• রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯  |   ২৯ °সে
  • বেটা ভার্সন
sonargao

বেশিরভাগ মার্কিন নাগরিক গরিব হয়ে যাওয়া নিয়ে চিন্তিত

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৫ মে ২০২২, ১৫:৫২
বেশিরভাগ মার্কিন নাগরিক গরিব হয়ে যাওয়া নিয়ে চিন্তিত
ছবি : রয়টার্স

বেশিরভাগ মার্কিন জনগণ বিশ্বাস করে যে, ব্যাপক মুদ্রাস্ফীতির মধ্যে তাদের আর্থিক অর্থনৈতিক অবস্থা খারাপ হচ্ছে এবং অর্থনৈতিক মন্দা আসন্ন। নতুন একটি জনমত জরিপে এই চিত্র উঠে এসেছে।

হারবার্ড-সিএপিসি এবং হ্যারিস যৌথভাবে এই জনমত জরিপ পরিচালনা করেছে। জরিপ প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে ‘দ্যা হিল’ পত্রিকা জানিয়েছে যে, জরিপে অংশ নেয়া শতকরা ৫৬ ভাগ মানুষ মনে করেন যে, অর্থনৈতিকভাবে তারা দিন দিন খারাপ অবস্থার দিকে যাচ্ছে। এটিই হচ্ছে মার্কিন সমাজের খারাপ অবস্থার বিষয়ে ইঙ্গিতবাহী সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষের মতামত।

এর আগে গত মাসে অন্য এক জনমত জরিপে দেখা গিয়েছিল যে, শতকরা ৪৮ ভাগ মানুষ মনে করে তাদের অর্থনৈতিক অবস্থা দুর্বল হচ্ছে। অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে এক মাসের ব্যবধানে শতকরা আট ভাগ মানুষের নেতিবাচক মনোভাব বেড়েছে।

নতুন জরিপে অংশ নেয়া লোকজনের শতকরা ২০ ভাগ মনে করেন, তাদের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি ঘটবে।

জনমত জরিপ পরিচালনাকারী দলের সহকারী পরিচালক মার্ক পেন বলেন, যাই ঘটুক না কেন দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ এখন পরিষ্কারভাবে এই ধারণা পোষণ করে যে, তাদের অর্থনৈতিক অবস্থা খারাপ হচ্ছে।

আমেরিকার ইতিহাসে বর্তমানে সর্বোচ্চ মুদ্রাস্ফীতি বিরাজ করছে। ফলে নিত্যপণ্যের দাম যেমন বেড়েছে তেমনি জীবনযাত্রার মান কমেছে। সাধারণ জনগণ তাদের আর্থিক সক্ষমতার বিপরীতে নিত্যদিনের চাহিদা পূরণ করতে হিমশিম খাচ্ছে।

আরও পড়ুন : জর্জ বুশকে হত্যার ছক ফাঁস

গত মাসেই পণ্যমূল্য গড়ে শতকরা আট ভাগ বেড়েছে। এরমধ্যে তেলের দাম আকাশচুম্বী। ফলে মার্কিন জনগণ এখন কঠোর অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে পড়েছে। রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতের পরিপ্রেক্ষিতে মস্কোর বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন পশ্চিমা দেশগুলো নিষেধাজ্ঞা আরোপের ফলে এই সংকট আরও তীব্র হয়ে উঠেছে।

ওডি/এফই

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক: মো: তাজবীর হোসাইন  

সহযোগী সম্পাদক: গোলাম যাকারিয়া

 

সম্পাদকীয় কার্যালয় 

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

যোগাযোগ: 02-48118241, +8801907484702 

ই-মেইল: [email protected]

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড