• বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯, ৬ আষাঢ় ১৪২৬  |   ২৮ °সে
  • বেটা ভার্সন

তীব্র তুষারপাতে বরফাচ্ছন্ন ইউরোপ, ২০ জনের প্রাণহানি (ভিডিও)

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১৬:৩৬

ইউরোপে তুষারপাত
তীব্র তুষারপাতে বরফাচ্ছন্ন ইউরোপ। (ছবি : সম্পাদিত)

তীব্র তুষারঝড়ের কবলে পড়েছে ইউরোপের বেশিরভাগ দেশ। এ ঘটনায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে কমপক্ষে ২০ জন। সর্বশেষ শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) বুলগেরিয়ায় বরফ ধসে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত দুই স্নোবোর্ডার। 

দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে বলকান অঞ্চলের বিভিন্ন স্কুল ইতোমধ্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তাছাড়া প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে যোগাযোগ ও বিদ্যুৎ সরবরাহ। কর্মকর্তাদের বরাতে এক প্রতিবেদনে এ হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

এ দিকে বুলগেরিয়ান রেডক্রসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় বেলা ১২টার দিকে পিরিন পর্বত থেকে সেই দুই স্নোবোর্ডারের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। আগে থেকে সতর্ক করা সত্ত্বেও সেই দুই স্নোবোর্ডার পর্বতে উপরে ওঠে স্নোবোর্ডিং শুরু করেন। পরে এক আকস্মিক তুষারধসে তাদের দুজনেরই মৃত্যু হয়।

অপরদিকে ভারী তুষারপাতের কারণে ইউরোপের দেশ অস্ট্রিয়া এবং জার্মানিতে ভয়াবহ রকমের তুষারধস হয়েছে। মূলত এর ফলে ফ্রাঙ্কফুর্ট ও মিউনিখ বিমানবন্দরে সব ধরনের বিমান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে।

তাছাড়া জার্মানির মিউনিখের দক্ষিণে লেংগিরিসে বরফ পরিষ্কার করার সময় একজন পরিষ্কারকারী গাড়ির চালকের মৃত্যু হয়েছে। কর্মরত অবস্থায় গাড়িটি একটি বরফের নদীর মধ্যে উল্টে গেলে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এ দুর্ঘটনার বিষয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ঘটনায় বেশ কয়েক ঘণ্টা পর ৪৮ বছর বয়সী সেই গাড়ি চালককে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করা হয়, তবে পরবর্তী সময়ে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

একইসঙ্গে বেশ কয়েক দিন আটকে থাকার পর শুক্রবার ৬৬ জার্মান কিশোরকে একটি পর্বতের গেস্ট হাউস থেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। অস্ট্রিয়ান সেনাবাহিনীর একটি উদ্ধারকারী হেলিকপ্টার সেই কিশোরদের উদ্ধার করে। তারা বর্তমানে সুস্থ আছেন।

তীব্র তুষারপাতের কারণে গাছ উপড়ে যাওয়ার আশঙ্কায় এ দিন অস্ট্রিয়ার সালজবার্গের সকল পার্ক, সরকারি বাগান, খেলাধুলার মাঠ এবং সমাধিস্থল বন্ধ রাখা হয়।

এ দিকে সুইজারল্যান্ড পুলিশের বরাতে ব্রিটেন ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়, বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) দেশটির পূর্বাঞ্চলের এক হোটেলে তীব্র তুষারধসের কারণে তিন ব্যক্তি আহত হয়।

অপরদিকে আটকে পড়া লোকদের উদ্ধার এবং স্থানীয় গ্রাম্য এলাকায় সড়ক পরিষ্কারের জন্য প্রায় দুই হাজারের বেশি সেনা ও অন্যান্য জরুরি উদ্ধারকর্মী মোতায়েন করেছে কর্তৃপক্ষ।

সার্বিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের প্রচারিত সংবাদে বলা হয়, দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বেশ কয়েকটি রাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এ সময় সড়কে বরফ জমা ও পর্বত অঞ্চলের গ্রামগুলোর রাস্তাঘাট বন্ধ হয়ে যাওয়ার ব্যাপারে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

একইসঙ্গে এলাকার অধিকাংশ স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তাছাড়া তীব্র তুষারপাতের কারণে নিজেদের বাড়িতে আটকে পড়া অন্তত ১০ জনকে সেখান থেকে উদ্ধারের চেষ্টা করে যাচ্ছেন উদ্ধারকাজে নিয়োজিত কর্মীরা।

উল্লেখ্য, আবহাওয়া সংশ্লিষ্টদের মতে, ‘ইউরোপের এই দেশগুলোতে আরও প্রায় এক সপ্তাহ যাবত থাকতে পারে এমন ভয়াবহ রকমের তুষারঝড়।’ আর তাই এসব অঞ্চলগুলোতে বসবাসরতদের সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: মোঃ তাজবীর হুসাইন

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ফোন: ০২-৯১১০৫৮৪

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৮-২০১৯

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড