• বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯  |   ৩৩ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

মুসলিমদের বাড়ি ধ্বংসের প্রতিবাদে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১৫ জুন ২০২২, ২১:০৮
বুলডোজার দিয়ে মুসলমানদের বাড়িঘর ভেঙ্গে দেওয়া হচ্ছে
বুলডোজার দিয়ে মুসলমানদের বাড়িঘর ভেঙ্গে দেওয়া হচ্ছে। (ছবি : সংগৃহীত)

ভারতে মুসলমানদের বাড়িঘর এবং ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এতে দেশটির বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। দেশটিতে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বিক্ষোভকারীদের শাস্তি দেওয়ার লক্ষ্যে ‌‌‘বুলডোজার বিচারের’ ক্রমবর্ধমান ধরন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সমালোচকরা।

বিজেপির সাবেক মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও দলটির দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন জিন্দালের মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে নিয়ে করা মন্তব্যের জেরে ভারতের উত্তর প্রদেশে বিক্ষোভ-সহিংসতায় অংশ নেওয়া দুই অভিযুক্তের বাড়িঘর গত শনিবার বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। রবিবারও উত্তর প্রদেশের প্রয়াগরাজ এলাকায় সহিংসতায় জড়িত একজন রাজনীতিকের বাড়ি ভেঙে ফেলে প্রশাসন। এ সময় ব্যাপকসংখ্যক পুলিশের উপস্থিতি দেখা যায় সেখানে।

ভিডিওতে দেখা যায়, বুলডোজার ব্যবহার করে প্রয়াগরাজের রাজনীতিবিদ জাভেদ মোহাম্মদের বাড়ির ফটক এবং বাইরের প্রাচীর ভেঙে ফেলা হচ্ছে। পুলিশ বলছে, শুক্রবার প্রয়াগরাজে বিক্ষোভ-সহিংসতায় যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন তাদের অন্যতম ‘মূলহোতা’ রাজনীতিক জাভেদ। পরে তাকে গ্রেফতার করে উত্তর প্রদেশ পুলিশ।

প্রয়াগরাজে শুক্রবার জুমার নামাজের পর আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সাথে বড় ধরনের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল এবং পাথর নিক্ষেপ করেন বিক্ষোভকারীরা। প্রয়াগরাজের সহিংস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৫ ঘণ্টারও বেশি সময় লাগে পুলিশের।

গত এপ্রিলে নয়াদিল্লি কর্তৃপক্ষ সাম্প্রদায়িক সহিংসতার পর সেখানে সংখ্যালঘু মুসলিমদের মালিকানাধীন দোকান-পাট বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেয়। পরে অন্যান্য রাজ্যেও একই ধরনের ঘটনার খবর পাওয়া যায়। হিন্দু জাতীয়তাবাদী রাজনীতির বিশেষজ্ঞ এবং মোদীর জীবনীকার নীলাঞ্জন মুখোপাধ্যায় মার্কিন বার্তা সংস্থা এপিকে বলেছেন, ‘মানুষের বাড়িঘর ধ্বংস করা সাংবিধানিক নিয়ম এবং নীতির চরম লঙ্ঘন।’

মঙ্গলবার ভারতের সুপ্রিম কোর্ট এবং হাই কোর্টের সাবেক বিচারক, আইনজীবীসহ অন্তত ১২ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি দেশটির প্রধান বিচারপতির কাছে একটি চিঠি লিখেছেন। চিঠিতে প্রধান বিচারপতিকে বাড়িঘর ধ্বংসের বিষয়ে শুনানির আহ্বান এবং এই ঘটনাকে সামষ্টিক বিচারবহির্ভূত শাস্তি বলে অভিহিত করেছেন তারা। উত্তর প্রদেশ সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদকারীদের সহিংসতাকে ব্যবহার করে ভিন্নমত দমনের অভিযোগ করেছেন তারা।

শুক্রবার ঝাড়খণ্ড রাজ্যের রাজধানী রাঁচিতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে দুই বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। বিশ্বের কয়েকটি সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম দেশ বিজেপির দুই নেতার মহানবীকে (সা.) নিয়ে করা মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা এবং নিন্দা জানিয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে প্রতিবাদ জানিয়েছে। এছাড়া ওই অঞ্চলে ভারতীয় পণ্য বর্জনেরও ডাক দিয়েছেন অনেকে। ফলে কূটনৈতিক দিক থেকে মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপক বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে ভারত।

সমালোচকরা বলছেন, নুপুর শর্মা এবং নবীন জিন্দালের মন্তব্য ভারতের গভীর ধর্মীয় মেরুকরণের প্রতিফলন; যা গত কয়েক বছর ধরে দেশটিতে দেখা গেছে। ২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর দেশটিতে মুসলিমদের বিরুদ্ধে ঘৃণাত্মক বক্তব্য এবং আক্রমণ তীব্রভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড