• রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬  |   ৩২ °সে
  • বেটা ভার্সন

আরেকটা বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে দেব না : জারদারি

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:০৫
আসিফ আলি জারদারি
পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারি। (ছবি : দ্য নিউজ)

পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) কো-চেয়ারম্যান আসিফ আলি জারদারি বলেছেন, ‘আমার দল কখনই পাকিস্তানে নতুন করে আরও একটি বাংলাদেশ সৃষ্টি হতে দেবে না।’

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দেশটির সিন্ধু প্রদেশের সাঙ্ঘর জেলার তান্দো আদম শহরে সিনেটর ইমামুদ্দিন সৌকিন আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত দর্শকদের উদ্দেশ্যে জারদারি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে পিপিপির এই কো-চেয়ারম্যান বলেছিলেন, ‘স্বাধীনতার পর প্রায় প্রথম তিন দশক যাবত ভারতীয় নেতারা পাকিস্তানকে ভেঙে ফেলার ষড়যন্ত্র করেছিল। পাক মুসলিমরা কংগ্রেস প্রধান মাওলানা আবুল কালাম আজাদকে সম্মান করেন, তবে তিনিও সেই ষড়যন্ত্রকারীদের মধ্যে একজন। এখন এবার আমরা আর একটি বাংলাদেশ তৈরি হতে দেব না।’

পাকিস্তানের সৃষ্টির ইতিহাস বলতে গিয়ে সাবেক এই পাক প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘মাত্র একটি যুদ্ধে জয়ী হয়ে পাকিস্তানের সৃষ্টি হয়নি। বরং আমাদের পূর্বপুরুষরা পাকিস্তান সৃষ্টি করেছেন। রাজনৈতিক আলোচনার মাধ্যমেই পাকিস্তানকে স্বাধীন করেছেন কায়েদ-ই-আজম।’

সাবেক পাক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভু্ট্টোর কথা স্মরণ করে স্বামী জারদারি বলেন, ‘আমার স্ত্রী এই দেশের জন্য কম ত্যাগ করেননি। তাকে ভীষণ কষ্ট সহ্য করে তিলে তিলে দেশটিকে নিয়ে এগুতে হয়েছে। তাছাড়া তার সময়ে পিপিপির নেতাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা দেয়া হয়েছিল। কারণ শাসকরা প্রাদেশিক স্বায়ত্তশাসন সংক্রান্ত সংবিধানের অনুচ্ছেদে সংশোধন করাতে চেয়েছিল। আমাদের সঙ্গে তাদের লড়াই, তাদের যুদ্ধ পাকিস্তানের সম্পদের জন্য, শুধু সিন্ধু প্রদেশের সম্পদের জন্য নয়।’

তিনি এও বলেছেন, ‘দেশের কেন্দ্র সরকারের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব কার্ডিভাস্কুলার ডিজিজ (এনআইসিভিডি), জিন্নাহ পোস্টগ্রাজুয়েট মেডিক্যাল সেন্টার (জেপিএমসি) এবং ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ফর চাইল্ড হেলথ (এনআইসিএস) হচ্ছে প্রাদেশিক স্বায়ত্তশাসন বাতিল চেষ্টা করণের অন্যতম একটি আলামত।’

অনুষ্ঠানে ইমরান খান নেতৃত্বাধীন সরকারের তীব্র সমালোচনা করে জারদারি বলেন, ‘এখন তারা করাচি থেকে সিভিল এভিয়েশন অথরিটিকে ইসলামাবাদে সরিয়ে নিচ্ছে। এতে করাচির বেশিরভাগ লোক চাকরি এবং নিয়ন্ত্রণ হারাবে। ইসলামাবাদে নতুন অফিস চালু করতে পারলে তারা সেখান থেকেও কমিশন খাবে। আর এটাই হচ্ছে তাদের প্রধান পরিকল্পনা।’

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড