• বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯  |   ৩০ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

গোলাবারুদ শেষ, ইউক্রেনের ভরসা শুধুই পশ্চিমারা

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

১১ জুন ২০২২, ১৭:৩৮
ইউক্রেনের প্রতিরোধ
ইউক্রেনের প্রতিরোধ। (ছবি : সংগৃহীত)

রাশিয়ার সামরিক অভিযানে নিজেদের যে বীরত্বের জানান দিয়ে আসছিল ইউক্রেন তা আর ধরে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। যুদ্ধে নিজেদের গোলাবারুদের মজুত তলানিতে নেমে পৌঁছেছে। এখন ভরসা শুধুই পশ্চিমা বিশ্বের অস্ত্র সহায়তার।

শনিবার (১১ জুন) ইউক্রেনের সামরিক গোয়ান্দা সংস্থার উপ প্রধান ভাদিম স্কিবিৎস্কি যুক্তরাজ্যের দৈনিক পত্রিকা গার্ডিয়ানকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানিয়েছেন।

গার্ডিয়ানকে তিনি বলেন, ‘এখন এটি স্পষ্টতই গোলাবারুদের যুদ্ধ এবং খোলাখুলিভাবেই বলছি, আমরা এখন সত্যিকারভাবে বিপদের মধ্যে আছি, কারণ আমাদের গুলি ও গোলাবারুদ প্রায় নিঃশেষ হওয়ার পথে।’

ভাদিম স্কিবিৎস্কি জানান, রুশ বাহিনীকে ঠেকিয়ে রাখতে প্রতিদিন অন্তত ৫ হাজার থেকে ৬ হাজার রাউন্ড গোলা ছুড়তে হচ্ছে ইউক্রেনীয় সেনাদের। গত তিন মাস ধরে প্রতিদিন হাজার হাজার রাউন্ড গোলা ছুড়তে থাকায় ইউক্রেন সেনাবাহিনীর নিজেদের গোলাবরুদের মজুত ফুরিয়ে এসেছে উল্লেখ করে গার্ডিয়ানকে স্কিবিৎস্কি বলেন, ‘আমাদের নিজেদের গোলার মজুত প্রায় শেষ, এখন আমরা ১৫৫ ক্যালিবার ন্যাটো স্ট্যান্ডার্ড শেল ব্যবহার করছি।’

তিনি বলেন, ‘কিন্তু এই শেলের মজুতও বেশি নেই। খুব হিসেবে করে আমাদের গোলা ছুড়তে হচ্ছে এবং রাশিয়া যদি ১৫টি গোলা ছোড়ে, সেক্ষেত্রে আমরা একটা গোলা ছুড়ছি। দনেতস্ক ও লুহানস্ক অঞ্চলে সবচেয়ে বাজে অবস্থা চলছে আমাদের। বলতে গেলে, সেখানে ইউক্রেনীয় সেনারা প্রায় অস্ত্র ছাড়াই যুদ্ধ করছে।’

স্কিবিৎস্কি বলেন, ‘পশ্চিমা মিত্ররা তাদের অস্ত্রভাণ্ডারের প্রায় ১০ শতাংশ আমাদের দান করেছে, কিন্তু আমাদের আরও অস্ত্র প্রয়োজন, বিশেষ করে দূরপাল্লার রকেট ও গোলা। এই যুদ্ধে আমরা টিকে থাকতে পারব কি না— এখন তা নির্ভর করছে আমাদের পশ্চিমা মিত্রদের সহায়তার ওপর।’

তিনি আরও জানান, এই মুহূর্তে দূর পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ও রকেট ব্যতীত রুশ বাহিনীকে বেকায়দায় ফেলার অন্য কোনো পথ নেই।

যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র পশ্চিমা দেশগুলোর সামরিক জোট ন্যাটোকে ঘিরে দ্বন্দ্বের জেরে সীমান্তে আড়াই মাস সেনা মোতায়েন রাখার পর গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে বিশেষ সামরিক অভিযান শুরুর ঘোষণা দেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এই ঘোষণা দেওয়ার দু’দিন আগে ইউক্রেনের রুশ বিচ্ছিন্নতাবাদী নিয়ন্ত্রিত দুই অঞ্চল দনেতস্ক ও লুহানস্ককে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেন তিনি।

ওডি/জেআই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড