• বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৮ ফাল্গুন ১৪২৫  |   ২৫ °সে
  • বেটা ভার্সন

'বিবিসি'র সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে

চরমপন্থি ট্রাম্পই ভেনেজুয়েলা সংকটের কারণ : মাদুরো

  অধিকার ডেস্ক    ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:৩১

ভেনেজুয়েলা
ছবি : সংগৃহীত

দক্ষিণ আমেরিকার ভেনেজুয়েলা সংকটের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে দায়ী করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ভেনেজুয়েলা দখল করার জন্য তারা যুদ্ধ উস্কে দিচ্ছে। 'বিবিসি’র সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে মাদুরো এসব কথা বলেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারকে 'চরমপন্থিদের চক্র' বলে আখ্যা দিয়েছেন। ওই সাক্ষাৎকারে মাদুরো বলেন, ভেনেজুয়েলায় মানবিক ত্রাণ ঢুকতে দেবেন না। কারণ, ত্রাণ পাঠানো একটি রাজনৈতিক চাল। এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের পথ খুলে যাবে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলোর সরকার ভেনেজুয়েলার স্বঘোষিত অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ও বিরোধীদলীয় নেতা জুয়ান গুয়াদোকে সমর্থন দিয়েছে। এ পরিস্থিতিতে প্রেসিডেন্ট মাদুরো ঘরে-বাইরে দুদিক থেকেই আগাম প্রেসিডেন্ট নির্বাচন দেয়ার চাপের মুখে আছেন।

'বিবিসি'কে দেয়া সাক্ষাৎকারে মাদুরো যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক যুদ্ধ চালানোর অভিযোগ করেন এবং হোয়াইট হাউজের এই চরমপন্থি চক্রের পতন কামনা করেন। ভেনেজুয়েলায় 'ত্রাণ পাঠানোর' মতো সংকট দেখা দেয়নি দাবি করে মাদুরো বলেছেন, বিদেশি মানবিক ত্রাণের উদ্যোগ একটা ভণিতা। তাদের উচ্ছিষ্ট, বিষাক্ত খাবার আমাদের চাই না।

মাদুরোর এমন দাবির সঙ্গে বাস্তব চিত্রের মিল খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না; দেশটি অর্থনৈতিক এবং মানবিক সংকটে জর্জরিত। পরিস্থিতির অবনতিতে দলে দলে মানুষ ভেনেজুয়েলা ছাড়ছে। যদিও অর্থনৈতিক দুর্দশার জন্য মাদুরো যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞাকেই দায়ী করেছেন। তিনি বলেন, ভেনেজুয়েলায় মানবিক সংকট সৃষ্টি করতে চাইছে যুক্তরাষ্ট্র। যাতে তারা দেশটিতে সামরিক হস্তক্ষেপ করতে পারে।

দেশটির সাবেক প্রধান হুগো শ্যাভেজ ২০১৩ সালে ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলে নিকোলাস মাদুরো হন তার উত্তরসূরি। মাদুরো শ্যাভেজের অনুসারী, শ্যাভেজের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন ২০০৬ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত। শেষে এক বছর শ্যাভেজের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্বপালন করেন। শ্যাভেজের মৃত্যুর পর শাসনতন্ত্র অনুযায়ী তিনি প্রেসিডেন্টের কার্যভার গ্রহণ করেন।

এ দিকে, ভেনেজুয়েলার বিরোধীদলীয় নেতা জুয়ান গুয়াদো গত মাসে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সমর্থন নিয়ে নিজেকে ভেনেজুয়েলার অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করলে দেশটিতে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা দেখা দেয়। সরকার গুয়াদোর ওই ঘোষণাকে ক্যু করার প্রচেষ্টা হিসেবে অভিহিত করেছে। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গুয়াদোকে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পাশাপাশি দেশটিতে প্রয়োজনে সামরিক হস্তক্ষেপ করারও হুমকি দিয়েছেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ওই অবস্থান ঘোষণা সত্ত্বেও চীন, রাশিয়া, ইরান, তুরস্ক ও মেক্সিকোসহ আরও কিছু দেশ ভেনেজুয়েলার নিকোলাস মাদুরো সরকারকে সমর্থন জানিয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড