• মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

পাকিস্তানের হাসপাতাল এবং চেকপোস্টে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ৭

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২১ জুলাই ২০১৯, ১৩:৩২
পাকিস্তানে আত্মঘাতী হামলা
জঙ্গি হামলায় নিহতদের মরদেহ হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন কর্মীরা। (ছবিসূত্র : দ্য ইন্ডিয়া টুডে)

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখুয়া প্রদেশের একটি পুলিশ চেকপোস্টে বন্দুক হামলার পর পার্শ্ববর্তী হাসপাতালে আত্মঘাতী বোমা হামলা চালিয়েছে জঙ্গিরা। এতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চার পুলিশসহ প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত সাতজন। তাছাড়া আরও বেশ কিছু বেসামরিক আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

কর্তৃপক্ষের বরাতে পাক গণমাধ্যম 'দ্য ডন' জানায়, রবিবার (২১ জুলাই) স্থানীয় সময় সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে প্রদেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ডেরা ইসমাইল খান জেলার একটি পুলিশ চেকপোস্ট ও হাসপাতালে হামলাটি চালানো হয়। 

প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, শুরুতে পুলিশের চেকপোস্টে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা বন্দুক হামলাটি চালায়। এরপর হতাহতদের পার্শ্ববর্তী যে হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয় সেখানে একটি আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

হামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জেলা পুলিশের মুখপাত্র সালীম রিয়াজ বলেন, 'রবিবার আনুমানিক সকাল পৌনে আটটার দিকে চারটি মোটরসাইকেল চেপে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা কোটলা চেয়েডান পুলিশ চেকপোস্টে এসে অতর্কিতভাবে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। এতে ঘটনাস্থলেই দুই পুলিশের মৃত্যু হয়।'

পুলিশের এ মুখপাত্র আরও বলেন, 'বন্দুক হামলায় হতাহতদের তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে পাশের একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়। তখন সেখানেও জঙ্গিরা আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে দ্বিতীয় হামলায় তিন বেসামরিকসহ দুই জন পুলিশ সদস্য প্রাণ হারান। এবারের হামলায় এখন পর্যন্ত সাতজন নিহত ছাড়াও আরও কমপক্ষে ২৪ জন আহত হয়েছেন।'

আরও পড়ুন :- ব্রিটেনের তেল ট্যাংকার আটকের দুঃসাহসিক ভিডিও প্রকাশ

পুলিশ কর্মকর্তা সালীম রিয়াজ বলেন, 'প্রাথমিক তদন্তে হামলাটি একটি পূর্বপরিকল্পিত বলে মনে হচ্ছে। তাছাড়া সম্ভবত একজন নারী হাসপাতালের বোমা বিস্ফোরণটি ঘটিয়েছিলেন। মর্মান্তিক এ হামলার দায় এখনো কেউ বা কোনো সংগঠন স্বীকার না করলেও এটি একটি জঙ্গি হামলা বলে ধারণা করা হচ্ছে।'

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড