটবোনকে নিয়ে বাবা কাজে চলে যেতেন।

একদিন এক মাঝবয়সী ঠিকাদার টাকার বিনিময়ে তার ছেলেমেয়েদের দেখাশোনা করার প্রস্তাব দেয় ঐ কিশোরীকে। বাবা কাজে বেরোলেই আসত অভিযুক্ত ঠিকাদার, এক সময়ে মেয়েটি রাজিও হয় কাজে। কিশোরীর অভিযোগ, ঠিকাদারের বাড়িতে যাতায়াত শুরু হওয়ার পরে তাকে ফোনে অশ্নীল ছবি দেখিয়ে ধর্ষণ করত ওই ব্যক্তি। 

শুধু ওই মধ্যবয়স্ক পিতাই নয়, তার ২৩ বছরের ছেলেও যৌন নির্যাতন চালায় মেয়েটির ওপর। কয়েক সপ্তাহ বাদে ঠিকাদারের ভাই এর নাবালক ছেলেকে সব জানিয়ে তার কাছে সাহায্য চায় কিশোরী। কিন্তু, নাবালক সেই ছেলেটিও কিশোরীকে ধর্ষণ করে। শুধু তাই নয়, নাবালক 'পুরুষটি'র সঙ্গে যোগ দেয় আরও তিন প্রতিবেশী যুবক।

এরপর নিয়মিতভাবে চলতে থাকে ধর্ষণ-গণধর্ষণ, এমন লাগাতার নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে শেষমেশ নিজের বাবাকে সব খুলে বলে মেয়েটি। খবর পেয়ে পুলিশ ছয় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে। পুরুষতান্ত্রিক সমাজে নাবালকের হাতেও নিরাপদ নয় কোনো কিশোরী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড