• শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০১৯, ৮ চৈত্র ১৪২৫  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন

যাত্রার পরপরই বিকল ভারতের দ্রুততম ট্রেন

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৯:০৭

ভারতের দ্রুততম ট্রেন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস'
ভারতের দ্রুততম ট্রেন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস'কে প্লাটফর্ম থেকে বিদায় জানাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। (ছবি : এনডিটিভি)

যাত্রা শুরুর এক দিনের মাথায় যান্ত্রিক গোলযোগে বিকল হয়ে পড়ল ভারতের সবচেয়ে দ্রুতগতির ট্রেন ‘বন্দে ভারত’। শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় সকালে বারাণসী থেকে নয়াদিল্লি ফেরার পথে আচমকা বিকল হয়ে পড়ে ট্রেনটি। 

উত্তর প্রদেশের তুন্দলা জংশন থেকে যাত্রা শুরুর পরপরই ট্রেনটি বিকল হয়ে পড়ে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। ভারতীয় রেলওয়ে কর্মকর্তাদের দেওয়া তথ্যের বরাতে করা প্রতিবেদনে এই ট্রেন বিকলের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির সংবাদমাধ্যম জি নিউজ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির উত্তর প্রদেশ রাজ্যের তুন্দলা জংশন থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরবর্তী চামরোলা স্টেশন এলাকায় আচমকা ট্রেনটির চাকা পিছলে যেতে শুরু করে। একইসঙ্গে শেষদিকের কামরাগুলোতে বিকট শব্দ শুরু হয়। ট্রেনের চালক বিষয়টি বুজতে পেরে তাৎক্ষণিক কমিয়ে ফেলেন ট্রেনের গতি। এরপরও শব্দ ক্রমাগত বাড়তে থাকলে ট্রেনটি থামাতে বাধ্য হন তিনি। 

এ সময় ট্রেনের যান্ত্রিক ত্রুটি মেরামত করতে সেখানে অবস্থানরত ইঞ্জিনিয়াররা প্রদেশটির রেলওয়ে প্রিন্সিপাল চিফ ইঞ্জিনিয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। 

ট্রেনের ইঞ্জিনিয়াররা জানান, সম্ভবত গবাদি পশু কাটা পড়ায় ট্রেনের চাকা এবং পার্কিং ব্রেকে মৃদু সমস্যা দেখা দিয়েছে। অবশ্য এর পর সেখানেই প্রায় তিন ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকার পর ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’ নামে দ্রুত গতির এই ট্রেনটি পুনরায় দিল্লির উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে।

উল্লেখ্য, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স্বপ্নের ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্পের আওতায় ভারতে নির্মাণ করা প্রথম দ্রুতগতির ‘ট্রেন-১৮’ এটি। যদিও পরবর্তীতে রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল এই ট্রেনের নামকরণ করেন ‘বন্দে ভারত এক্সপ্রেস’। ট্রেনটি ঘণ্টায় প্রায় ১৬০ কিলোমিটার গতিবেগে ছুটতে সক্ষম।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড