• রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন

আইন স্থগিতের পরও হংকংয়ে বিক্ষোভ অব্যাহত

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৬ জুন ২০১৯, ১২:৩০
হংকংয়ে বিক্ষোভ
হংকংয়ে আইন বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন জনগণ। (ছবিসূত্র : সিএনএন)

হংকংয়ে ব্যাপক গণবিক্ষোভের মুখে চীন প্রস্তাবিত আসামি প্রত্যর্পণ বা বহিসমর্পণ বিষয়ক বিতর্কিত আইন স্থগিত করেছে ক্যারি ল্যাম প্রশাসন। যদিও এর পরও আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। 

রবিবার (১৬ জুন) স্থানীয় সময় সকালে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া হাজারো জনতার সামনে নেতারা তাদের পরিকল্পিত সমাবেশ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন এ সময় তারা চীন-পন্থী হংকংয়ের শাসক ক্যারি ল্যামের পদত্যাগ এবং বিলের কার্যক্রম স্থায়ীভাবে বাতিলের দাবি করেন।

বিক্ষোভের সর্বশেষ অবস্থান সম্পর্কে 'এএফপি' এক প্রতিবেদনে জানায়, জনগণের ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে হংকং সরকার অনেকটা চাপে পড়েই প্রস্তাবিত 'প্রত্যর্পণ বিল' স্থগিত করেছে। যদিও বিক্ষোভকারী নেতৃবৃন্দের দাবি, দেশের ভেতরে বিভেদ সৃষ্টিকারী এই আইনটি পুরোপুরি বাতিল করলেই কেবল তাদের এই আন্দোলন থামানো হবে।

এ দিকে সিভিল হিউম্যান রাইটস ফ্রন্টের প্রধান জিমি শাম সাংবাদিকদের বলেন, 'আমরা সরকারের কাছে এ তথ্যই পাঠাতে চাই যে, হংকংয়ের জনগণ এবারের আন্দোলনকে থামাতে চায় না। তাই এ আইন পুরোপুরি প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত তারা সরকারের বিরুদ্ধে এই আন্দোলন চালিয়ে যাবে।'

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া জনতার সামনে তিনি বলেন, 'আমাদের আগের পরিকল্পনা অনুযায়ী আজকের (রবিবার) সমাবেশ চলবে; এবং সেই একইভাবে আগামীতেও আমাদের এই আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হবে।'

এ দিকে গত শনিবার (১৫ জুন) এক সংবাদ বিবৃতিতে ক্যারি ল্যাম বলেন, 'বিক্ষোভের পর বিগত দুই দিনের অভ্যন্তরীণ আলোচনায় প্রস্তাবিত আইন সংশোধনীর প্রচেষ্টা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হংকং সরকার। এই আইনের সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য আরও সময় নেওয়ার পক্ষে বেইজিং থেকে সমর্থন পাওয়া গেছে।'

তিনি আরও বলেন, 'এই বিলের কারণে সমাজে নানা বিভেদ দেখা দিয়েছে। তবে বিক্ষোভকারীদের দাবি অনুযায়ী আইনটি একেবারে বাদ দেওয়া যাবে না। কারণ অধিকাংশ আইন প্রণেতা এখন পর্যন্ত এই আইনের পক্ষেই নিজেদের মত দিয়েছেন।'

এর আগে গত শুক্রবার রাতে উপদেষ্টাদের সঙ্গে এক জরুরি বৈঠক করেন ক্যারি ল্যাম। যেখানে তার দলের জ্যেষ্ঠ রাজনৈতিক নেতারা বিক্ষোভ প্রশমিত করতে বিলটি থেকে সরে দাঁড়াতে তাকে পরামর্শ দেন।

আরও পড়ুন :- আসামি প্রত্যর্পণ আইন স্থগিত করেছে হংকং

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, হংকংয়ের বেইজিং-পন্থি শাসকদের প্রস্তাবিত এই বিলে সন্দেহভাজন অপরাধীকে চীন এবং তাইওয়ানে ফেরত পাঠানোর পথ সুগম করা হচ্ছে। যার মাধ্যমে দেশের আইনকে দুর্বল এবং মানবাধিকার হরণ হবে। তারা মনে করছেন, বিলটি পাস হলে তা হংকংয়ের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে চীনের হস্তক্ষেপ বৃদ্ধি পাবে। তাই দেশের স্বার্থে বিলটি পুরোপুরি বাতিল করাই সরকারের জন্য উত্তম বলে দাবি তাদের।

ওডি/কেএইচআর

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড