• সোমবার, ২৭ মে ২০১৯, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন

রোহিঙ্গাদের সহায়তায় ৬০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:২৩

রোহিঙ্গাদের মার্কিন সহায়তা
রোহিঙ্গাদের জন্য ৬ কোটি ডলার দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। (ছবি : সম্পাদিত)

মিয়ানমার থেকে নির্যাতনের শিকার হয়ে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রো‌হিঙ্গা শরণার্থী‌দের জন্য প্রায় ৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) জেনেভায় অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) এবং আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) এক যৌথ বৈঠকের পর যুক্তরাষ্ট্র এই অনুদান প্রদানের ঘোষণা দেয়। এ দিন মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া বিবৃতির বরাতে করা প্রতিবেদনে রোহিঙ্গাদের জন্য এই সহায়তার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি বছর রোহিঙ্গাদের জন্য খরচ বাবদ ৯২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা প্রয়োজন বলে জাতিসংঘের ঘোষণার পরপরই ট্রাম্প প্রশাসন এই অনুদানের প্রকৃত পরিমাণ জানালো।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সেই বিবৃতিতে বলা হয়, ‘চলমান রোহিঙ্গা সঙ্কট নিরসনে যুক্তরাষ্ট্র সরকার ৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের আর্থিক সহায়তা প্রদান করবে। যার মাধ্যমে বাংলাদেশসহ এই সঙ্কট মোকাবিলায় নিয়োজিত বৈশ্বিক উন্নয়ন সংস্থা এবং বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোর কিছুটা হলেও সুবিধা হবে।’

বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, এই রো‌হিঙ্গা সংকট কাটিয়ে ওঠার জন্য গত ২০১৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৪৪৯ মিলিয়ন ডলার মূল্যের আর্থিক সহায়তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যার মধ্য থেকে ইতোমধ্যে ৪০৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের সুরক্ষায় খরচ করা হয়েছে।

এ দিকে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) জানায়, চলতি বছরের জন্য প্রয়োজনীয় তহবিলের অর্ধেকের বেশি দরকার পড়বে খাদ্য, পানি, পয়ঃনিষ্কাশন এবং আশ্রয়ের মতো গুরুত্বপূর্ণ সাহায্য সেবায়। তাছাড়া তহবিল আবেদনে আরও আছে- স্বাস্থ্য, এলাকা ব্যবস্থাপনা, শিশুসহ অন্যদের রক্ষা, যৌন ও লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা রোধ, শিক্ষা এবং পুষ্টির মতো গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন দিক।

অপরদিকে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) মহাপরিচালক অ্যান্তোনিও ভিটোরিনো বলেছেন, ‘বাংলাদেশ সরকারের একাত্মতা এবং মানবিক সাহায্যকারীদের অঙ্গীকার ২০১৮ সালে প্রথম জয়েন্ট রেসপন্স প্ল্যান সফলভাবে বাস্তবায়ন সম্ভব করেছে। মূলত সে ক্ষেত্রে এগিয়ে যেতে আমরা এসব জনগোষ্ঠীর ভীষণ প্রয়োজনগুলো পূরণে আমাদের প্রতিশ্রুতির পুনরাবৃত্তি করছি। বর্তমানে এ প্রচেষ্টায় নিজ নিজ সমর্থন প্রদান করতে আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানাই।’

উল্লেখ্য, জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা, আন্তর্জাতিক এবং জাতীয় এনজিওসহ সরকারি বিভিন্ন সংস্থা ছাড়াও মোট ১৩২টি অংশীদারকে সঙ্গে নিয়ে এই যৌথ পরিকল্পনাটি তৈরি করা হয়। যার প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে উদ্বাস্তু নারী, পুরুষ এবং শিশুদের নিরাপত্তা ও জীবন রক্ষাকারী সহায়তা প্রদান করা। একইসঙ্গে তাদের সামাজিক সংযোগ বৃদ্ধি করাও হচ্ছে এই সংস্থাগুলোর অন্যতম উদ্দেশ্য।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড