• রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৬  |   ২৪ °সে
  • বেটা ভার্সন

খাসোগি হত্যার পরিকল্পনা সৌদি সরকারের : নিউ ইয়র্ক টাইমস

খাসোগিকে হত্যায় সৌদি হিট স্কোয়াড

  অধিকার ডেস্ক    ১০ অক্টোবর ২০১৮, ১৯:৩৬

জামাল খাসোগি
ছবি : দা আর্মড পোস্ট

সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি রহস্যের নতুন দিক উন্মোচন মার্কিন প্রভাবশালী গণমাধ্যম ‘নিউ ইয়র্ক টাইমসের’। তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতর সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যা করতে ১৫ সদস্যের হিট স্কোয়াড নিয়োগ দিয়েছিল সৌদি আরব। 

‘আততায়ী টিমে একজন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞও ছিলেন। যিনি একটি হাড় কাটতে করাত নিয়ে এসেছিলেন, যাতে খাসোগিকে হত্যার পর তার দেহ টুকরো টুকরো করা যায়’ বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শীর্ষ কয়েকজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করে ‘নিউ ইয়র্ক টাইমস’।

হিট স্কোয়াড দুই ঘণ্টার ভেতর হত্যার অপারেশন শেষ করে এবং তুরস্ক থেকে বিভিন্ন দেশের উদ্দেশে রওনা দেয় বলে তুরস্কের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানায় টাইমস। এই হত্যাকাণ্ডকে কোয়েন্তিন তারান্তিনো পরিচালিত ১৯৯৪ সালের হলিউডের ফিকশনাল সিনেমা ‘পাল্প ফিকশন’- এর সঙ্গে তুলনা করেছেন একজন সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তা। ‘আল-জাজিরা’

খাসোগির নিখোঁজ ও তার হত্যার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সৌদির কর্মকর্তারা। তিনি ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেট ছেড়ে বেরিয়ে গিয়েছেন বলে দাবি করেন কর্মকর্তারা। তবে তাদের এই দাবির পক্ষে প্রমাণ দিতে রিয়াদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

তুরস্ক সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রেখে চলা দৈনিক সাবাহ, ওই ১৫ সদস্যের আততায়ী টিমের সদস্যদের নাম ও ছবি প্রকাশ করেছে। এখন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের খুঁজছে তুরস্কের কর্তৃপক্ষ।

যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটের পররাষ্ট্র সম্পর্ক কমিটির চেয়ারম্যান সিনেটর বব কর্কার বলেছেন, সব কিছু দেখে মনে হচ্ছে খাসোগিকে গত সপ্তাহে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতর হত্যা করা হয়েছে।

ওয়াশিংটন পোস্টের কন্ট্রিবিউটর জামাল খাসোগি হত্যার এই অভিযোগ সত্য হলে সৌদির বিরুদ্ধে সরব হতে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর চাপ আরও বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তালাকের কাগজপত্র সংগ্রহের জন্যে বান্ধবীকে বাহিরে দাঁড় করিয়ে ৫৯ বছর বয়সী খাসোগি ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করেন। কিন্তু তার বান্ধবী, পরিবার এবং তুরস্ক কর্তৃপক্ষের দাবি, সে কনস্যুলেট থেকে আর বের হননি।

‘আরব নিউজ’ সাবেক এই প্রধান সম্পাদক সৌদির শীর্ষ কর্মকর্তাদের একজন উপদেষ্টাও ছিলেন। গেল বছর যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতার মূলকেন্দ্রে চলে আসায় তিনি যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা নির্বাসনে ছিলেন।
 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
SELECT id,hl2,parent_cat_id,entry_time,tmp_photo FROM news WHERE ((spc_tags REGEXP '.*"location";s:[0-9]+:"তুরস্ক".*')) AND id<>21597 ORDER BY id DESC LIMIT 0,5

১৪৭/ডি, গ্রীন রোড, ঢাকা-১২১৫।

ই-মেইল: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

Developed by : অধিকার মিডিয়া লিমিটেড