• মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১  |   ২৭ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

সিএএ বিজেপির ভাঁওতা, সাবধান করলেন মমতা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১২ মার্চ ২০২৪, ১৬:৪৩
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতের কেন্দ্র সরকারের চালু-করা নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে নাগরিকদের সতর্ক করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মঙ্গলবার হাবড়ার প্রশাসনিক সভা থেকে মমতা বলেন, একটা কথা মন দিয়ে শুনে নিন! আপনারা কেউ নাগরিকত্বের জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন করবেন না। করলেই আপনাদের নাগরিকত্ব চলে যাবে। আপনাকে বেআইনি অনুপ্রবেশকারী বলবে। আপনার সম্পত্তি কেড়ে নেবে। ওই ফাঁদে খবরদার পা দেবেন না!

২০২০ সালে সিএএ আইন পাশের পর গতকাল (সোমবার) নাগরিকত্ব সংশোধনী সিএএ রুল জারি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সোমবারেই নবান্ন থেকে প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা।

মমতার ক‌থায়, এটা বৈধ কি না, তা নিয়ে আমার যথেষ্ট সন্দেহ আছে। কোনও ক্ল্যারিটি (স্বচ্ছতা) নেই। টোটাল ভাঁওতা।

মমতা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি বাংলার কারও নাগরিকত্ব যেতে দেবেন না। সবাইকে তিনি আশ্রয় দেবেন। মমতা ছাড়া সিএএ বলবৎ করার ক্ষেত্রে বামশাসিত কেরলও একই ভাবে ‘কট্টর’ অবস্থান নিয়েছে। সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নও বলেছেন, তাদের রাজ্যে সিএএ বাস্তবায়িত হতে দেবেন না।

এ বিষয়ে বিজেপির বক্তব্য, কেরল ও বাংলা যে এই অবস্থান নিতে পারে, তা কেন্দ্রীয় সরকারের ধারণার মধ্যেই ছিল। সে কারণেই এই আইন বাস্তবায়িত করার ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের বিশেষ ভূমিকার সুযোগ রাখা হয়নি।

হাবড়ার সভা থেকে মমতা বলেন, ‘‘ভোটের আগে বিজেপি বিভাজনের খেলা খেলতেই এটা করেছে। তা হলে চার বছর বসে রইল কেন? ওরা আবার বাংলাটাকে ভাগ করতে চায়। বাঙালিকে তাড়াতে চায়।’’

এই প্রসঙ্গেই মমতা ২০১৯ সালে আসামের ঘটনার উল্লেখ করেন। তার কথায়, ২০১৯ সালে অসমে এনআরসির নামে ১৯ লক্ষ মানুষের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছিল। তাঁদের মধ্যে ১৩ লক্ষ বাঙালি হিন্দু।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

নির্বাহী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118243, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড