• মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন

নয়াদিল্লিতে সংবাদ সম্মেলন করেন অমিত শাহ

'মূর্তি ছিল ঘরের ভেতর। তা হলে তালা খুলল কে?'

'কাল সিআরপিএফ না থাকলে বাঁচতাম না'

  অধিকার ডেস্ক    ১৫ মে ২০১৯, ১৪:৩৮

ভারতের লোকসভা নির্বাচন
ছবি : সংগৃহীত

বিদ্যাসাগরের ভাস্কর্য ভাঙায় চরম রাজনৈতিক সংকট তৈরি হয়েছে ভারতের রাজনীতিতে। বাংলা সাহিত্যের এমন কি সমগ্র ভারতবর্ষের প্রবাদ পুরুষ ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর, তার স্মৃতি স্মরণে যে ভাস্কর্য বানানো হয়েছিল, মঙ্গলবার বিজেপি সভাপতির রোডশো চলাকালীন ভাঙা হয়। কারা এই ন্যক্কারজনক কাজ করেছে তার প্রমাণ না মিললেও তৃণমূল নেত্রী অভিযুক্ত করেছে ক্ষমতাসীন বিজেপি সভাপতির দিকেই। তার বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়েছে এফআইআর ও, এবার তিনি আঙ্গুল তুললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতার বিরুদ্ধে। তিনি বলেন, মমতা চাইলে এই হিংসার তদন্ত করাতে পারেন। নিরপেক্ষ সংস্থাকে দিয়ে তদন্ত করাতে পারেন।

তিনি আরও বলেন, বাংলায় নির্বাচন কমিশনের পক্ষপাতিত্ব কেন? প্রথম থেকেই পক্ষপাতিত্ব করছে নির্বাচন কমিশন। কাল সিআরপিএফ না থাকলে বাঁচতাম না। বাংলার মানুষের আক্রোশ দেখেছি। বাংলায় যে পরিস্থিতি চলছে তার জন্য দায়ী মমতা দিদি। আমার বিরুদ্ধে এফআইআর হয়েছে। আমরা ভয় পাই না। এতে বিজেপি কর্মীরা পিছিয়ে যাবে না। ৭ দফার পর দেশে ৩০০র বেশি আসন জিতে সরকার গড়বে বিজেপি।

বাংলায় ২৩টির বেশি আসন জিতবে বিজেপি, এমন আশা ব্যক্ত করে অমিত বলেন, যত হিংসার পাঁক ছড়াবেন, ততই পদ্মফুল ফুটবে। কেন মমতার প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়নি? দুদিন আগেই মমতা বলেছিলেন, বদলা নেব। ৬ দফা লোকসভা ভোটে কারচুপি করেছে তৃণমূল। যেখানে গণ্ডগোল হয়েছে, সেখানে চুপ ছিল নির্বাচন কমিশন।

ভোট ব্যাংকের স্বার্থে মূর্তি ভেঙেছে তৃণমূল, এমন অভিযোগ এনে অমিতের দাবি, যত হিংসার রাস্তা তৈরি করবেন, ততই ভারতীয় জনতা পার্টির জিত পাকা হবে। বিজেপির র‌্যালিতে কেরোসিন বোমা ছোড়া হয়। কলেজের গেট বন্ধ থাকলে মূর্তি ভাঙল কে? পঞ্চম দফার পর তৃণমূল বুঝে গিয়েছে ওরা হারতে চলেছে, তাই এমন কাণ্ড ঘটাচ্ছে। হাঙ্গামরা পরও বিদ্যাসাগরের মূর্তি অবিকৃত ছিল।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় ৬০ জনকে খুন করা হয়েছে, তৃণমূলের গুন্ডারাই বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে এমনটাই দাবি বিজেপি সভাপতির। তিনি বলেন, বিজেপির ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে। মমতার লোকেরাই ভেঙেছে, সহানুভূতি আদায়ের জন্য। বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হচ্ছে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে। কিন্তু কলেজের ভেতরে কারা ছিল? মূর্তি ছিল ঘরের ভেতর। তা হলে তালা খুলল কে? পুলিশের সামনেই বিজেপির ফ্লেক্স ছেঁড়া হয়। ষষ্ঠ দফার প্রতিটিতেই বাংলায় হিংসা হয়েছে। কাল বিজেপির রোড শো ছিল। শো এর তিন ঘণ্টা আগে বিজেপির পোস্টার হঠানোর চেষ্টা হয়। পুলিশ চুপ ছিল। বাংলায় হিংসার কারণ তৃণমূল কংগ্রেস। নির্বাচনে একমাত্র বাংলায় হিংসা হয়েছে।

বিজেপির সর্বভারতীয় অমিত শাহের রোড শোকে ঘিরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের বিধান সরণি। অমিত শাহের র‌্যালি ওই এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় টিএমসিপি ও বিজেপির সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। মঙ্গলবারের এই ঘটনা নিয়ে বুধবার (১৫ মে) নয়াদিল্লিতে সাংবাদিক বৈঠক করবেন।

বিজেপির অভিযোগ, মিছিলের ওপর হামলা চালায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের লোকেরা। তার পরই পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। পাল্টা হামলা চালানো, বিদ্যাসাগর কলেজ ক্যাম্পাসে ঢুকে ভাঙচুর চালানো, বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙে দেয়ার অভিযোগ ওঠে বিজেপির বিরুদ্ধে।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক রাজনৈতিক কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি শুরু হয়ে গিয়েছে। সঙ্গে দোষারোপ, পাল্টা দোষারোপের পর্বও শুরু হয়ে গিয়েছে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছে বিজেপি। বুধবার বিজেপির বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে পাল্টা অভিযোগ জানাতে চলেছে তৃণমূল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"location";s:[0-9]+:"ভারত".*')) AND id<>63551 ORDER BY id DESC LIMIT 0,5

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড